টাটারস্তানের ভিডিও ফ্রান্সে মুসলিম মহিলার ওপর আক্রমণ বলে চালানো হচ্ছে

বুম দেখে ভিডিওটি রিপাবলিক অফ টাটারস্তানের। সেখানে এক ব্যক্তি একটি পার্কে এক মহিলাকে নিগ্রহ করে।

রিপাবলিক অফ টাটারস্তানে এক মুসলমান মহিলাকে একটি লোক পার্কের মধ্যে মারধোর করার অস্বস্তিকর ভিডিও ফ্রান্সের বলে দাবি করা হচ্ছে। ফ্রান্সে ইসলামি চরমপন্থীদের হিংসাত্মক কার্যকলাপের পরিপ্রেক্ষিতে ভিডিওটি শেয়ার করা হচ্ছে।

ভিডিওটিতে একটি সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে। তাতে একটি লোককে এক বোরকা-পরা মহিলার দিকে এগিয়ে যেতে দেখা যাচ্ছে। কয়েক মুহূর্ত পরেই লোকটি ওই মহিলাকে লাথি মারতে শুরু করে। আর মহিলার বাচ্চারা পাশে দাঁড়িয়ে নিরুপায় হয়ে সেই দৃশ্য দেখতে থাকে। ভিডিওটি এই বলে শেয়ার করা হচ্ছে যে, 'ফ্রান্স থেকে খবর আসতে শুরু করেছে'।

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ভিডিওটি অস্বস্তিকর দেখবেন কিনা, পাঠকরা তা ভেবে দেখুন

একই ক্যাপশন সমেত ভিডিওটি ফেসবুক ও টুইটারেও ভাইরাল হয়েছে। ফ্রান্সের নিস শহরের একটি গির্জায় আক্রমণে তিনজন নিহত হওয়ার ঘটনার পর এই ভিডিও শেয়ার করা হচ্ছে।

তিউনিশিয়ার এক অধিবাসী নিস-এ আক্রমণটি চালায়। তাতে এক বসয়স্ক ব্যক্তির শিরশ্ছেদ করা হয়। বাকি দুজনকে হত্যা করা হয় অন্য ভাবে। ফরাসি শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটির শিরশ্ছেদ করার কয়েক দিনের মধ্যে নিস-এ আক্রমণটি ঘটে। স্কুলে বাকস্বাধীনতার ওপর ক্লাস নেওয়ার সময় প্যাটি নবী মহম্মদের একটি ব্যঙ্গচিত্র দেখান ছাত্রদের। সেই জন্য চেচেন বংশোদ্ভূত আবদুল্লাহ আনজরভ প্যাটির মাথা কেটে দেয়। ব্যঙ্গচিত্রটি শার্লি এবদোর আঁকা সেটের একটি। সেগুলির জন্য ২০১৫-য় শার্লি এবদো-র ওপর বড় ধরনের হামলা হয়।

আরও পড়ুন: প্যারিস শিরচ্ছেদ: ইয়েমেনের পুরনো ভিডিও মিথ্যে দাবি সহ ভাইরাল

তথ্য যাচাই

ভিডিওর ফ্রেমগুলি দিয়ে বুম রিভার্স ইমেজ সার্চ করে। তার ফলে, জুলাই ২০২০ তে রুশ ভাষায় প্রকাশিত কিছু লেখা আমাদের নজরে আসে। সেই লেখায় ওই একই ফুটেজের ছবি ব্যবহার করা হয়।

রুশ প্রতিবেদনটি বলে, রিপাবলিক অফ টাটারস্তান-এর নিজহনেকামস্ক শহরে ঘটনাটি ঘটে। সেখানে একটি পার্কে এক মুসলমান মহিলাকে তাঁর বাচ্চাদের সামনেই নৃশংসভাবে আক্রমণ করা হয়। মুসলমান-প্রধান টাটারস্তান রাশিয়ান রিপাবলিকেরই অঙ্গ। পড়ুন এখানে


রুশ সংবাদপত্র কমসোমলস্কায়া প্রাভদা-র ফেসবুক পেজেও ফুটেজটি আপলোড করা হয়।

অভিযুক্ত ব্যক্তিটির বয়স ৩৪। তাকে গ্রেফতার করা হয়। বলা হচ্ছে, এর আগে, এক গর্ভবতী মহিলা সহ সে আরও পাঁচ মহিলাকে আক্রমণ করেছিল। একটি রুশ সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, গ্রেফতার হওয়ার পর লোকটি পুলিশকে বলে যে, সে মহিলাদের আক্রমণ করে কারণ সে "তাদের ঘৃণা করে।" খবরে আরও বলা হয় যে, তার মানসিক পরীক্ষা করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

আরও পড়ুন: ফ্রান্সে মুসলিমদের আক্রমণ বলে ভাইরাল ২০১২'র তুরস্কের ভিডিও

Updated On: 2020-11-01T19:07:29+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় ফ্রান্সে মুসলিম মহিলার উপর আক্রমণ করা হচ্ছে
Claimed By :  Facebook Posts And Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story