আপ দলের গুজরাত শাখার প্রচারের বদল করা বিলবোর্ড সাম্প্রদায়িক রঙে ভাইরাল

বুম দেখে ভাইরাল হওয়া ছবিটি ফোটোশপ করা। আম আদমি পার্টির গুজরাত শাখার প্রচারের মূল বিলবোর্ডের লেখা পাল্টে ছড়ানো হচ্ছে।

"লোকেদের উচিত হিন্দু আচার-অনুষ্ঠান বর্জন করে কেবল নামাজ পড়া" আম আদমি পার্টির (AAP) গুজরাত শাখার (Gujarat) নামে চালানো বিলবোর্ডটি ভুয়ো। সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এই বিলবোর্ডের (Billboards) ছবিটি সাম্প্রদায়িক অভিসন্ধি নিয়ে ফোটোশপ (Photoshopped) করা হয়েছে।

বুম দেখে ছবিতে আপ-এর গুজরাত (Gujarat) শাখার সভাপতি গোপাল ইটালিয়ার মুখটি এমনভাবে ফোটোশপ করা হয়েছে, যাতে তাঁকে মুসলিম ব্যক্তির মতো দেখতে লাগে। হোর্ডিং-এর লেখাও বদলে দিয়ে করা হয়েছে: "গুজরাত এখন থেকে শুধু নামাজ পড়বে। ভুলে যাও ভাগবত সপ্তাহ আর সত্যনারায়ণ কথা।"

বুম আপ সভাপতি গোপালের সঙ্গে কথা বললে তিনিও বিলবোর্ডের ছবিটিকে ভুয়ো ও বানানো বলেই মত দেন এবং তাঁরা দলের তরফে ইতিমধ্যেই এর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের কথা ভাবছেন বলে জানান।

টুইটার ব্যবহারকারী রেণুকা জৈন টুইট করেছেন (যা এখন মুছে দেওয়া হয়েছে) "গুজরাতে আম আদমি পার্টির একটি প্রচার। তাতে লেখা রয়েছে— গুজরাত এখন থেকে নামাজ পড়বে। ভাগবত সপ্তাহ বা সত্যনারায়ণ কথার মতো ফালতু পুজোর আচার এবার ছাড়ো।"

ফোটোশপ করা ভাইরাল ছবিতে আপ-এর শীর্ষ নেতা ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং গুজরাতের আপ নেতা ইসুদান গাধভির ছবিও প্রদেশ সভাপতি গোপালের সঙ্গে লাগানো হয়েছে।

এই টুইটার ব্যবহারকারী রেণুকা জৈনের ভুয়ো তথ্য প্রচারের পর্দাফাঁস বুম আগেও করেছে।

সির্ফ নিউজ-এর প্রধান সম্পাদক সুরজিত দাশগুপ্তও একই ভুয়ো ছবি ও ক্যাপশন ব্যবহার করে টুইট করেছেন।

তথ্য যাচাই

বুম গুজরাতের বিভিন্ন স্থানে লাগানো ওই বিলবোর্ডের আসল রূপের সঙ্গে ভাইরাল হওয়া ফোটোশপ করা ছবির তুলনা করেছে। ২৫ জুন থেকেই আম আদমি পার্টির বিভিন্ন জেলা শাখার তরফে রাজ্য জুড়ে লাগানো এই হোর্ডিংগুলি দেখতে পাওয়া যায়। রাজ্যের বিভিন্ন জেলা যেমন মেহসানা, ভারুচ কিংবা ডাং জেলার তরফে দলীয় সরকারি টুইটার হ্যান্ডেলেও মূল হোর্ডিং-এ একই বয়ানে ছবি রয়েছে।




এই আসল বিলবোর্ডের সঙ্গে তার ভাইরাল করা ফোটোশপ ছবির তুলনা করে আমরা অনেক গরমিল দেখতে পেয়েছি।

আসল বিলবোর্ডে যেমন লেখা রয়েছে—"এবার বদলাবে গুজরাত" (હવે બદલાશે ગુજરાત)। তার জায়গায় ফোটোশপ করে লেখা হয়েছে— "এখন গুজরাট নামাজ পড়বে" (નમાજ પઢશે ગુજરાત)। "ভাগবত সপ্তাহ আর সত্যনারায়ণ কথা এবার থেকে ভুলে যান" (ભાગવત સપ્તાહ અને સત્યનારાયણની કથા જેવી ફાલતુ પ્રવૃત્તિ છોડો) কথাগুলিও ফোটোশপ করেই ভাইরাল ছবিতে ঢোকানো হয়েছে। নিচের ফাঁকা জায়গায় রাজ্যের আপ সভাপতি গোপাল ইটালিয়ার মুখে দাড়ি জুড়ে দিয়ে তাঁকে মুসলিমের পোশাক ও চেহারা দিয়ে বিকৃত করা হয়েছে। অথচ আসল বিলবোর্ডে দেখা যায় শার্ট পরিহিত গোপালের দাড়ি-গোঁফ কামানো।

গোপালকে বদলে যে ফোটোশপ করা দাড়িওয়ালা ব্যক্তির ছবি ভাইরাল করা হয়েছ, সেটি আসলে ইরাকের কুর্দ ইসলামিক নেতা মোল্লা ক্রেকার-এর ছবি। সাম্প্রদায়িক রঙ চড়ানো একটি ভুয়ো দাবিকে বিশ্বাসযোগ্য করতে গিয়ে গোপাল ইটালিয়ার ছবিতে মোল্লা ক্রেকারের ছবি বসানো হয়েছে।

গোপাল ইটালিয়া এবং মোল্লা ক্রেকারের ছবি জুড়ে কেমন ফোটোশপ করা হয়েছে নিচে দেখুন।

বুম এ ব্যাপারে ইটালিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান যে ছবি ও পোস্ট, দুটোই ভুয়ো এবং তাঁরা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ভেবেছেন। "যারা এই সব করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চাইছে, আমাদের দল তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণের দাবি জানাবে। অতীতেও এ ভাবে আমাদের ছবি ফোটোশপ করে বিকৃত করা হয়েছে এবং ভুয়ো দাবি সহ শেয়ার করা হয়েছে। আমার বক্তব্য হল, যদি এর পিছনে বিজেপির হাত না থাকে, তবে পুলিশ কেন স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এই ধরনের ভুয়ো ছবি ও পোস্টের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে না, যা রাজ্যের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতেই করা হচ্ছে!"

আপ-এর গুজরাত শাখাও ফোটোশপ করা বিকৃত হোর্ডিংটির স্ক্রিনশট প্রকাশ করে দলের আইনি সেল-এর তরফে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

Updated On: 2021-07-15T17:04:04+05:30
Claim :   ছবি দেখায় গুজরাতের বিলবোর্ডে লেখা গুজরাত নামজ পড়বে বর্জন করবে ভগবত গীতা পড়ার সপ্তাহ
Claimed By :  Facebook Posts, Renuka Jain
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.