ভাইরাল 'জেহাদ শুরু হয়ে গেছে' ফেসবুক পোস্টগুলি সম্পূর্ণ মিথ্যা

ইউজার পোস্টে দাবি করে যে কংগ্রেসের পাঁচটি রাজ্যে জয়ের পর জেহাদ শুরু হয়ে গেছে।

গত সপ্তাহে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর, ফেসবুক ইউজার দুলাল মণ্ডলের পোস্টটি ভাইরাল হয়। পোস্ট শেয়ার করা হয় ডিসেম্বর ১৩ এবং ইতিমধ্যেই ৪০০০এরও বেশি ভিউ হয়েছে পেজে। ভিডিও এবং ফটোগ্রাফের একটি সমগ্রের সাথে, ইউজার পোস্টে দাবি করে যে কংগ্রেসের পাঁচটি রাজ্যে জয়ের পর জেহাদ শুরু হয়ে গেছে। পোস্টের ক্যাপশান - পালা বদলের পরেই ইসলামের জেহাদ শুরু। ভারতে থাকতে হলে আল্লা হু আকবর বোলতেই হবে। পোস্টটি এক ঝলক এখানে দেখে নিন যে সব ভিডিও এবং ছবি পোস্টে শেয়ার করা হয়েছে সেগুলি যে সম্পূর্ণ রূপে মিথ্যা তা BOOM পূর্বেই প্রমাণ করেছে। একটি বাদে, বাকি চারটে ভিডিও এবং ছবি উপজুক্ত তথ্য সমেত মিথ্যা বলে প্রমাণ করতে BOOM সক্ষম হয়েছে। ভিডিও ১: দাবিকংগ্রেসের বিজয় মিছিলে পাকিস্তানের পতাকা ওড়ানো হয়েছে। ফ্যাক্ট - পতাকাগুলি মিল্লাদ-অ-নবী ধর্মীয় উৎসবের সময় মুসলিম দ্বারা ব্যবহৃত হয়। রাজস্থানের ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেস (কংগ্রেস) পার্টির বিজয় সমাবেশে পাকিস্তানের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছিল – এমন একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়। কিন্তু রাজস্থানের পুলিশের মতে ভিডিওটি সম্পূর্ণ ভাবে মিথ্যা। ভিডিওটি ভাইরাল হয় রাজস্থান, ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ, মিজোরাম ও তেলঙ্গানার রাজ্য নির্বাচনের ফলাফলের পর, যেটি ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ এ ঘোষণা করা হয়। বুমের দ্বারা একটি ফ্যাক্ট চেক প্রমাণ করে যে পতাকাটি আসলে পাকিস্তানের নয়। এমনকি রাজস্থান পুলিশ তাদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডলে ঘোষণা করে যে ভিডিওটি মিথ্যা এবং এর নির্বাচনের সঙ্গে কোন লিঙ্ক নেই। বিস্তারিত ফ্যাক্ট চেকটি এখানে দেখুন।



ভিডিও ২ : দাবিকংগ্রেসের জয়ের পর, যোধপুরে একটি দাঙ্গা হয়। দ্বিতীয় বিবরণী দাবি করে যে রাবণ রাজ্য এসে গেছে এবং হিন্দুদের জন্য সবচেয়ে খারাপ দিন খুব শীঘ্রই আসছে। ফ্যাক্ট - AltNews দ্বারা একটি সত্য যাচাইয়ের পর প্রমাণিত হয়েছে যে ভিডিওটি আসলে গুজরাতের। গুজরাতি পত্রিকা চিত্রলেখা একটি টুইট করে, "পুরনো বিদ্বেষ / প্রতিদ্বন্দ্বিতার কারণে মোর্বির কালিকা প্লটে গত রাতে একটি গ্রুপ সংঘর্ষ হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ১৩ বছর বয়সী একটি ছেলে নিহত হয়, চারজন আহত হন।' রিপোর্টটি এখানে দেখে নিন।" ফটোগ্রাফ এবং ভিডিও দাবি - কংগ্রেসের জয়ের পর রাজস্থানে পাকিস্তানের পতাকা ও নৃশংসতা! ফ্যাক্ট – পতাকাগুলি আসলে ইন্ডিয়ান মুসলিম লীগের। এবং উত্তর প্রদেশের দুই বছর পুরানো ভিডিও থেকে স্ক্রিনগ্র্যাবকে ছবি বলে ব্যাবহার করা হয়েছে। ছবিগুলি রাজস্থানের নয়। বুমের ফ্যাক্ট চেক এখানে দেখে নিন। ইউটিউব ভিডিওটি ৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে জুনাইদ জুবায়ের পোস্ট করেছেন। এটি ছিল সমবাল বাবরি মসজিদ মিছিলের অংশ। ভিডিওতে দেখা পতাকাগুলি ভারতীয় ইউনিয়ন মুসলিম লীগের।

Updated On: 2020-09-14T15:04:45+05:30
Claim Review :  
Claimed By :  Unknown
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story