অসমের ঘটনা বলে বিভ্রান্তি সহ ফের ছড়াল গুজরাতের চিতা-গাভীর বিরল সখ্যতা

বুম দেখে যে একটি চিতা এবং গাভীর পাশাপাশি বসে থাকার বিস্ময়কর দৃশ্যটি গুজরাতের একটি গ্রামের ২০০২ সালের ঘটনা।

Claim

গুজরাতে এক চিতাবাঘের সঙ্গে গাভীর সখ্যতার বিরল ঘটনা ভুয়ো দাবি সহ অসমের ঘটনা বলে সোশাল মিডিয়ায় প্রচার করা হচ্ছে। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া পোস্টটিতে এক চিতাবাঘের সঙ্গে এক গাভীর ছবির কোলাজ ছড়িয়ে ওই ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে। ক্যাপশনটির সারমর্ম হল, “অসমে এক গরু প্রতিপালক নতুন গরু কেনার পর রাতে কুকুরের ডাক শুনতে পান। পরে সিসিটিভি লাগিয়ে জানতে পারেন ওই গরুর কাছে প্রতি রাতে আসে একটি চিতাবাঘ। প্রাক্তন গরু মালিকের কাছে জানতে পারেন ব্যাঘ্রশাবকটি জন্মানোর ২০ দিন বয়সে মারা যায় বাঘিনী। গরুর দুধ খেয়েই বেড়ে ওঠে ওই বাঘের বাচ্চা। পরে তাদের টান অটুট থাকে।”

Fact

বুম দেখে ৬ এপ্রিল ২০১৪ 'অনফরেস্ট ডট কম' নামের একটি পোর্টালে ঘটনাটি ছবি ও স্কেচ সহ প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটির শিরোনাম ছিল, "কল্পকাহিনীর থেকেও বিস্ময়কর: একটি চিতা এবং মাতৃতুল্য গরু" (ইংরেজি: Stranger than Fiction-A Leopard and motherly Cow)। ওই প্রতিবেদনে লেখা হয় গাভী এবং কমবয়সী বন্য চিতার মধ্যে অবিশ্বাস্য এই সম্পর্কের ঘটনাটি ২০০২ সালে গুজরাতের ভদোদরা জেলার আনতলি গ্রামে ঘটেছিল। এই প্রতিবেদনে আরও বলা হয় যে, কতকগুলি চিতাবাঘ এসে গ্রামের আখ খেতে প্রবেশ করলে পরে বন বিভাগের কর্মীরা এসে চিতাগুলিকে ধরে আবার পাশের জঙ্গলে ছেড়ে দেয়। কিন্তু, একটি চিতা শাবক রয়ে যায় এবং এই চিতাটিই পরবর্তীতে প্রয়শই গ্রামে অনুপ্রবেশ করতে থাকে। বিষয়টি নিয়ে ২০০২ সালের ২৫ অক্টোবর টাইমস অফ ইন্ডিয়াতে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। কমবয়সী চিতাটি পাশের ভুট্টা খেত থেকে মাঝরাতে গ্রামে ঢুকে সেই নির্দিষ্ট গরুটির পাশে গিয়ে বসে গা ঘেঁষাঘেঁষি করত বলে প্রতিবেদনে লেখা হয়। বুম একই দাবি সহ ভুয়ো খবর ২০২০ সালের জুলাই মাসে খণ্ডন করে।

To Read Full Story, click here
Updated On: 2021-10-10T17:59:02+05:30
Claim Review :   অসমে গরু ও চিতা বাঘের বিরল বন্ধুত্বতা
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story