ইন্দোনেশিয়ায় বাড়ি নদীতে তলিয়ে যাওয়ার পুরনো ভিডিও অসমে বন্যা বলে ছড়াল

বুম দেখে ভাইরাল ভিডিওটি ২০২১ সালের ডিসেম্বরে ইন্দোনেশিয়ার দক্ষিণ সুলায়েশির সোপেং রিজেন্সির লালবাতা জেলার ওম্পো গ্রামের।

ইন্দোনেশিয়ায় (Indonesia) সোপেং রিজিন্সিতে (Soppeng Regency) বন্যায় (floods) ঘর-বাড়ি নদীতে তলিয়ে যাওয়ার পুরনো ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে সেটি অসমে (Assam floods) ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি।

এনডিটিভিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের পরিসংখ্যান উদ্ধৃত করে বলা হয়, বর্তমানে অসমে ৯৫৭ টি গ্রাম জলমগ্ন। ৪৭,১৩৯.১২ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। কাছার, দিমা, হাসাও, হাইলাকান্দি, হোজাই, পশ্চিম কার্বি আঙলং, মরিগাঁ ও নওগাঁ প্রভৃতি জেলার ৫,৬১,১০০ জন ব্যক্তির প্লাবনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

৪ মিনিট ২৩ সেকেন্ডের ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যায় ভয়াবহ প্লাবনের জলস্রোতের তোড়ে ভেঙে যাওয়া ঘর-বাড়ি নদীতে তলিয়ে যেতে যেতে বিপজ্জনকভাবে ব্রিজে ধাক্কা মারে। ভিডিওটির প্রথম থেকে ২৯ সেকেন্ড পর্যন্ত এই দৃশ্য দেখা যায়। ভিডিওটিতে লেখা রয়েছে, "সিলেটের ওপারে আসামে বন্যায় ভেসে যাচ্ছে সব"।

ভিডিওটি শেয়ার করে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, "আসামের পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ"। (ক্যাপশনের বানান অপরিবর্তিত)

ফেসবুকে পোস্ট করা এরকম দুটি ভিডিও দেখুন এখানে ও এখানে।



আরও পড়ুন: বিটকয়েন লগ্নি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের ভেক ধরা, দাবি মুকেশ অম্বানীর বিনিয়োগ সংস্থার

তথ্য যাচাই

বুম ভাইরাল ভিডিওটির মূল ফ্রেম কিওয়ার্ড সার্চ করে 'চ্যাভে ওয়েদার' নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ১ মিনিট ২৮ সেকেন্ড দীর্ঘ ভিডিওটি ৬ ডিসেম্বর ২০২১ আপলোড হতে দেখে।

ওই ভিডিওর বর্ণনা অনুযায়ী ভিডিওটি ইন্দোনেশিয়ার দক্ষিণ সুলায়েশির সোপেং রিজেন্সিতে ৬ ডিসেম্বর ২০২১ ভিডিওটি তোলা হয়।

একই ভিডিও প্রকাশিত হয় ইন্দোনেশিয়ার গণমাধ্যম ট্রিবিউন নিউজের ইউটিউব চ্যানেলে। ৭ ডিসেম্বর ২০২১ আপলোড হওয়া ওই রিপোর্টের শিরোনামের বাংলা অনুবাদ, "সোপেংয়ে দুটি বাড়ি বন্যায় ভেঙে যাওয়ার ভিডিও, ধাক্কায় সেতু ভাঙার অবস্থা"

(মূল ইন্দোনেশীয় ভাষায় শিরোনাম: Video 2 Rumah Warga di Soppeng Hanyut Terbawa Banjir, Tabrak Jembatan Hingga Hancur)

ট্রিবিউননিউজ বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেদনও প্রকাশ করে ওই দিন। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী স্থানীয়রা ওই ভিডিও তোলে। পরে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। লালবাতা জেলার ওম্পো গ্রামে ওই ঘটনাটি ঘটে। প্রতিবেদটিতে প্রশাসনিক আধিকারিককে উদ্ধৃত করে জানানো হয়, ওই ঘরে বসবাসকারীরা আগেই অন্যত্র সরে যাওয়ায় ওই ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

কম্পাস টিভির অন্য আরেকটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, পেডানগেন, লায়ো, বেলো প্রভৃতি নদীতে জলস্তর ছাপিয়ে জনবসতি এলাকায় ঢুকে যায়। একই প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে কম্পাস ডট কম সহ অন্যান্য ইন্দোনেশীয় গণমাধ্যমে


আজতক ও ওড়িশা টিভি ইন্দোনেশিয়ায় সেতু ভাঙার দৃশ্যকে অসমে বন্যার ঘটনা বলে খবরে দেখায়। পড়ুন এব্যাপারে বুমের তথ্য-যাচাই

আরও পড়ুন: ইয়াসিন মালিকের যাবজ্জীবন সাজায় তাঁর স্ত্রীর প্রতিক্রিয়া ছড়াল পুরনো ভিডিও

Claim :   ভিডিওর দাবি অসমে বন্যায় বাড়ি ভেঙে নদীতে তলিয়ে যাওয়ার পরিস্থিতি
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.