কপিল মিশ্রের সমর্থককে মিথ্যে করে দিল্লির হিংসার বন্দুকধারী বলা হল

বুম দেখে ছবিতে কপিল মিশ্রের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তিটি মৌজপুরের বাসিন্দা রহিত রাজপুত।

সোশাল মিডিয়ায় এক পুলিশের মুখের দিকে রিভলভার তাক করা এবং দিল্লির দাঙ্গায় পরপর গুলি চালানোর ছবিটিতে যাকে দেখা যাচ্ছে, সেই মহম্মদ শাহরুখকে ভুল ভাবে দিল্লির বিজেপি রাজনীতিক কপিল শর্মার পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তি বলা হচ্ছে। বুম চিহ্নিত করেছে কপিল শর্মার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তি তাঁর সমর্থক মৌজপুরের বাসিন্দা রোহিত রাজপুত।

২৪ ফেব্রুয়ারি তোলা একটি ভিডিওর স্ক্রিনশটে মহম্মদ শাহরুখকে পিস্তল উঁচিয়ে এক পুলিশকে হুমকি দিতে দেখানো হয়েছে। তার সঙ্গেই ভাইরাল হয়েছে অন্য একটি স্ক্রিনশট, যাতে একই রকম দেখতে এক ব্যক্তিকে কপিল শর্মার পাশেও দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে।

উত্তর-পূর্ব দিল্লির একাংশ হিংসায় জ্বলছে, যেখানে পুলিশ ১৪৪ ধারা জারি করেছে। ২৩ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া এই হিংসাত্মক ঘটনাস্রোতে এ পর্যন্ত অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে, যার মধ্যে রতনলাল নমে দিল্লি পুলিশের এক কনস্টেবলও রয়েছেন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরও বাহিনী মোতায়েন করার জন্য দিল্লি পুলিশ সরকারের কাছে আবেদনও জানিয়েছে।

বুম তার হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন নম্বরে (৭৭০০৯০৬১১১) একটি বার্তাও পেয়েছে, তাতে ভাইরাল হওয়া পোস্টটির সত্যতা যাচাই করার অনুরোধ এসেছে।


টুইটার মারফত একই ধরনের একটি বার্তা বুম-এর কাছে পৌঁছেছে।

আরও পড়ুন: দিল্লি হিংসা: ডিসিপি অমিত শর্মার মৃত্যুর ভুয়ো খবর ভাইরাল

তথ্য যাচাই

দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে তাঁর বক্তৃতা মারফত ভোটারদের সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ ঘটানোর অপচেষ্টার জন্য কুখ্যাত বিজেপি নেতা কপিল শর্মা ২৩ ফেব্রুয়ারি পুলিশকে এক চূড়ান্ত সময়সীমা ধার্য করে ঘোষণা করেন, তিন দিনের মধ্যে নাগরিকত্ব আইন-বিরোধী জমায়েত জাফরাবাদ ও চাঁদবাগ এলাকা থেকে তুলে দিতে হবে।

আম আদমি পার্টির প্রাক্তন সদস্য, অধুনা বিজেপি নেতা, কপিল মিশ্র তাঁর সেই হুঁশিয়ারির ভিডিও নিজেই টুইট করেন। বর্তমানে সেই ভিডিওটি টুইটারের নীতি লঙ্ঘন করায় তুলে নিয়েছে।

আর্কাইভ টুইটটি দেখা যাবে এখানে

এই ভিডিওটিতে মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত রোহিতকে কপিলের পিছনেই ডানদিকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। আমরা এ ব্যাপারে কপিল মিশ্রের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এই লোকটি তাঁরই দলের সমর্থক রোহিত রাজপুত, যে উত্তর-পূর্ব দিল্লির সীলমপুর এলাকার মৌজপুরের বাসিন্দা।

"মৌজপুর চকে দাঁড়িয়েই আমি বক্তৃতাটা দিয়েছিলাম এবং রোহিত সেখানে আমার সঙ্গে উপস্থিতও ছিল। যে বন্দুকবাজকে গ্রেফতার করা হয়েছে, সে রোহিত নয়। ওর চেহারাও আলাদা এবং ওর নাম শাহরুখ।"

আমরা ফেসবুকেও রোহিতকে খুঁজে বের করি এবং সেখানে দেওয়া তার ছবির সঙ্গে স্ক্রিনশটের ছবির মিল খুঁজে পাই। আমরা ওর একটা পোস্টও খুঁজে পাই, যেখানে সে পিস্তলধারীকে শনাক্ত করতে বলছে।

২৪ ফেব্রুয়ারি দিল্লি পুলিশ মহম্মদ শাহরুখকে ওই পিস্তলধারী শনাক্ত করে গ্রেফতার করে।


ফেসবুকের প্রোফাইলে প্রকাশিত রোহিতের মুখের গড়ন, দাড়ি ও ভুরুর ধাঁচ স্ক্রিনশটের সঙ্গে একই রকম। কিন্তু রোহিতের সঙ্গে অভিযুক্ত পিস্তলধারী শাহরুখের ছবির তুলনা করে আমরা দেখি, দুজনের শারীরিক কাঠামোয় মিল নেই।


শাহরুখের মুখের গড়ন আরও কৌণিক, রাজপুতের মতো নয়। তা ছাড়া, দুজনের চুলের ছাঁদও আলাদা—শাহরুখের চুল ঢেউ খেলানো, আর রোহিতের চুল সোজা।

Updated On: 2020-02-26T11:09:32+05:30
Claim Review :  বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রের সঙ্গে মহম্মদ শাহরুখ এক ছবিতে
Claimed By :  Social Media users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story