২০১৮ সালে টাঙ্গাইলে মাদ্রাসা শিক্ষকের লাশ উদ্ধার জুড়ল বাংলাদেশ হিংসায়

বুম দেখে বাংলাদেশের টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় ২০১৮ সালে জুন মাসে মাদ্রাসা শিক্ষকের লাশ উদ্ধারের ঘটনাটি ঘটে।

২০১৮ সালে টাঙ্গাইলের (Tangail) কালিহাতীতে হাত-পা বাঁধা এক মাদ্রাসা (Madrassa) শিক্ষকের মৃতদেহ উদ্ধারের ছবি বাংলাদেশের (Bangladesh) সাম্প্রদায়িক হিংসার প্রেক্ষিতে ভুয়ো দাবি সহ জিইয়ে তোলা হয়েছে।

বাংলাদেশের কুমিল্লার দুর্গা পুজো মন্ডপে ধর্ম গ্রন্থ অবমাননার অভিযোগে সাম্প্রদায়িক হিংসার ঘটনা ঘটে। বাংলাদেশ পুলিশ সূত্র উদ্ধৃত করে বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন অনুযায়ী ৪৫০ জন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার ও শনিবার নোয়াখালি ও ঢাকায় হিংসা ছড়িয়ে পড়ে। ৭ জন ব্যক্তি এই সাম্প্রদায়িক হিংসায় প্রাণ হারিয়েছেন।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিতে হাত-পা বাঁধা এক ব্যক্তির মৃতদেহ দেখা যায়। ওই ব্যক্তির শরীরে ইঁট-ভর্তি বস্তা বাঁধা ছিল। ছবিটি ফেসবুকে শেয়ার করে ক্যাপশন লেখা হয়, "ইন্নালিল্লাহি.....টাঙ্গাইলের কালিহাতিতে মাদরাসা শিক্ষক আনিসুর রহমানকে হত্যা করে, ইট বেধে পুকুরে নিক্ষেপ করে। পরে লোকজন গোসল করতে নামলে তাদের পায়ে লাগলে তুলে দেখে হুজুরের লাশ। আলেম উলামাদের উপর হামলা মামলা খুন গুম গ্রেফতার দিন দিন বেড়েই চলেছে- আল্লাহ তুমি হেফাজত কর।"


পোস্টটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে মূর্তি ভাঙায় গ্রেফতার ব্যক্তির ছবি ছড়াল কুমিল্লা হিংসা বলে

তথ্য যাচাই

বুম মাদ্রাসা শিক্ষকের মৃতদেহ উদ্ধারের বিষয়টি জানতে কীওয়ার্ড সার্চ করে একই তথ্য ও ছবিসমেত ২০১৮ সালের জুন মাসে পোস্ট করা একাধিক ফেসবুক পোস্ট খুঁজে পায়।

ওই ফেসবুক পোস্টগুলিতে একই ছবি শেয়ার করে ক্যাপশন লেখা হয়, "টাংগাইলে নিখোঁজ মাদ্রাসা শিক্ষকের হাত পা বাধা লাস উদ্ধার। টাংগাইল কালিহাতী উপজেলায় ।নিখোঁজ হওয়ার এক দিন পর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাড়ে ছয় টার সময় নিজ বাড়ির পুকুরের তাঁর লাশ হাত পা বাধা অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ব্যক্তির নাম আনিসুর রহমান (45) তিনি কালিহাতী ইউনিয়নের দেউপুর এলাকার বাসিন্দা ও গুহালিয়া বাড়ি ফাজিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক ছিলেন।"

ফেসবুক পোস্টগুলি দেখুন এখানে, এখানেএখানে

২০১৮ সালের ফেসবুক পোস্ট

ফেসবুক পোস্টের সূত্র ধরে আমরা কিওয়ার্ড সার্চ করে এই ঘটনা সম্পর্কে একাধিক সংবাদ প্রতিবেদন খুঁজে পাই।

২০১৮ সালের ২৯ জুন প্রকাশিত আমার সংবাদের এক প্রতিবেদনে একই মৃতদেহের ছবি সহ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ওই প্রতিবেদনে লেখা হয়, মাদ্রাসা শিক্ষক আনিসুর রহমানের (৫৫) নিজের বাড়ির সামনের পুকুর থেকে লাশ উদ্ধারের ঘটনাটি।


২০১৮ সালের ২৮ জুন প্রকাশিত প্রথম আলোর এক প্রতিবেদন অনুযায়ী টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় নিখোঁজের এক দিন পর মাদ্রাসা শিক্ষকের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ৪৫ বছর বয়সী আনিসুর রহমান নামের ওই ব্যক্তি কালিহাতীর সল্লা ইউনিয়নের দেউপুর এলাকার বাসিন্দা ও গোহালিয়া বাড়ি ফাজিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক ছিলেন।

একই তারিখে প্রকাশিত যুগান্তরের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নিহতের বড় ভাই লিয়াকত আলী জানান, ২৭ জুন রাত ৮ টার দিকে বাড়ি থেকে আনিসুর বের হন। তারপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। পরের দিন কালিহাতী থানায় আনিসুরের নিখোঁজের ঘটনা নিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়।

ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, কালিহাতী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনসুর আলী আরিফ জানান ২৮ জুন বিকেলে স্থানীয় যুবকরা বল খেলা শেষে সল্লা ইউনিয়নের দেউপুর এলাকার পুকুরে নামলে সেসময় তাদের পায়ের সাথে নিহতের লাশের ছোঁয়া লাগে। পরে তারা লাশটি পুকুরের তীরে নিয়ে আসে।

একই তথ্যের উল্লেখ করে ২০১৮ সালের ২৯ জুন প্রকাশিত আমার সংবাদের এক প্রতিবেদনে মৃতদেহটির আরেকটি ছবি প্রকাশিত হয়।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশে পুজোয় হিংসা: ধর্মীয় দাবিতে ছড়াল ২০১৫ সালের সম্পর্কহীন ছবি

Updated On: 2021-10-19T17:57:56+05:30
Claim Review :   ছবি দেখায় টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে এক মাদ্রাসা শিক্ষকের মাদ্রাসা শিক্ষক আনিসুর রহমানের লাশ উদ্ধার
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story