মেক্সিকোর রাজনীতিকের ৭ বছরের পুরনো ছবি বিভ্রান্তিকর দাবি সহ ভাইরাল

বুম দেখে মেক্সিকোর রাজনীতিক অ্যান্টনিও গার্সিয়া কনেজোরের ২০১৩ সালে একটি এনার্জি বিল পাশের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ছবি এটি।

প্রায় সাত বছরের পুরানো একটি ছবি, যাতে মেক্সিকোর রাজনৈতিক নেতা অ্যান্টনিও গার্সিয়া কনেজোকে অন্তর্বাস পরিহিত অবস্থায় পার্লামেন্টে দেখা যাচ্ছে, বিভ্রান্তিকর দাবি সমেত ফের ছড়িয়ে পড়েছে। ছবিটিতে দাবি করা হয়েছে যে, গরীব মানুষের কাছ থেকে চুরি করার জন্য দেশের মন্ত্রীদের লজ্জা দেওয়ার জন্য তিনি এই কাজ করেছেন।

বুম অনুসন্ধান করে জেনেছে যে, ছবিতে আসলে কনেজকে মেক্সিকোর কংগ্রেসে একটি ঐতিহাসিক এনার্জি বিল পাশ করার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে দেখা যাচ্ছে। ওই বিল অনুসারে মেক্সিকোর প্রাকৃতিক গ্যাস এবং তেল ক্ষেত্রে বিদেশি এবং বেসরকারি বিনিয়োগে ছাড়পত্র দেওয়া হবে। বিরোধী দলের এই নেতা জামাকাপড় খুলে অন্তর্বাস পরে দেখাতে চেয়েছেন, কী ভাবে মেক্সিকোর প্রাকৃতিক সম্পদ কেড়ে নিয়ে তাকে নগ্ন করে দেওয়া হচ্ছে।
ছবিগুলি যে ক্যাপশনের সঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে তাতে দাবি করা হয়েছে, "পার্লামেন্টে বিতর্ক চলার সময় মেক্সিকোর পার্লামেন্টের এক সদস্য নিজের জমাকাপড় খুলে ফেলেন। তিনি পার্লামেন্টকে বলেন, "আপনারা আমাকে নগ্ন দেখে লজ্জিত হচ্ছেন, কিন্তু আপনারা সমস্ত টাকা এবং সম্পদ চুরি করে নেওয়ার পর যখন রাস্তায় বিবস্ত্র, নগ্নপদ, মরিয়া, কাজহীন, ক্ষুধার্ত মানুষকে দেখেন তখন আপনারা লজ্জিত হন না। কত সাহসী মানুষ আপনারা, এ রকমটাই হওয়া উচিত।"
হিন্দি ক্যাপশনের সঙ্গেও এই ছবিগুলি ভাইরাল হয়েছে। হিন্দি ক্যাপশনে লেখা হয়েছে "मेक्सिको में , संसद का एक सदस्य ने संसद में बहस के दौरान अपने सारे कपड़े उतार देता है और बोलता है की " तुम्हे मुझे नग्न देखने मे शर्म आती है लेकिन आपको अपने देश को नग्न, नंगे, हताश, बेरोजगार और निजी कंपनियों जब इस देश का सारा धन लूट रहे है और आम आदमी को गुलाम बना रहे तब तुम्हे ये देख कर शर्म नही आती " क्या हिम्मतवर व्यक्ति है, ऐसा ही होना चाहिए |"
বুম ব্রিভান্তিকর ক্যাপশনের সঙ্গে ছবিটি নিজের টিপ লাইনেও পেয়েছে ( +৯১৭৭০০৯০৬১১১)।
ফেসবুক পোস্টগুলি নীচে দেখা যাবে এবং পোস্টগুলি আর্কাইভ করা আছে এখানে এবং এখানে

ভাইরাল হওয়া ছবিদু'টির একটি দিয়ে বুম রিভার্স ইমেজ সার্চ করে। তার ফলে আমরা দেখতে পাই, ছবিটি ইন্টারনেটে ২০১৩ সাল থেকে রয়েছে। আর ঘটনাটি মেক্সিকো কংগ্রেসে ঘটেছিল। আমরা বিবিসি এবং ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের ২০১৩ সালের ডিসেম্বর মাসের প্রতিবেদন দেখতে পাই।
২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর তারিখে প্রকাশিত ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এই চূড়ান্ত নাটকীয় ঘটনাটি ঘটে যখন মেক্সিকো কংগ্রেস একটি এনার্জি বিল পাশ করার পক্ষে ভোট দেয় এবং তার ফলে রাষ্ট্রায়ত্ত তেল সংস্থা পেমেক্স (পেট্রোলিয়াম মেক্সিক্যানোস)-এর ৭৫ বছর ধরে চলা একচেটিয়া অধিকার শেষ হয়। ১৯৩৮ সালের পর এই প্রথম বেসরকারি সংস্থা পেমেক্সের সাথে সাথে তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাস নিষ্কাশন করতে অনুমতি পাবে এবং তারা লাভের অংশও পাবে।
কিছু রাজনৈতিক নেতা বিরোধিতা করলেও বেশির ভাগ নেতার যুক্তি ছিল যে, এর ফলে বিদেশী বিনিয়োগের মাধ্যমে মেক্সিকোর রাজকোষে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রা আসবে।
ওই প্রতিবেদন অনুসারে বামপন্থী যে নেতাকে ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যাচ্ছে, যিনি বিলের বিরোধিতা করতে নিজের জমাকাপড় খুলে অন্তর্বাস পরে দাঁড়িয়ে আছেন, তিনি বলেন, "ঠিক এই ভাবেই আপনারা দেশকে নগ্ন করছেন, তার শরীরের হাড় দেখা যাচ্ছে"।
সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া মেসেজে যে কথাগুলি দেখা যাচ্ছে, উল্লিখিত দুটি প্রতিবেদনের একটিতেও কনেজোর উদ্ধৃতি হিসেবে এই কথাগুলি পাওয়া যায়নি।
বিবিসি তাঁকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, "এই ভাবেই আপনারা দেশকে নগ্ন করছেন। কার উপকার হচ্ছে? আমি লজ্জিত নই, আপনারা যা করছেন তা লজ্জার!"
Updated On: 2020-10-16T22:47:49+05:30
Claim :   ছবিতে এক মেক্সিকান রাজনীতিবিদকে বলতে দেখা যাচ্ছে, আপনারা আমাকে নগ্ন দেখে লজ্জিত হচ্ছেন, কিন্তু আপনারা রাস্তায় মানুষকে নগ্ন, খালি পায়ে, বেকার ক্ষুধার্ত দেখে লজ্জিত হন না; যাদের টাকা ও সম্পত্তি আপনারা লুটে খেয়েছেন।
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.