সিএএ সমর্থন করায় বিজেপি নেতা এনায়েত হোসেনকে মারধর করা হল? একটি তথ্য যাচাই

বুম দেখে দু'বছর আগের এই ভিডিওটিতে আসলে আজমীরের এক খাদিমকে হেনস্থা করা হচ্ছে।

আজমীরে এক মৌলবিকে কালি মাখিয়ে দেওয়ার ভিডিও জিইয়ে তুলে দাবি করা হচ্ছে, নাগরিকত্ব আইন এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকে (এনআরসি) সমর্থন করার অপরাধে এক বিজেপিমনস্ক মুসলিমকে নিগ্রহ করা হচ্ছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি লোক হঠাৎ করেই এক মৌলবির মুখে কালি মাখিয়ে দিচ্ছে। হতচকিত হয়ে মৌলবিটি তার হেনস্থাকারীর দিকে তেড়ে যায়, যে আবারও তাকে একজোড়া জুতো দিয়ে পেটায়। পরে অন্য লোকেরা এসে দুজনের মারপিট থামায়।

ভিডিওটিতে নিগৃহীত মৌলবিকে মিথ্যা করে বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চার জাতীয় হিসাবরক্ষক এবং হজ কমিটির প্রাক্তন সভাপতি এনায়েত হোসেন বলে শনাক্ত করা হয়েছে। ভিডিওটির ক্যাপশন: "এনায়েত হোসেনকে ইন্দোরে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। ভিডিওটি দেখুন l এমন স্বাগত অভ্যর্থনা নিশ্চয় আপনারা এই প্রথম দেখছেন!"

এই ক্লিপটি টুইটার, ফেসবুক ও ইউটিউব একই দাবি সহ ভাইরাল হয়েছে। এরকম দুটি টুইট আর্কাইভ হয়েছে এখানেএখানে

ফেসবুকে ভাইরাল


বুম-এর হেল্পলাইন নম্বরেও ভিডিওটি যাচাই করার জন্য পাঠানো হয়।



তথ্য যাচাই

বুম ভিডিওটিকে মূল কয়েকটি ফ্রেমে ভেঙে নিয়ে খোঁজখবর করে ইউটিউবে ২০১৮ সালের মার্চ মাসে আপলোড করা একই ভিডিওর খোঁজ পায়, যার ক্যাপশনে লেখা আছে, "দেখুন আজমীরের খাদিমদের নিজেদের মধ্যে মারামারির দৃশ্য।"

আরও অনুসন্ধান চালিয়ে আমরা কিছু সংবাদ-প্রতিবেদনের খোঁজ পাই, যাতে এই ভিডিওর বিবরণটি সমর্থিত হয়েছে। ঘটনাটি ২০১৮ সালের, রাজস্থানের আজমির শরিফ দরগার। নিউজনেশনে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, "সোমবার রাজস্থানের আজমির শরিফ দরগায় খাদিমো ইনস্টিটিউট অঞ্জুমান শেখজাদগানের সচিবের উপর আক্রমণের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এই ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, শেখ বান্টি নামে একজন খাদিম সচিবের মুখে কালি লেপে কালো করে দিচ্ছে এবং চপ্পল দিয়ে তাঁকে পেটাচ্ছে।"

একই ভিডিও ২০১৮ সালের ১২ মার্চ নিউজ-১৮ রাজস্থান টুইট করে এবং মরুধারা টাইমস টিভি ইউটিউবে আপলোড করে।

Updated On: 2020-01-31T11:06:00+05:30
Claim Review :  ভিডিওর দাবি এনায়েত হোসেন এনআরসি ও সিএএ সমর্থন করায় তার মুখে কালি লেপে দেওয়া হচ্ছে
Claimed By :  Facebook Posts and Twitter users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story