ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল কী করোনা টিকা নেওয়ার ভান করছেন?

রায়পুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক বুমকে নিশ্চিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী বাঘেল টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন, অন্য ছবি শুধু পোজ দিতে।

ছত্তীসগঢ়ের(Chhattisgarh) মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল-এর (Bhupesh Baghel) কোভিড-১৯ টিকার (Vaccine) দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে পোজ দেওয়ার ছবি সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে যে, বাঘেল আসলে টিকার দ্বিতীয় ডোজটি নেননি, ক্যামেরার সামনে পোজ দিয়েছেন মাত্র।

ভাইরাল হওয়া ছবিতে একজন নার্সকে বাঘেলকে ইঞ্জেকশন দিতে দেখা যাচ্ছে, কিন্তু সিরিঞ্জের সূচের ক্যাপ খোলা হয়নি। এ থেকেই ছবিটি ঘিরে বিভ্রান্তি ছড়ায়।

ভারতীয় জনতা পার্টির দিল্লির মুখপাত্র নীতু দাবস এই ছবিটি শেয়ার করেন এবং সঙ্গে ক্যাপশন দেন, "ছত্তীসগঢ়ের কংগ্রেস সরকার এক নতুন পদ্ধতি আবিষ্কার করেছে, যা দিয়ে সূচের ঢাকনা না খুলেই মুখ্যমন্ত্রীর শরীরে ইঞ্জেকশন দেওয়া যায়। এই দারুণ আইডিয়াটি বোধ হয় রাহুল গাঁধী মুখ্যমন্ত্রীকে দিয়েছেন।"

ছবিটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে। টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

(হিন্দিতে মূল ক্যাপশন: छत्तीसगढ़ की कांग्रेस सरकार ने नई तकनीक इजात की है जिसमें सिरिंज से "निडिल केप" निकाले बिना सीधे मुख्यमंत्री को वैक्सीन लगाई जा सकती है!! यह अद्भुत आईडिया जरूर राहुल गांधी ने मुख्यमंत्री को दिया होगा।)

ফেসবুকে ভাইরাল

একই ক্যাপশন দিয়ে ফেসবুকে সার্চ করে আমরা দেখতে পাই যে, ভাইরাল ছবিটি একই বিভ্রান্তিকর দাবির সঙ্গে ফেসবুকেও শেয়ার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: না, লুক মন্ট্যানিয়ের বলেননি কোভিড টিকা নিলে দু'বছরের মধ্যে মারা যাবেন

তথ্য যাচাই

বুম যাচাই দেখে যে ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল কোভিড-১৯'এর টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন এবং তার পর সাংবাদিকের জন্য পোজ দিচ্ছিলেন, যেমনটা ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা গেছে, এবং তাতেই নার্সের হাতে যে সিরিঞ্জটি দেখা যাচ্ছে তার নিডল ক্যাপ পরানো থাকতে দেখা গেছে।

পত্রিকার প্রতিবেদন অনুসারে ২৭ মে ২০২১ রায়পুরের পণ্ডিত জওহরলাল নেহরু মেমোরিয়াল মেডিক্যাল কলেজে স্টাফ নার্স কবিতা নিরালা বাঘেলকে কোভিড-১৯'এর টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেন। এই অনুষ্ঠানে আরও অনেকের সঙ্গে সিনিয়র সুপারিন্টেনডেন্ট অব পুলিশ অজয় যাদব, রায়পুর মেডিকেল কলেজের ডিন ডাক্তার বিষ্ণু দত্ত এবং রায়পুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাক্তার মীরা বাঘেল মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন।

আমরা রায়পুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক (সিএমএইচও) ডঃ মীরা বাঘেলের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান যে, মুখ্যমন্ত্রী বাঘেলকে যখন টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়, তাখন তিনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। সিএমএইচও বাঘেল জানান যে, ভাইরাল হওয়া ছবিটি ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ছবি তোলার জন্য পোজ দেওয়া হয়। ওখানে উপস্থিত সাংবাদিকরা আর একটি ছবি চান বলে মুখ্যমন্ত্রী বাঘেলকে ক্যামেরার সামনে পোজ দিতে অনুরোধ করেন।

ডঃ বাঘেল বুমকে জানান, "তিনি (মুখ্যমন্ত্রী বাঘেল) ততক্ষণে দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে নিয়েছিলেন, কিন্তু ওখানে উপস্থিত কয়েকজন চিত্র সাংবাদিক সেই ছবি তুলতে পারেননি। তাই তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীকে আর এক বার পোজ দিতে অনুরোধ করেন। তাই তিনি আর এক বার পোজ দেন এবং নার্স আর একটি সিরিঞ্জ নিয়ে দাঁড়ান, যার ক্যাপ আটকানো ছিল, যেমনটা ভাইরাল ছবিতে দেখা গেছে।"

আমরা আরও দেখতে পাই যে, ছত্তীসগঢ়ের কংগ্রেস নেতা ইদ্রিস গাঁধী একটি ক্লিপ টুইট করেন যাতে বাঘেলকে দ্বিতীয় ডোজ নিতে দেখা যাচ্ছে এবং সেখানে পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে যে, এক জন নার্স তাঁর হাতে সিরিঞ্জ থেকে ইঞ্জেকশন দিচ্ছেন।

এই একই ছবি মুখ্যমন্ত্রী বাঘেল ফেসবুকে দেন এবং জানান যে, তিনি দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন।

বুম এর আগে আরও একটি ভিডিওর তথ্য যাচাই করেছে, যেখানে কর্নাটকের দুজন স্বাস্থ্য আধিকারিককে কোভিড-১৯ টিকা নেয়ার অভিনয় করছেন। ছবি তোলার জন্যই ওই দুই আধিকারিক টিকা নেওয়ার অভিনয় করেছিলেন। পরে ওই ভিডিও শেয়ার করে মিথ্যে দাবি করা হয় যে, ওই আধিকারিকরা টিকা নেওয়ার ভুয়ো দাবি করেছেন।

আরও পড়ুন: মানেকা গাঁধী নয়, বিজেপিকে তুলোধনার এই ভিডিওটি এক কংগ্রেস নেত্রীর

Updated On: 2021-05-31T18:01:33+05:30
Claim Review :   ছত্তীসগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল কোভিড-১৯ টিকার পোজ দিচ্ছেন
Claimed By :  Neetu Dabas
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story