বিটকয়েন লগ্নি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের ভেক ধরা, দাবি মুকেশ অম্বানীর বিনিয়োগ সংস্থার

বুমকে রিলায়েন্স-এর এক মুখপাত্র জানান—পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন এবং সাক্ষাৎকার উভয়ই ভুয়ো।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের (Indian Express) প্রতীক ব্যবহার করা একটি ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়েছে, মুকেশ অম্বানী (Mukesh Ambani) ক্রিপ্টোকারেন্সিতে (cryptocurrency) (অর্থাৎ বিটকয়েন-এ) বিনিয়োগ করে নিজের সম্পদ কোটি-কোটি টাকা বাড়িয়েছেন। সংশ্লিষ্ট দাবিটি ভুয়ো রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের (Reliance industries) মুখপাত্রও সে কথাই জানিয়েছেন বুমকে।

আম্বানি রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এবং ম্যানেজির ডিরেক্টর এবং তিনি বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের অন্যতম।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের নাম ভাঁড়িয়ে তৈরি এই ভুয়ো ওয়েবসাইটে আরও অনেক শিল্পপতি সম্পর্কে বিটকয়েন কেনাবেচায় যুক্ত থাকার খবর প্রচার করা হয়েছে। উইপ্রো সংস্থার চেয়ারম্যান আজিম প্রেমজির নামেও এই ভাবে বিটকয়েনে বিনিয়োগ করে প্রভূদ সম্পদ হাসিল করা নিয়ে ইতিপূর্বে প্রচারিত একটি ভুয়ো খবরের পর্দাফাঁস করেছে বুম।

আরও পড়ুন: নৈনিতালের ইসলামকরণ হচ্ছে মিথ্যে দাবিতে ছড়াল বাংলাদেশের পুরনো ছবি

সাড়া-জাগানো এই প্রতিবেদনটিতে দাবি করা হয়েছে, মুকেশ অম্বানী 'বিটকয়েন লুপহোল' নামে একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি প্রকল্পে বিনিয়োগ করে প্রভূত বিত্ত অর্জন করেছেন এবং 'কৃত্রিম মেধা'র (artificial intelligence) সাহায্যে চলা এই প্রকল্পটিতে বিনিয়োগ করে জনসাধারণকে টাকা উপায়ের আহ্বান জানিয়েছেন। তা ছাড়াও দাবি করা হয়েছে, অম্বানী নাকি নিজের মোবাইল ফোন বের করে তাঁর ব্যাংকের আমানত ও লাভের খতিয়ান সর্বসমক্ষে পেশ করেছেন। পরে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সঙ্গে এক সাক্ষাত্কারে নাকি আম্বানি দাবি করেছেন যে, তিনি এই প্রকল্পে বিনিয়োগ করে লক্ষ-লক্ষ টাকা রোজগার করছেন, যে-কারণে বড়-বড় ব্যাংক ও অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠানগুলি তাঁকে হুমকিও দিয়ে চলেছে। কেন তিনি আম জনতাকে এই রোজগারের পথ বাতলে দিচ্ছেন, হুমকি তাই নিয়ে। মজার ব্যাপার হল, মুকেশ অম্বানীকে ফোনে এ ধরনের হুমকি দেওয়ার মতো সাহস ও স্পর্ধা কোনও ব্যাংক-কর্মীর আছে কি?

প্রতিবেদনটির একটি স্ক্রিনশট নীচে দেওয়া হলো।


তা ছাড়া, বুম ফেসবুক-এ 'মেটা'র বিজ্ঞাপন লাইব্রেরিতে এ বিষয়ে বেশ কিছু লিংক বা যোগসূত্রের হদিশ পেয়েছে, যেগুলি এখানে এবং এখানে দেখা যেতে পারে।

এই প্রতিবেদনটি যে ভুয়ো বা জাল, সেটা আপনি কীভাবে বুঝবেন?

প্রথমত, রিলায়েন্স সংস্থা সরকারিভাবেই এই প্রতিবেদন ও তার অন্তর্গত সাক্ষাত্কারটিকে ভুয়ো বা অসত্য বলে চিহ্নিত করেছেl

১. ইউআরএল এবং লোগো

ওয়েবসাইটে যে ইউআরএল ও লোগো ব্যবহার করা হয়েছে, সেগুলি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এর নয়। ইন্ডিয়ানএক্সপ্রেসডটকম ছাড়া অন্য কোনও ইউআরএল-এ ওই পত্রিকার প্রতিবেদন দেখা যায় না। অথচ এই প্রতিবেদনটির ইউআরএল হলো 247offers.net.

লোগো বা প্রতীকটিতে এমনকী ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস কথাটির বানান পর্যন্ত ভুল, এক্সপ্রেস শব্দটির ইংরাজি বানানে শেষে দুটি 's'-এর বদলে একটি মাত্র 's' বসানো হয়েছে। নীচে সেটি দেখে নিন।


২. ভুয়ো মন্তব্য

ওয়েবসাইটটিতে পৃষ্ঠার শেয দিকে ফেসবুক-এর মন্তব্য বিভাগের আদলে কিছু মন্তব্যও লিপিবদ্ধ রয়েছে।

পৃষ্ঠাটিকে যত বারই রিফ্রেশ করা হোক, সেই অংশটি আগের মতোই থেকে যায়।


৩. ছবির ভুল ব্যবহার

প্রাক্তন মুখ্য অর্থনীতিবিদ এবং আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডারের পয়লা নম্বর ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর গীতা গোপীনাথের একটি ছবি ব্যবহার করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে যে, বেঙ্গালুরুর জনৈক 'ভাগ্য দেওল' বিটকয়েনে বিনিয়োগ করে ১৬ লক্ষ টাকা মুনাফা করেছেন।


৪. ভুল তথ্য

আম্বানির দেওয়া সাক্ষাত্কারটি যেমন ভুয়ো, তেমনই ভুয়ো ওয়েবসাইটের এই দাবি যে, বিটকয়েন এখন তার সর্বোচ্চ মানের নীচে ২০ হাজার ডলারে বর্তমানে কেনাবেচা করা যাচ্ছে।

এই দাবিটি ভুয়ো, কেননা বিটকয়েন তার সর্বোচ্চ লেনদেনের মানে পৌঁছেছিল ২০২১ সালের নভেম্বরে, যখন তার দর ছিল ৬৮ হাজার ৯৯০ ডলার। এ সংক্রান্ত তথ্য পাবেন কয়েনডেস্ক-এর পরিসংখ্যান থেকে।

আরও পড়ুন: জো বাইডেন উপেক্ষা করেন নরেন্দ্র মোদীকে? ভিডিওটি ছাঁটাই করা

Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.