মিথ্যে: পুলিশ তাহির হুসেনকে দায়ী করতে বাড়িতে দাঙ্গাকারীদের ঢোকাচ্ছে

বুম দেখে যে ছবিটি নেওয়া হয়েছে একটি উদ্ধার কাজের ভিডিও থেকে, যেখানে একটি বাড়ি থেকে লোকজনকে নেমে আসতে সাহায্য করছিল পুলিশ।

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে দাঙ্গা চলাকালে একটি বাড়ির বাসিন্দাদের উদ্ধার করতে দেখা যাচ্ছে দিল্লি পুলিশকে। কিন্তু গত সপ্তাহে ভিডিওটি এই মিথ্যে দাবি সমেত ভাইরাল হয় যে, আম আদমি পার্টির (আপ) কাউনসিলার তাহির হুসেনকে ফাঁসানোর জন্য পুলিশ দাঙ্গাকারীদের তাঁর বাড়িতে ঢুকে পেট্রল বোমা আর পাথর মজুত করতে সাহায্য করে।

ছবিটিতে পুলিশকে একটি জোড় দেওয়া মই দিয়ে লোকেদের নামতে সাহায্য করতে দেখা যাচ্ছে।

ছবিটি একটি মিথ্যে ক্যাপশন সমতে শেয়ার করা হচ্ছে। তাতে বলা হয়েছে, "পুলিশ দাঙ্গাকারীদের মই দিয়ে তাহির হুসেনের বাড়ির ছাদে উঠতে সাহায্য করে, যাতে তারা সেখান থেকে বাড়িতে ঢুকে, তাহিরকে ফাঁসানোর জন্য সেখানে পেট্রল বোমা, পাথর আর গুলতি রেখে আসতে পারে।"

(মূল হিন্দিতে পোস্ট: दिल्ली पुलिस दंगाईयों को पार्षद ताहिर हुसेन के घर के छत पर चढ़ने के लिये सीढ़ी लगाते हुए ताकि पैट्रोल बॉम्ब,गुलेल,स्टोन रख कर उसे फंसाया जा सके)


পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফেসবুকে ভাইরাল

ওই ক্যাপশন দিয়ে আমরা ফেসবুকে সার্চ করি। দেখা যায়, ওই একই বিবরণ সমেত ছবিটি ফেসবুকেও ভাইরাল হয়েছে।


তাহির হুসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ যে, তিনি নিজের বাড়িতে গুন্ডাদের জড়ো করেন। এবং দিল্লির দাঙ্গার সময়, তারা ওনার বাড়ির ছাদ থেকে গুলি চালায় ও পেট্রল বোমা ছুঁড়তে থাকে। হুসেন ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর কর্মী অঙ্কিত শর্মার হত্যার ঘটনায় দিল্লি পুলিশ ওই আআপ কাউনসিলারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে। শর্মা চাঁদবাগ এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। আর সেখানেই একটি নর্দমা থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার করা হয়। শর্মার হত্যা সংক্রান্ত এফআইআর-এ হুসেনের নাম ছিল। আপ তাঁকে পার্টির প্রাথমিক সদস্যপদ থেকে বহিষ্কার করেছে।

আরও পড়ুন: আমদাবাদে পুলিশের ওপর পাথর ছোঁড়ার ভিডিওকে দিল্লির ঘটনা বলে চালানো হচ্ছে

তথ্য যাচাই

বুম রিভার্স সার্চ করে দেখে যে, আপ নেতা সঞ্জয় সিং ওই উদ্ধার কাজের ভিডিওটি টুইট করেন।

লোকজনকে সাহায্য করার জন্য, দিল্লি পুলিশের প্রশংসা করে সিং ভিডিওটি ২৬ ফেব্রুয়ারি টুইট করেছিলেন। ভিডিওটির ক্যাপশনে বলা হয়েছে, "দিল্লি পুলিশের সাহসী অফিসাররা দিল্লির হিংসা-কবলিত গন্ডি এলাকার মানুষজনকে রক্ষা করছেন।" সিং'র টুইট-করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, পুলিশ একটা মই দিয়ে লোকজনকে নামতে সাহায্য করছে এবং তাদের পালানোর ব্যবস্থা করে দিচ্ছে।"

পুলিশের উপস্থিতিতে বাড়ির বাসিন্দাদের মই বেয়ে নেমে পালাতে দেখা যাচ্ছে ফুটেজটিতে। অথচ, ভাইরাল ক্যাপশনে বলা হচ্ছে, লোকেদের বাড়ির মধ্যে ঢোকানো হচ্ছে।

অন্য দিক থেকে তোলা ওই একই জায়গার আরও একটি ভিডিও আমাদের নজরে আসে। সাংবাদিক কমলজিৎ সান্ধু ভিডিওটি টুইট করেন। শাস্ত্রী পার্ক হিসেবে জায়গাটিকে চিহ্নিত করেন সান্ধু। টুইট-করা ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা হয়, "দিল্লির হিংসা মোকাবিলা করার ক্ষেত্রে দিল্লির পুলিশের ভূমিকার যখন জোর সমালোচনা চলছে, তখন এই ভিডিওতে দিল্লির দাঙ্গা চলাকালে ১৩ জন অবরুদ্ধ ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে দেখা যাচ্ছে পুলিশকে। ভিডিওটি ২৪ ফেব্রুয়ারি উত্তর-পূর্ব দিল্লির শাস্ত্রী পার্কে তোলা হয়।"

২ মিনিট ২০ সেকেন্ডর ভিডিওটিতে, লোকজনকে মইয়ের সাহায্যে একটি বাড়ি থেকে নেমে পালাতে দেখা যাচ্ছে। বাড়িটির পেছনে ধোঁয়া উঠতেও দেখা যাচ্ছে। ঠিক যেমনটা দেখা যায় সঞ্জয় সিং'র ফুটেজে।

তাছাড়া, দুই ভিডিওতেই বাড়ির কাঠামোটি এক। বাড়ির ছাদে পুলিশ কর্মীরা মই দিয়ে লোকজনকে বেরিয়ে যেতে সাহায্য করছেন। দুই ভিডিওতেই ছাদের চেহারাটা একই রকম। ছাদের একটা বেরিয়ে-থাকা অংশ দেখা যাচ্ছে দু'টো ভিডিওতেই। তবে ঘটনাস্থলটি কোথায়, স্বাধীনভাবে উপায়ে বুম তা নির্ধারণ করতে পারেনি।


Claim Review :   দিল্লি পুলিশ আপ নেতা তাহির হুসেনকে দায়ী করতে বাড়িতে দাঙ্গাকারীদের ঢুকতে সাহায্য করেছে
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story