না, এটি প্যারিসে শিরচ্ছেদ হওয়া শিক্ষকের ছবি নয়

বুম কেন্ট রিফিউজি অ্যাকশন নেটওয়ার্কের সঙ্গে যোগাযোগ করলে, তারা বলেন ছবিটি তাদের ১৭ অক্টোবরের একটি অনুষ্ঠানের।

যুক্ত রাজ্যের কেন্ট-এ কয়েকজন শরণার্থীকে অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন কিছু মানুষ। এমনই একটি ছবি এই মিথ্যে দাবি সমেত ভাইরাল হয়েছে যে, তাতে ফরাসি শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে দেখা যাচ্ছে। ক্লাসের পড়ুয়াদের নবী মহম্মদের কার্টুন দেখানর জন্য ১৬ অক্টোবর যাঁর শিরচ্ছে করা হয়। ছবিটিতে তিনজনকে প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। তাতে লেখা, "শরণার্থীরা স্বাগত।"

ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য সুরেন্দ্র পুনিয়া টুইট করে দবি করেছেন যে, কিছুকাল আগের এই ছবিতে প্যাটিকে প্যারিসে শরণার্থীদের অভ্যর্থনা জানাতে দেখা যাচ্ছে। নেটিজেনরা প্যাটির প্রতি কটাক্ষ করে মন্তব্য করেছেন যে, নিজের দেশে রিফিউজিদের ঠাঁই করে দেওয়ার জন্যই তাঁর প্রাণ গেল। সেই সঙ্গে যে ভারতীয়রা রোহিঙ্গাদের অবৈধ প্রবেশ সমর্থন করছেন, বিপদ সম্পর্কে তাঁদেরও সাবধান করে দেওয়া হয়েছে।

ফ্রান্সে বসবাসকারী চেচেন বংশোদ্ভূত আবদুল্লাহ আনজোরভ ১৬ অক্টোবর শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটির শিরচ্ছেদ করেন। বাকস্বাধীনতা সম্পর্কে আলোচনা করার সময়, অনেক কার্টুনের মধ্যে উনি মহম্মদের ওপর আঁকা একটি কার্টুনও তাঁর ছাত্রদের দেখান। মহম্মদের ওপর ওই ব্যঙ্গচিত্রগুলি ছিল শার্লি এবদো সিরিজের, যেগুলির জন্য ২০১৫-য় আক্রান্ত হয় ওই সংস্থার অফিস। ছ' বছর বয়সে আনজোরভ ফ্রান্সে আসেন। তাঁকে সে দেশে আশ্রয় দেওয়া হয় এবং ২০৩০ অবধি সেখানে বসবাস করার অনুমতি পান তিনি। খবরে প্রকাশ তিনি সিরিয়ার ইসলামি যোদ্ধাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলেন।

টুইট-করা ছবিটির সঙ্গে পুনিয়া ক্যাপশনে বলেন, "মাঝখানে যিনি দাঁড়িয়ে, তিনি হলেন সেই শিক্ষক যাঁর মাথা কেটে ফেলা হয় কিছুদিন আগে। কয়েক বছর আগে, তাঁকে ফ্রান্সে শরণার্থীদের অভ্যর্থনা জানাতে দেখা যায়। তিনি কি জানতেন যে তারাই তাঁর শিরশ্ করবে। এই বার্তাটি হল সেই সব ভারতীয় লিবারেলদের জন্য, যাঁরা রোহিঙ্গাদের এখানে বসবাস করতে দিতে চান।"

(হিন্দিতে লেখা আসল ক্যাপশন: फ़ोटो में जो बीच में खड़ा है वो वही टीचर है जिसका एक जिहादी ने पेरिस में सर काट दिया था...कुछ साल पहले वो फ़्रांस में आने वाले Refugees का स्वागत कर रहा था पर उसे क्या पता था कि वो refugee उसी का गला काट देंगे....ये उन लिबरांडुओं के लिये है जो भारत में रोहिंग्या को बसाना चाहते हैं)

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

একই বয়ান সমেত ছবিটি ফেসবুকেও ভাইরাল হয়েছে। সেরকম একটি পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরও পড়ুন: শিবরাজ সিংহের বিরুদ্ধে বেরনো প্রতীকী শবযাত্রা উপনির্বাচনের আগে ভাইরাল

তথ্য যাচাই

বুম নিশ্চিত হয় যে, ছবিটি সাম্প্রতিক। কারণ, ছবিতে যে তিনজনকে দেখা যাচ্ছে, তাঁরা সকলেই মুখে মাস্ক পরে আছেন। ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে আমরা দেখি যে, ব্রিটেনের 'গুড চান্স' ছবিটি টুইট করেছিল। গুড চান্স ব্রিটেনের একটি গোষ্ঠী যারা রিফিউজিদের সঙ্গে কাজ করে। ছবিটির ক্যাপশনে বলা হয়, 'রিফিউজিদের স্বাগত জানাতে' দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডের শহর ফোকস্টোন-এ গুড চান্স-এর একটি দল উপস্থিত হয়েছিল।

টুইটটির সঙ্গে কেন্ট রিফিউজি অ্যাকশন নেটওয়ার্ক-এর (কেআরএএন) হ্যান্ডেল @_KARN_ ট্যাগ করা হয়।

কেআরএএস হল এমন একটি সংস্থা যেটি যুক্ত রাজ্যের কেন্ট শহরে অল্পবয়সী শরণার্থীদের সাহায্য করে। তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে, তাঁরা বলেন ছবিটি তাঁদের একটি সাম্প্রতিক অনুষ্ঠানের। ওই সংস্থার প্রজেক্ট কোঅর্ডিনেটার ব্রিজেট চ্যাপম্যান ইমেল করে জানান, "ফোকস্টোনে নেপিয়ার ব্যারাক্সের বাইরে ১৭ অক্টোবর ২০২০ তে ছবিটি তোলা হয়। আশ্রয়প্রার্থীদের অভ্যর্থনা জানাতে আমরা একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলাম। সেখানেই তোলা হয় ছবিটি। চ্যাপম্যান আরও বলেন যে, স্যামুয়েল প্যাটি বলে যাঁর ভুল পরিচয় দেওয়া হয়েছে, সেই ব্যক্তি তাঁর পরিচিত। কিন্তু তাঁর পরিচয় জানাতে চাননি চ্যাপম্যান।

'দ্য গার্ডিয়ান'-এ প্রকাশিত স্যামুয়েল প্যাটির ছবি নীচে দেওয়া হল।


Updated On: 2020-10-26T21:05:35+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি ফ্রান্সের শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি শরনার্থীদের স্বাগত জানাচ্ছে
Claimed By :  Major Surendra Poonia
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story