সম্পর্কহীন ছবিকে বলা হল ভারত-চিন সীমান্ত সংঘর্ষে নিহত চিনা সেনাদের ছবি

বুম দেখে ছবিগুলি কোরীয় যুদ্ধে নিহত চিনা সৈন্যদের দেহাবশেষ ফিরিয়ে দেওয়ার দক্ষিণ কোরীয়ার অনুষ্ঠানের ছবি।

চিনা সেনারা ১৯৫০-৫৩ সালে কোরীয় যুদ্ধে নিহত সহযোদ্ধা চিনা সৈন্যদের দেহাবশেষ কফিন-বন্দি করে নিয়ে যাওয়ার এক গুচ্ছ ছবি আবার জিইয়ে তুলে ১৫-১৬ জুন পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সংঘটিত ভারত-চিন সংঘর্ষের সঙ্গে তাকে জুড়ে দেওয়া হচ্ছে।

কোরীয় যুদ্ধে নিহত চিনা জনস্বেচ্ছাসেবী বাহিনীর (সিপিভি) সৈন্যদের দেহাবশেষ সমাধিস্থ করার অনুষ্ঠানের ছবি শেয়ার করে প্রমাণ করার চেষ্টা হচ্ছে, কত চিনা সৈন্য গালওয়ান উপত্যকার সংঘর্ষে নিহত হয়েছিল।
ভারতীয় ফৌজের তরফে জানানো হয়েছে যে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উত্তেজনা বৃদ্ধির ফলে ভারত ও চিনের সৈন্যদের সংঘর্ষে বিহার রেজিমেন্টের এক কমান্ডার সহ মোট ২০ জন ভারতীয় সেনার মৃত্যু ঘটে। চিন অবশ্য তাদের পক্ষের সৈন্যদের হতাহতের কোনও কথা সরকারিভাবে স্বীকার করেনি, আর তার ফলেই সোশাল মিডিয়ায় এ নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছে।
জল্পনাকারী পোস্টে চিনা গণমুক্তি ফৌজের (পিএলএ) নিহত ৫৬ জন সৈন্যের একটি তালিকার স্ক্রিনশটও দেওয়া হয়েছে, যেটি আগেই ভুয়ো বলে প্রমাণিত হয়েছে। বুম এর আগেও তালিকাটির তথ্য-যাচাই করে দেখেছে, এটি চিনা ফৌজের ৫৬ জন সেনানায়কের তালিকা। তালিকাটি তৈরি করা হয়েছে উইকিপিডিয়ায় প্রকাশিত চিনের প্রাক্তন সেনানায়কদের ছবি ও পরিচিতি টুকে।
পোস্টটির আর্কাইভ করা আছে এখানে
ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিগুলির মধ্যে একটি আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন নম্বরেও পাঠানো হয়েছে সত্যতা যাচাইয়ের জন্য:

একই ছবিগুলো ছত্তিশগড় বৈভব নামের একটি সংবাদ-পোর্টালের হিন্দি প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে ৫৬ জন নিহত চিনা জেনারেলের নাম দিয়ে।



তথ্য যাচাই
তিনটি ছবিরই খোঁজখবর নিয়ে বুম দেখেছে, এগুলি কোরীয় যুদ্ধে নিহত চিনা সেনাদের দেহাবশেষ হস্তান্তরের দৃশ্য, যে পর্বটি বেশ কিছু কাল ধরেই চলছে।

১ এবং ৩ নম্বর ছবি:
সৈন্যদের কফিন কাঁধে করে বয়ে নিয়ে যাওয়ার ছবিটি ২০১৯ সালের এপ্রিলের, যখন চিন কোরীয় যুদ্ধে নিহত সেনাদের সমাধিস্থ করার আয়োজন করে। অনুষ্ঠানটি উত্তরপূর্ব চিনের লিয়াওনিং প্রদেশের শেনইয়াং অঞ্চলে আয়োজিত হয় ৪ এপ্রিল, ২০১৯l সরকারি শিনহুয়া(বা জিনহুয়া) সংবাদসংস্থার ওয়েবসাইট অনুযায়ী, কোরীয় যুদ্ধে নিহত ১০ জন চিনা সৈন্যের দেহাবশেষ ওই শবাধারগুলিতে বহন করা হচ্ছিল। কোরীয় প্রজাতন্ত্র এই নিহত সেনাদের দেহাবশেষগুলি চিনকে ফেরত দেয়। মূল ছবিগুলি দেখতে হলে
এখানে
এবং এখানে ক্লিক করুন।
২ নং ছবি
কতগুলি শবাধারকে সৈন্যদের পাহারা দেওয়ার এই ছবিটি ২০১৬ সালের মার্চ মাসের একটি ছবির কাটছাঁট করা অংশ, যাতে দক্ষিণ কোরিয়ায় নিযুক্ত চিনা রাষ্ট্রদূত কিউ গিও হঙ-কে ১৯৫০-৫৩ সালের কোরীয় যুদ্ধে নিহত চিনা জনস্বেচ্ছাসেবী বাহিনীর (সিপিভি) সৈন্যদের দেহাবশেষের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দেখা যাচ্ছে। নীচের ছবিতেও সেই দৃশ্যটাই ধরা রয়েছে:

দক্ষিণ কোরিয়ার ইঞ্চন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দেহাবশেষ হস্তান্তরের অনুষ্ঠানে ছবিটি তোলা হয়। কোরীয় যুদ্ধে হারিয়ে যাওয়া বাকি ৩৬ জন চিনা সৈন্যের দেহাবশেষ ২০১৬ সালের মার্চ মাসে কোরিয়া চিনের হাতে তুলে দেয়।
২০১৯ সালের হস্তান্তর অনুষ্ঠানটি ছিল নিহত চিনা সৈন্যদের দেহাবশেষ ফিরিয়ে দেওয়ার ৬ষ্ঠ কিস্তি। তার আগে দক্ষিণ কোরিয়া ৫৮৯ জন নিহত চিনা সৈন্যের দেহাবশেষ চিনকে ফিরিয়ে দিয়েছে: ২০১৪ সালে ৪৩৭ জন, ২০১৫ সালে ৬৮ জন, ২০১৬ সালে ৩৬ জন, ২০১৭ সালে ২৮ জন এবং ২০১৮ সালে ২০ জনের দেহাবশেষ চিনকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।
গ্লোবাল টাইমস-এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী সাধারণত এপ্রিল মাসের শুরুর দিকে মৃতদের স্মরণ করার চিনা জাতীয় ছুটির দিনেই এই হস্তান্তর পর্ব সারা হয়ে থাকে।

Claim Review :   ছবি দেখায় গালওয়ান ভ্যালিতে সংঘর্ষে নিহত চিনা সেনাদের কফিন
Claimed By :  Social Media Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story