ভুয়ো দাবি সহ ছড়াল কলকাতা পুলিশের আত্মহননের ভিডিও

বুম দেখে ভিডিওটি ১০ জুনের। কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল চোদুপ লেপচা পার্ক সার্কাস অঞ্চলে গুলি চালিয়ে এক মহিলাকে হত্যা ও ২ জনকে জখম করার পর আত্মহনন করে।

মধ্য কলকাতার (Kolkata) পার্ক সার্কাস (Park Circus) এলাকায় বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের অফিসের কাছে গত শুক্রবার গুলি চালিয়ে এক মহিলাকে খুন ও দুই ব্যক্তিকে জখম করার পর এক পুলিশ কনস্টেবলের আত্মঘাতী (Suicide) হওয়ার মর্মান্তিক ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় এই ভুয়ো দাবি সহ ভাইরাল করা হচ্ছে যে, তাঁকে নাকি প্রতিবাদীরা গুলি করে (shot dead) মেরেছে।

বুম দেখে এই ভাইরাল ভিডিওটি কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল চোদুপ লেপচার (Chodup Lepcha), যিনি ১০ জুন তারিখে নিজের সার্ভিস রাইফেল থেকে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে এক মহিলাকে হত্যা ও দুই ব্যক্তিকে আহত করার পর আত্মঘাতী হয়।

খবরে প্রকাশ, পার্ক সার্কাসের ৭-মাথা মোড়ের কয়েকশো মিটারের মধ্যেই ঘটনাটি ঘটে, যখন ওই মোড়ে পয়গম্বর মহম্মদকে নিয়ে টিভি সাক্ষাৎকারে ভারতীয় জনতা পার্টির মুখপাত্র নুপূর শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিবাদে জমায়েত চলছিল।

২৫ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে রাস্তার মাঝখানেই উর্দি পরা এক কনস্টেবলকে নিথর পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। সেখান থেকে ক্যামেরা জমায়েতের দিকে ঘোরে, যেখানে পুলিশকেও প্রতিবাদী জনতার কাছাকাছি দেখা যায়।

ফেসবুকের একটি পোস্টে হিন্দিতে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে— "কলকাতায় একজন পুলিশকে দাঙ্গাকারীরা পিটিয়ে মেরে ফেলছে।"

অস্বস্তিকর হওয়ায় ভিডিওটিকে এই প্রতিবেদনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।


টুইটটি পরে ডিলিট করে দেওয়া হয়।

বুম হোয়াটঅ্যাপ হেল্পলাইন নম্বরে সত্যতা যাচাইয়ের অনুরোধ সহ ভিডিওটি পায়।


(মূল হিন্দিতে বার্তা: कोलकाता में दंगाईयों ने पुलिस वाले को मर डाला उसके बाद उसके साथी को भी धमकी दे रहे हे)

আরও পড়ুন: না, নূপুর শর্মাকে ৩৪টি দেশ সমর্থন করেনি

তথ্য যাচাই

বুম 'কলকাতায় পুলিশ খুন' এই শিরোনাম দিয়ে খোঁজ করে বেশ কয়েকটি সংবাদ-প্রতিবেদন পেয়েছে। তার মধ্যে ওয়ান ইন্ডিয়া নিউজ-এর ভিডিও প্রতিবেদনের শিরোনাম ছিল, ''কলকাতায় এক পুলিশ এক মহিলাকে খুন করার পর আত্মঘাতী হয়েছে।'' এই ভিডিওটি ১০ জুন ২০২২ ইউটিউবে আপলোড করা হয়।

একই দিনে ইউটিউবে এনডিটিভির আপলোড করা ভিডিওতেও অনুরূপ দৃশ্য দেখা যায় (১০-১৪ সেকেন্ড)।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, ১০ জুন, ২০২২, শুক্রবার দুপুর ২টো ৩০ মিনিটে প্রকাশ্য দিবালোকে কলকাতার ব্যস্ত পার্ক সার্কাস এলাকায় বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের অফিসের কাছে কর্তব্যরত এক কনস্টেবল তার সার্ভিস রাইফেল থেকে গুলি চালিয়ে এক মহিলাকে হত্যা এবং অন্য দুজনকে জখম করার পর নিজেকেও গুলিতে শেষ করে দেয়।

কলকাতা সশস্ত্র পুলিশের পঞ্চম ব্যাটেলিয়নের সদস্য লেপচা তার স্বয়ংক্রিয় সার্ভিস রাইফেল থেকে ১০-১৫ রাউন্ড গুলি চালালে একটি গুলি একটি চলন্ত মোটরসাইকেলের পিছনে বসা এক মহিলার গায়ে লাগে, তিনি সঙ্গে-সঙ্গে পড়ে যান এবং অত্যধিক রক্তক্ষরণে তাঁর মৃত্যুও হয়। অন্য দুজনকেও লেপচা গুলি করে এবং শেষে নিজেকে গুলি করে আত্মঘাতী হয়।

দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, লেপচা আদতে কালিম্পং-এর তাংকা গুম্বা গ্রামের বাসিন্দা। ২০১৮ সালে পিতার মৃত্যুর পর সে কলকাতা পুলিশে যোগ দিয়েছিলl কলকাতা পুলিশের কমিশনার বিনীত গোয়েল জানিয়েছেন, বিষয়টির পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা হবে।

যদি আপনি কিংবা আপনার পরিচিত কেউ মানসিক সমস্যায় ভোগেন এবং আত্মহত্যাপ্রবণ হন, তাহলে আপনাকে সাহায্য করার ব্যবস্থা আছে। আত্মহত্যা-প্রতিরোধের হেল্পলাইন নম্বর জানতে ক্লিক করুন এখানে (ভারতের জন্য) ও এখানে (বাংলাদেশের জন্য)।

আরও পড়ুন: না, এই ভিডিওটি নূপুর শর্মার মন্তব্যের বিরোধিতায় মিছিলের দৃশ্য নয়

Claim :   ভিডিওর দাবি দাঙ্গাকারীরা কলকাতায় এক পুলিশকে মেরে ফেলেছে
Claimed By :  Twitter User
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.