এগুলি আরজেডি'র পাটনা কার্যালয়ে মিষ্টি ফেলে দেওয়ার ছবি নয়

বুম দেখে দাবিটি অসত্য, কারণ ভাইরাল তিনটি ছবির মধ্যে দুটি হল মধ্যপ্রদেশ ও হরিয়ানার।

তিনটি ছবির একটি সেট ভাইরাল হয়েছে সোশাল মিডিয়ায়। সেগুলিতে দেখা যাচ্ছে, মিষ্টি ফেলে দেওয়া হচ্ছে রাস্তায়। সেই সঙ্গে দাবি করা হচ্ছে যে, ছবিগুলি রাষ্ট্রীয় জনতা দলের পাটনা অফিসের। বিহার বিধানসভা নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর, সেখানে মিষ্টি ফেলে দেওয়া হচ্ছে।

বুম দেখে, তিনটির মধ্যে দুটি ছবি হল হরিয়ানা ও মধ্যপ্রদেশের। তাছাড়া, ছবিগুলি পুরনো এবং বিহারের নির্বাচনের সঙ্গে সেগুলির কোনও সম্পর্ক নেই।

ছবিগুলি বিহারের সাম্প্রতিক নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে শেয়ার করা হচ্ছে। ওই ভোটে ভারতীয় জনতা পার্টি নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স জয়লাভ করে। তারই মধ্যে, তেজস্বী যাদবের নেতৃত্বে, রাষ্ট্রীয় জনতা দল ৭৫ টি আসন জিতে এনডিএর সঙ্গে প্রায় সমানে সমানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।

পোস্টটিতে তিনটি ছবি রয়েছে। আর ক্যাপশনে বলা হয়েছে, "পাটনায় আরজেডি অফিসে মিষ্টি ফেলে দেওয়া হচ্ছে।"

আরও পড়ুন: পশ্চিমবঙ্গে লোকাল ট্রেন চালু হওয়ার পর ছড়াল পুরনো ভিড় স্টেশনের দৃশ্য

পোস্টটি নীচে দেখুন। আর্কাইভের জন্য ক্লিক করুন এখানে

একই ক্যাপশন সহ পোস্টটি টুইটারেও ভাইরাল হয়েছে। আর্কাইভ দেখুন এখানে

আরও পড়ুন: নবী মহম্মদের নামে তৈরি ইসলামি সঙ্গীত ছড়াল কাজী নজরুল ইসলামের লেখা বলে

তথ্য যাচাই

বুম আলাদা আলাদা করে তিনটি ছবির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে। দেখা যায়, তিনটির মধ্যে দুটি ছবি হল হরিয়ানা ও মধ্যপ্রদেশের।

ছবি-১


রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে, 'অমর উজালা' ও 'দৈনিক ভাস্কর'-এ যথাক্রমে ১০ ও ১১ নভেম্বরে প্রকাশিত প্রতিবেদন আমাদের সামনে আসে।

সেগুলিতে বলা হয়, দীপাবলির আগে, মিষ্টি ও অন্যন্য খাবার তৈরি করার ক্ষেত্রে কোনও অনিয়ম হচ্ছে কিনা তা দেখতে, মুখ্যমন্ত্রীর ভ্রাম্যমান স্কোয়াড এবং খাদ্য নিরাপত্তা দফতরের কর্মীরা, সিরসার দু' জায়গায় যৌথ অভিযান চালান।

ওই অভিযানের ফলে, প্রায় এক কুইন্টাল নষ্ট হয়ে যাওয়া রসগোল্লা ফেলে দেওয়া হয় আর অন্যান্য মিষ্টির নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় ল্যাবরেটারিতে।


দৈনিক ভাস্করে প্রকাশিত ছবিটি একটু আলাদা অ্যাঙ্গেল থেকে তোলা।


ছবি-২


আরও পড়ুন: বিহার ভোটে এনডিএ-এর 'অ্যান্টি ইনকাম্বেন্সি' মোকাবিলা: ৫টি প্রধান বিষয়

রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে দেখা যায়, ছবিটি ২০১৯-এ গোয়ালিয়রে তোলা হয়।

১৬ অগস্ট ২০১৯-এ, 'ভোপাল সমাচার'-এ প্রকাশিত খবরের সঙ্গে ছবিটি বেরয়। খবরটিতে বলা হয়, খাদ্য নিরাপত্তা দফতর 'যোধপুর মিষ্টান্ন ভাণ্ডারে তল্লাশি চালিয়ে ২৫০ কিলোগ্রাম নিম্নমানের মিষ্টি বাজেয়াপ্ত করে'।


১৭ অগস্ট ২০১৯-এ, 'পত্রিকা' নামের একটি ওয়েবসাইটে ওই একই ছবি ব্যবহার করা হয়্।


ওই রিপোর্টে বলা হয়, গোয়ালিয়রের সাব-ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট যোধপুর মিষ্টান্ন ভাণ্ডারে তল্লাসি চালালে, সেখানে অনেক অনিয়ম ধরা পড়ে যায়।

তৃতীয় ছবিটির উৎস অবশ্য বুম জানতে পারেনি।

আরও পড়ুন: গিরিরাজ সিংহ বিহারে মুখ্যমন্ত্রী হোক, প্রধানমন্ত্রী মোদীর চিঠিটি ভুয়ো

Updated On: 2020-11-13T18:15:41+05:30
Claim Review :   আরজেডির পাটনা অফিসে মিষ্টি ফেলা হচ্ছে
Claimed By :  Facebook users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story