পাঞ্জাবে সাইনবোর্ডে কালি মাখানোর ছবি Farmers Protest এর সাথে জোড়া হল

বুম দেখে ভাইরাল হওয়া ছবিগুলি আসলে ওই রাজ্যে পাঞ্জাবি ভাষাকে প্রাধান্য দেওয়ার দাবিতে হওয়া অন্য এক প্রতিবাদের।

কয়েক জন শিখ ব্যক্তি হিন্দিতে (Hindi) লেখা সাইনবোর্ডে কালো রঙ করে দিচ্ছেন, এ রকম কিছু পুরনো ছবি ও এক ভিডিওর একটি সেট ভাইরাল হয়েছে। ওই ছবি ও ভিডিওতে মিথ্যে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে যে, এগুলি সম্প্রতি চলা কৃষক আন্দোলনের ছবি।

বুম দেখেছে ভাইরাল হওয়া ছবিগুলি ২০১৭ সালের, এবং ভিডিওটি গত বছর সেপ্টেম্বরে তোলা হয়েছিল। এগুলির কোনওটিই কৃষক আন্দোলনের (Farmers Protest) সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। রাজ্যের ওপর জোর করে হিন্দি ভাষা চাপিয়ে (Hindi Imposition) দেওয়ার চেষ্টার বিরুদ্ধে যে প্রতিবাদ হয়, ছবিগুলি তারই অংশ। ২০২০ সালের ২৬ নভেম্বর থেকে দিল্লির সীমান্তে (Delhi Border) কৃষকরা অবস্থান বিক্ষোভ করছেন। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই এই ছবিগুলি এবং ভিডিওটি ভাইরাল (Viral Video) হয়েছে। ২০২০ সালে ভারতের সংসদে পাশ হওয়া তিনটি কৃষি আইন (Farm Laws) সম্পূর্ণ বাতিল করার দাবিতে কৃষকরা এই বিক্ষোভ করছেন।
ভাইরাল হওয়া এই সেটটির সঙ্গে হিন্দিতে যে ক্যাপশন লেখা হয়েছে তার অনুবাদ, "রিলায়েন্স জিও-র টাওয়ার (Reliance Jio Towers) নষ্ট করার পর ওদের লক্ষ্য এখন হিন্দিকে শেষ করা। এরা কি কৃষক? এরা সমাধান চায় না, শুধু বাধা তৈরি করতে চায়। এরা অশান্তি চায়, শান্তি চায় না… এরা ধ্বংস চায়, উন্নয়ন চায় না… এরা স্বাচ্ছন্দ্য চায়, স্বাধীনতা নয়… এরা রাস্তা আটকাতে চায়, রাস্তা চায় না।#ভুয়োকৃষকবিদ্রোহ।"
হিন্দিতে লেখা মূল লেখা: रिलायंस जियो के टॉवर तोड़ने के बाद अब अगला काम हिंदी_नही_चलेगी... क्या ये किसान है ? ये समाधान नहीं व्यवधान चाहते हैं..ये शांति नहीं संघर्ष चाहते है...ये विकास नहीं, विनाश चाहते हैं, ये स्वतंत्रता नहीं, स्वछंदता चाहते हैं, ये सड़क नहीं, स्पीड ब्रेकर चाहते हैं। #फर्जी_किसान_आन्दोलन)
নীচে পোস্টটি দেখতে পাবেন আর আর্কাইভ দেখতে এখানে ক্লিক করুন।
একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে, এক জন শিখ সাইনবোর্ডে হিন্দিতে লেখা শব্দগুলি কালো রঙ করে দিচ্ছেন। এই ভিডিওটিও ভাইরাল হয়েছে। সঙ্গে যে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, তার অনুবাদ, "এটাই এদের আসল পরিচয়… কৃষক প্রতিবাদ শধু একটি ছদ্মবেশ, আসল বিষয় হল হিন্দুদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ।"
(হিন্দিতে লেখা মূল টেক্সট ये है इनका असली चेहरा...किसान आन्दोलन बहाना है हिन्दू और हिन्दू विरोध असली मकसद )
পোস্টটি নীচে দেখতে পাবেন এবং তার আর্কাইভ দেখতে পাবেন এখানে, এখানে এবং
এখানে

তথ্য যাচাই
বুম ভাইরাল হওয়া ছবির উপর রিভার্স ইমেজ সার্চ করে এবং ওই একই ছবির সেট সালের অনেকগুলি প্রতিবেদন ও সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট দেখতে পায়। ওই প্রতিবেদনগুলি এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে দেখতে পাবেন।
২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর হিন্দুস্তান টাইমসে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুসারে বিভিন্ন সাইনবোর্ডে পাঞ্জাবী ভাষাকে হিন্দি এবং ইংরেজির পর রাখার বিরুদ্ধে পাঞ্জাবের কিছু সংস্থা প্রতিবাদে সামিল হয়।
২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর
ইন্ডিয়া টিভির অন্য একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়, র্যাডিক্যাল শিখ গোষ্ঠী 'ভাটিন্ডা-ফরিদকোট জাতীয় সড়কের উপর সাইনবোর্ডে হিন্দি ও ইংরেজি শব্দ কালো করে দিতে শুরু করেছে।' তাদের দাবি পাঞ্জাবী ভাষাকে অন্য সব ভাষার উপর প্রাধান্য দিতে হবে।
ভাইরাল হওয়া ভিডিও
ভাইরাল ক্লিপের স্ক্রিনশটের উপর রিভার্স ইমেজ সার্চ করে আমরা ২০২০ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর সাথিয়ম নিউজ চ্যানেলের আপলোড করা একটি ইউটিউব ভিডিও দেখতে পাই।
ওই ভিডিওর সঙ্গে তামিল ভাষায় লেখা যে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, তার অনুবাদ, 'হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ এখন শুধু দক্ষিণে নয়, উত্তরেও দেখা যাচ্ছে।'
(তামিলে লেখা মূল ক্যাপশন: தெற்கில் மட்டுமல்ல.. வடக்கிலும் இந்தி திணிப்புக்கு எதிர்ப்பு")
এই ভিডিওতে উপস্থাপক বলছেন, "তামিলনাড়ু এবং কর্ণাটকের পর এ বার পাঞ্জাবে হিন্দি চাপানোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ শুরু হল।"

বুম অবশ্য ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি কোথায় তোলা হয়েছে, তা নিজে নিশ্চিত ভাবে জানাতে পারেনি।
Updated On: 2021-01-15T12:54:16+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় রিলায়েন্স জিওর টাওয়ার ভাঙ্গার পর হিন্দিতে লেখা সাইনবোর্ড মুছে দিচ্ছে
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story