আলিগড়ে টিকা অপচয় কাণ্ড বলে জি হিন্দুস্তান দেখাল ইকুয়েডরের ভিডিও

টিকা অপচয় করার জন্য উত্তরপ্রদেশে স্বাস্থ্যকর্মী গ্রেফতার বলে ইকুয়েডর ও মেক্সিকোর দুটি ভিডিও ভাইরাল হল।

ইকুয়েডরে (Equador) টিকা অপচয় সংক্রান্ত একটি ঘটনার ভিডিও সম্প্রচার করে জি হিন্দুস্তান (Zee Hindustan) দাবি করল, ঘটনাটি আলিগড়ে এক স্বাস্থ্যকর্মী ঘটিয়েছেন; কোভিড-এর টিকা (Vaccine) ভরা সিরিঞ্জ ডাস্টবিনে ফেলার অভিযোগে নেহা খান (Neha Khan) নামক এক স্বাস্থ্যকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নেহা খানের টিকা অপচয়ের ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা শেয়ার করা হয়েছে মেক্সিকোর একটি ভিডিওর সঙ্গেও। ভিডিও দুটি যখন অন্য ভুয়ো দাবিসমেত ভাইরাল হয়েছিল, বুম তখনই দুটি ভিডিওরই তথ্য যাচাই করেছে। বিস্তারিত পড়তে পারেন এখানেএখানে

আলিগড়ের জামালপুর প্রাইমারি হেলথ সেন্টারের অক্সুলিয়ারি নার্স মিডওয়াইফ (এএনএম) বা সহায়িকা নার্স নেহা খানকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, প্রাপককে না দিয়ে তিনি ২৯টি টিকা ভর্তি সিরিঞ্জ ডাস্টবিনে ফেলে দেন। সংবাদসংস্থা এএনআই-এর ৩১ মে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে যে, পুলিশ নেহা খান ও এই প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মেডিক্যাল অফিসার-ইন-চার্জ আফরিন জেহরার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে।

জি হিন্দুস্তান ৩০ মে তারিখে এই ঘটনাটি প্রসঙ্গে একটি সংবাদ প্রতিবেদন সম্প্রচার করে। তাতে যে ভিডিওটি ব্যবহৃত হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে এক জন স্বাস্থ্যকর্মী এক ব্যক্তির হাতে টিকা পুশ না করেই সিরিঞ্জ বার করে নিচ্ছেন। জি হিন্দুস্তানের ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক পেজ ও টুইটার হ্যান্ডেলে এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়। সঙ্গে হিন্দিতে ক্যাপশনে লেখা হয়: কট্টরপন্থীদের কাছে সরাসরি প্রশ্ন... বড় ঘটনা সামনে এল। দেশে টিকা জিহাদ করছে কারা?

(হিন্দিতে: कट्ट़रपंथियों से सीधे सवाल करने वाला बहुत बड़ा खुलासा | देश में कौन कर रहा है Vaccine वाला जिहाद ?)

আর্কাইভ দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই এই ভুয়ো দাবিসমেত ভিডিওটি শেয়ার করেন। তাঁদের মধ্যে অনেকেই ভেরিফায়েড প্রোফাইলের অধিকারী।

রাজস্থানে বিজেপির ভূতপূ্র্ব মুখপাত্র লক্ষ্মীকান্ত ভরদ্বাজ ভিডিওটি টুইট করেন। সঙ্গে যে হিন্দি ক্যাপশনটি ছিল, তাতে তিনি লেখেন: " উত্তরপ্রদেশে নার্স নিহা খানের কাণ্ড দেখুন। ইঞ্জেকশনের সুঁচ ফোটাচ্ছে, আর ওষুধ পুশ না করেই সিরিঞ্জটি ডাস্টবিনে ফেলে দিচ্ছে। রাজ্যে যোদী-রাজ আছে, তাই এই নার্স গ্রেফতার হয়েছে, তার চাকরিও গিয়েছে। কিন্তু এই কাজ করার উদ্দেশ্য কী?"

আর্কাইভ দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

উত্তরপ্রদেশে বিজেপির মুখপাত্র মনীশ শুক্লাও এই একই ভিডিও একই রকম ক্যাপশনের সঙ্গে শেয়ার করেন।

আর্কাইভ দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

দক্ষিণপন্থী ওয়েবসাইট অপইন্ডিয়া নেহা খান বিষয় তাদের প্রতিবেদনে এই ভিডিওটির স্ক্রিনশট ব্যবহার করে, এবং এমন একটি টুইট ব্যবহার করে, যাতে এই ভিডিওটি ছিল।

প্রতিবেদনটির আর্কাইভ দেখতে এখানে, এবং টুইটটির আর্কাইভ দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

এখন অবশ্য ওয়েবসাইটটি এই প্রতিবেদন প্রত্যাহার করে নিয়েছে, এবং তার জন্য ক্ষমাপ্রার্থনাও করেছে।

জি হিন্দুস্তানের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল-এ ১২ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড দীর্ঘ যে ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে, তাতে যে স্বাস্থ্যকর্মীকে দেখা যাচ্ছে, দাবি করা হয়েছে যে তিনিই নেহা খান।

আরও পড়ুন: ইতালির শিল্পীর ভাস্কর্য ছড়াল ইয়াসের পর বিহারে বিরল প্রাণী মিলল বলে

তথ্য যাচাই

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে বুম দুটি ভিডিওই খুঁজে বার করে, এবং দেখতে পায় যে, একটি ভিডিও ইকুয়েডরের, অন্যটি মেক্সিকোর। আমরা আগেই এই দুটি ভিডিওর তথ্য যাচাই করেছি।

