Fake News: আলজেরিয়ায় ফরাসি সেনার গাধা পিঠে ছবি মিথ্যে দাবিতে ভাইরাল

আলজেরিয়া থেকে ফরাসি সেনারা মা পরিত্যক্ত গাধার বাচ্চাটিকে ১৯৫৮ সালে উদ্ধার করে, এই নিয়ে ডেইলি মিরর সংবাদ প্রকাশ করেছিল।

সোশাল মিডিয়ায় আলজেরিয়া (Algeria) থেকে ফরাসি সেনাদের গাধা উদ্ধারের ১৯৫৮ সালের ছবিকে বিভ্রান্তিকর দাবি সহ শেয়ার করা হচ্ছে। ফেসবুকে ছবিটি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে যুদ্ধক্ষেত্রে মাইন পাতা অঞ্চলে গাধাটি (Donkey) অসাবধনাতায় যেন পা না দিয়ে দেয় তাই সেনারা (Soldiers) সুরক্ষার স্বার্থে গাধাটিকে কাঁধে করে বয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

বুম দেখে ১৯৫৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর ব্রিটিশ সংবাদপত্র ডেইলি মিরর সংবাদ প্রকাশ করে আলজেরিয়ায় জঙ্গি দমনে টহলরত ফরাসি সেনারা মা পরিত্যক্ত ওই গাধার বাচ্চাটিকে উদ্ধার করে।

ছবিটি ফেসবুকে ব্যবহার করে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ''ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন ১টি গাধাকে ১জন সৈনিক পিঠে তুলে নিয়েছে! প্রকৃতপক্ষে: এই ছবিটির মধ্যে কোন ভালোবাসা লুকিয়ে নেই! যদি গাধাটি ভুল পথে হেঁটে যেত, তবে এটি ওখানে পেতে রাখা লুকানো মাইনগুলোর বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সবাইকে বিপদে ফেলে দিত! তাই বলা হচ্ছে নিজের চারপাশের গাধাগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করুন! আর এগিয়ে যান।''

সেনার পিঠে গাধা, ভাইরাল ছবি।

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

বুম ক্যাপশন সার্চ করে দেখে একই দাবি সহ ছবিটি ফেসবুকেব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছে।

আরও পড়ুন: মিথ্যে: গ্রাফিকের দাবি পশ্চিমবঙ্গে সবচেয়ে বেশি ধর্ষণ হয়

তথ্য যাচাই

বুম কিওয়ার্ড সার্চ করে ফেক হিস্ট্রি হান্টার নামে একটি ব্লগে ৪ এপ্রিল ২০২০ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের হদিস পায়। সেখানে বিস্তারিত ভাবে ছবটির উৎসের তথ্য তালাশ করা হয়েছে।

বুম দেখে বোমা পাতা যুদ্ধ ক্ষেত্রে বাঁচতে সেনার গাধা বহনের (carrying donkey) কাহিনী মনগড়া। বিষয়টি নিয়ে ১৯৫৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর ব্রিটিশ সংবাদপত্র ডেইলি মিরর (Daily Mirror)-এ ছবি সহ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল।

বুম ব্রিটিশ সংবাদপত্রের আর্কাইভ থেকে ১৯৫৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত ডেইলি মিরর-এর প্রথম পাতা সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছে।

সৌজন্য: ব্রিটিশ নিউজপেপার আর্কাইভ

ডেইলি মিররের প্রতিবেদেনের সারাংশ দেওয়া হল, ''আলজেরিয়ায় যুদ্ধক্ষেত্রে ফ্রান্সের ফরেন লিজিনিওর সেনারা মা পরিত্যক্ত গাধার শাবকটিকে উদ্ধার করে। ওই সেনাদল আরবের জঙ্গীদের বিরুদ্ধে টহল দিচ্ছিলেন। তাঁরা সিদ্ধান্ত নেন এই ছোট গাধাটিকে তাদের ম্যাসকট করবে। যুদ্ধসামগ্রী-মর্টার থাকা সত্ত্বেও ওই সহৃদয় ব্যক্তি গাধাটি মৃত্যুর দিকে ঠেলে ফেলে না দিয়ে বহনের সিদ্দান্ত নেয়।''

১৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৫৯ ডেইলি মিরর-এ আবার এই ছবিটি নিয়েই বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ততদিনে তাকে ৬ কোম্পানি লিজিয়ন ১৩ লাইট ব্রিগেডের ম্যাসকট করা হয়েছে। ওয়াল্ট ডিজনির কার্টুন দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে "বাম্বি" (Bambi) নাম রাখা হয় তার।

সৌজন্য: ব্রিটিশ নিউজপেপার আর্কাইভ

ডেইলি মিরর ছাড়া ফরাসি সংবাদপত্রেও বিষয়টি নিয়ে সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছিল। ছবিটি সংক্রান্ত ভুয়ো তথ্য স্নপসইউএসএ টুডে আগে তথ্যযাচাই করেছে।

Updated On: 2020-12-24T11:02:40+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি যুদ্ধক্ষেত্রে পাতা বোমা বিস্ফোরণ থেকে বাঁচতে গাধাকে পিঠে করে বয়ে নিয়ে যাচ্ছে সেনা
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story