চিকেন পক্সের পুরনো ছবি তারকেশ্বরে মরফিন ভাইরাসের প্রকোপ বলে শেয়ার হল

বুম যাচাই করে দেখেছে ২০১৫ সাল থেকে চিকেন পক্স আক্রান্ত এই রুগির ছবিটি অনলাইনে রয়েছে।

সোশাল মিডিয়ায় চিকেন পক্স আক্রান্ত রুগীর ছবি শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে হুগলী জেলার তারকেশ্বরে মুরগির মাংস খেয়ে মরফিন ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এলাকার মানুষজন। সেই সঙ্গে ভুয়ো দাবি করা হয়েছে অসুস্থদের বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। পোস্টটির শেষ লাইনে ''পশ্চিমবঙ্গ সরকার দ্বারা জন স্বার্থে প্রচারিত'' উল্লেখ করে লেখা হয়েছে, ''এই খবরের সত্যতা কিন্তু আমি যাচাই না করেই, কেবলমাত্র শিহরিত হয়ে, সবার সামনে বিষয়টি তুলে ধরেছি।''

পোস্টটির ধরণ দেখে ভুয়ো বোঝা গেলেও আনেকেই এই ছবি সহ পোস্টটিকে শেয়ার করে চলেছেন।

পোস্টটিতে লেখা হয়েছে, ''May be informative....take care ..and have precise advice from experts...as its collected information..with closed friends only. হুগলীর তারকেশ্বর এ মরফিন ভাইরাস পোঁছে গেছে ৷ এখন পর্যন্ত অনেক মানুষকে বর্ধমানের মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে ৷ Dr.রজ্ঞন ডি সিলভা বলেছেন এই রোগ হুগলীর তারকেশ্বর এলো পোলট্রি মুরগির মাংস এর মাধ্যমে ৷ তিনি এও বলেছেন যদি এটা এইভাবেই চলতে থাকে তবে অতিশিঘ্রই লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষ মারা যাবে এক সপ্তাহের মধ্যে৷ তাই সবাইকে জানানো যাচ্ছে যে আপনারা কেউ মুরগির মাংস বর্তমানে এক মাস পর্যন্ত খাবেন না এবং বাচ্চাদেরকে এর থেকে দূরে রাখবেন ৷ প্রচুর পরিমাণে মুরগি কে বেশি করে ইজ্ঞেকশেন করার জন্য এই রোগটি বেশি ছড়াচ্ছে , এই রোগটি বিশেষ করে কিডনিকে নষ্ট করে দিচ্ছে । দুর্গাপুর এর Dr.অসীম সামন্ত নিজেও এই রোগের শিকার হয়েছেন ৷ এই রোগের কোনো ওষুধ বার হয়নি তাই এই রোগকে সারানো বর্তমানে অসম্ভব৷ Dr.রজ্ঞন ডি সিলভা বলেছেন এই রোগে কিডনি ব্যপক ভাবে খতিগ্রস্ত হচ্ছে যার ফলে মানুষটি মারা যাচ্ছে৷ দয়াকরে খবরটি অন্য সবাইকে জানান। PLEASE FORWARD THIS MSG। পশ্চিমবঙ্গ সরকার দ্বারা জন স্বার্থে প্রচারিত (এই খবরের সত্যতা কিন্তু আমি যাচাই না করেই, কেবলমাত্র শিহরিত হয়ে, সবার সামনে বিষয়টি তুলে ধরেছি )''

এই ধরণের পোস্টগুলি আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে। ছবিটি স্পর্শকাতর হওয়ায় বুম ছবিটিকে অস্বচ্ছ করেছে।


তথ্য যাচাই

মরফিন ভাইরাস নিয়ে গুজব পশ্চিমবঙ্গে নতুন নয়। ২০১৮ সাল থেকে বারে বারে কখনও ভিডিও কখনো ছবির সাথে এই ভুয়ো খবর জিইয়ে ওঠে। ওই বছর ৪ জন ব্যক্তিকে ভুয়ো খবর ছড়ানোর জন্য রাজ্য পুলিশের গোয়ান্দা দপ্তর গ্রেফতার করেছিল।

কখনো বনগাঁর মাছ, কখনো বিষ্ণুপুরের মাছ আর তা খেয়ে মরফিন ভাইরাসের কবলে পড়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছে এলাকার মানুষ এই ধরনের খবর বুম আগেই খণ্ডন করেছে।

আরও পড়ুন: মাছে মরফিন ভাইরাস? আবার ফিরলো পুরনো গুজব

আর এবারের নতুন সংযোজন হুগলী জেলার তারকেশ্বর অঞ্চলে পোলট্রি মুরগি খেয়ে অসুস্থ হয়ে যাওয়া। বুম মরফিন নামে কোনও ''ভুয়ো ভাইরাস''-এর অস্তিত্ব খুঁজে পায়নি। ফলে বর্ধমান হাসপাতালে আক্রান্তদের ভর্তি হওয়ার খবরটিও ভুয়ো।

ভাইরাল হওয়া ছবিটি নেওয়া হয়েছে ২০১৫ সালে প্রকাশিত মিররের একটি প্রতিবেদন থেকে। সেখানে ছবিটিকে চিকেন পক্স আক্রান্ত ব্যক্তির ছবি বলা হয়েছে। বস্তুত চিকেন পক্সও ভাইরাস ঘটিত রোগ। বসন্তকালে সচরাচর এই রোগের প্রকোপ দেখা যায়। চিকেন পক্স আক্রান্ত ব্যক্তির ছবিটি দেখা যাবে এখানে


চিনে মারণ করোনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেওয়ায় সোশাল মিডিয়ায় নানা ধরণের ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে। অসুস্থ ব্রয়লার মুরগির অপ্রাসঙ্গিক ছবি ও ভিডিও শেয়ার করে মিথ্যে দাবি করা হচ্ছে। সেগুলি করোনা আক্রান্ত। কেন্দ্রীয় পোলট্রি নিয়ামক সংস্থার তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, গুজবে কান না দিতে।

Updated On: 2020-02-17T18:30:58+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি তারকেশ্বরে মরফিন ভাইরাসে আক্রান্ত এলাকার মানুষ
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story