জি হিন্দুস্তানের প্রচারিত ভিডিও ইয়ানডেক্সে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে বুম সিএনএন এস্পানল-এ ২৬ এপ্রিল ২০২১ তারিখে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের সন্ধান পায়। প্রতিবেদনটিতে এই ভিডিওটি রয়েছে, এবং উল্লেখ করা রয়েছে যে, ভিডিওটি ইকুয়েডরের।

এই ভিডিওটির সূত্র ধরে আমরা একটি কিওয়ার্ড সার্চ করে, এবং ২৬ এপ্রিল ২০২১ তারিখে প্রকাশিত সিএনএন এস্পানল-এর আর একটি প্রতিবেদনের সন্ধান পাই, যাতে পুরো ঘটনাটির বর্ণনা রয়েছে।

@gabriela_ma94 নামে এক টুইটার হ্যান্ডল থেকেও এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়, যাতে স্প্যানিশ ভাষায় লেখা ক্যাপশনে সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যকর্মীর অপরাধের কথা বলা হয়েছিল। ক্যাপশনে লেখা হয়: নাগরিকের স্বাস্থ্য নিয়ে ওরা কেমন ছেলেখেলা করছে, দেখলে ভয়ানক বিরক্ত লাগে। এতই অসভ্যতা চলছে যে, প্রাপকের হাতে সুঁচ ফোটানো হচ্ছে, কিন্তু টিকা পুশ করা হচ্ছে না। সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হল, টিকা নিলে যে অসুবিধাগুলেো হওয়ার কথা, এই ক্ষেত্রে সেটাও হচ্ছে না। ভয়াবহ অবস্থা।

(স্প্যানিশ: Que asco ver como juegan con la salud de los ciudadanos. Tanta pendejada para que al final solo lo pinchen y no lo vacunen. Lo peor es que lo previene del malestar que puede provocar inyectarla. MISERABLES)

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ক্যামিলো স্যালিনাসও টুইট করে জানান যে, সংশ্লিষ্ট নার্সকে চিহ্নিত করা গিয়েছে, এবং তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত আরম্ভ হয়েছে। স্প্যানিশ ভাষায় করা স্যালিনাসের এই টুইটটিতে লেখা হয়েছে, "অভিনন্দন। আমরা এই নার্স ও রোগীকে চিহ্নিত করতে পেরেছি। তদন্ত শুরু হয়েছে। কিছু দিনের মধ্যেই বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে।"

বিভিন্ন প্রতিবেদনে ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট-এর মন্ত্রিসভার সেক্রেটারি জেনারেল জর্জ ওয়াটেড-এর একটি বিবৃতি প্রকাশিত হয়, যাতে তিনি বলেছেন যে, ভিডিওটিতে যে ব্যক্তিকে টিকা নিতে দেখা যাচ্ছে, তিনি টিকাপ্রাপকদের নির্দিষ্ট বয়ঃসীমার অন্তর্ভুক্ত নন। সে দেশে ৬৫ বছরের ঊর্ধ্বে নাগরিকদের টিকাকরণ হচ্ছে। এই ব্যক্তির বয়স ৫৫ বছর। তিনি কারচুপি করে টিকাগ্রহণের লাইনে ঢুকে পড়েন। সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যকর্মী তাঁকে প্রথমে টিকা না দিলেও পরে দেন।

সেক্রেটারি জেনারেল পরে জানান যে, সংশ্লিষ্ট রোগী ও নার্স, দুজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

দ্বিতীয় ভিডিও

বুম আগেও এই ভিডিওটির তথ্যযাচাই করে এবং দেখে যে, ঘটনাটি মেক্সিকোর। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে এক স্বাস্থ্যকর্মী রোগীর হাতে সিরিঞ্জ ফোটাচ্ছেন, কিন্তু টিকা না দিয়েই সিরিঞ্জটি বার করে নিচ্ছেন।

ভিডিওটিকে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে আমরা কলম্বিয়ার সংবাদ সংস্থা এল টিয়েম্পো-র একটি প্রতিবেদনের সন্ধান পাই। তাতে লেখা হয়েছিল: "মেক্সিকোর সংবাদপত্র এল ইউনিভার্সাল ব্যাখ্যা করেছে যে, এই ঘটনাটি ঘটেছে ন্যাশনাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট (আইপিএন)-এর জাকাটেঙ্কো ইউনিটের ন্যাশনাল স্কুল অফ বায়োলজিক্যাল সায়েন্সেস-এ, এবং ইনস্টিটিউট ডেল সেগুরো সোশ্যাল এই ভুলের কথা স্বীকার করে নিয়েছে এবং তার জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা করেছে।"

আমরা এল ইউনিভার্স-এর ইউটিউব চ্যানেলে এই একই ঘটনার উপর একটি প্রতিবেদনের সন্ধান পাই। তা আপলোড করা হয়েছিল ২০২১ সালের ৪ এপ্রিল। প্রতিবেদনটির শিরোনাম: "যে নার্স জিএএম-এ এক প্রবীণ নাগরিককে টিকা দেওয়ার ছল করে টিকা দেননি, আইএমএসএস তাকে কাজ থেকে সরিয়ে দিল।"

আরও পড়ুন: ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল কী করোনা টিকা নেওয়ার ভান করছেন?

Updated On: 2021-06-02T17:21:37+05:30
Claim Review :   এএনএম নেহা খান লোককে টিকা না দিয়ে ভর্তি সিরিঞ্জ নষ্ট করছেন
Claimed By :  Zee Hindustan Live
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story