ইনি কি জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ার ভুয়ো মহিলা বিক্ষোভকারী?

বুম দেখে ছবিটি ভারতের নয়, ২০১৭ সালে কায়রোতে ধৃত এক অপহরণকারীর।

বোরখা-পরা মহিলার বেশে এক পুরুষের পুরনো ছবি আবার ফিরে এসেছে। লোকটি মহিলা সেজে বাচ্চা অপহরণ করত। কিন্তু তার ছবি এখন জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া ইউনিভারসিটির (জেএমইউ) একজন বিক্ষোভকারীর বলে চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

ভাইরাল ছবির লোকটি মিশরে বাচ্চা অপহরণ করতে গিয়ে ধরা পড়ে।

ছবিটি হোয়াটসঅ্যাপে ভাইরাল হয়েছে। ক্যাপশনে বলা হয়েছে, "জামিয়ার মহিলা বিক্ষোভকারীকে দেখুন।" (হিন্দিতে লেখা হয়: मिलिए जामिया की महिला protester से)

গত সপ্তাহ থেকে, নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে ছাত্ররা দেশজুড়ে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। পুলিশ রবিবার বিক্ষোভ দমন করতে গেলে বেশ কিছু ছাত্র আহত হন। তার ফলে, জেএমইউ ও আলিগঢ় মুসলিম ইউনিভারসিটির ক্যাম্পাসে বিক্ষোভকারীরা মারমুখী হয়ে ওঠে।

ছবিটির সত্যতা যাচাই করার জন্য সেটি বুমের হেল্পলাইনে পাঠান এক ব্যক্তি।


একই বক্তব্য সমেত ছবিটি ফেসবুক ও টুইটারেও ভাইরাল হয়েছে।



তথ্য যাচাই

বুম ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে জানা যায় যে, দু' বছর আগে মিশরে ছেলেধরার অভিযোগে লোকটিকে গ্রেপ্তার করা হয়। মহিলা সেজে সে ওই কাজ করত। কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করলে বেশ কিছু রিপোর্ট সামনে আসে। তাতে বলা হয, বোরখা-পরা মহিলার বেশে একটি লোক কায়রোর এক জনবহুল জায়গায় বাচ্চা অপহরণ করার ছেষ্টা করলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

লোকটির সন্দেহজনক আচরণের ফলে স্থানীয় মানুষ কায়রোর নর্থ ৯০ স্ট্রিটে, ফান সিটির ৮ নম্বর গেটের কাছে অবস্থিত একটি মলের মধ্যে তাকে পাকড়াও করে। পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

ওই ঘটনা সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট এখানে পড়া যাবে।


Updated On: 2020-02-27T16:42:22+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি ছেলে মেয়ে সেজে জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিক্ষোভকারী হয়েছে
Claimed By :  Facebook And Whatsapp Messages
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story