না, কঙ্গনা রানাউতের পদ্মশ্রী বাতিলের পরামর্শ দেননি রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ

বুম দেখে রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের নামের ভাইরাল টুইটের ছবিটি একটি ভুয়ো টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেওয়া।

একটি টুইটের স্ক্রিনশটে দাবি করা হয়েছে যে, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ram Nath Kovind) অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের (Kangana Ranaut) পদ্মশ্রী (Padma Awards) বাতিল করা জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অনুমতি চেয়েছিলেন। কিন্তু স্ক্রিনশটটি একটি ভুয়ো টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেওয়া। রামনাথ কোবিন্দের নামে তৈরি এক প্রতারক টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেওয়া ভাইরাল স্ক্রিনশটটিতে বলা হয়েছে যে, কঙ্গনা রনাওয়াতকে পদ্মশ্রী দিয়ে উনি লজ্জিত বোধ করছেন ও সেটি ফিরিয়ে নিতে চান।

বুম দেখে ওই টুইটার অ্যাকাউন্টটি ভুয়ো। এবং কোবিন্দের নিজশ্ব অ্যাকাউন্ট থেকে সেরকম কোনও টুইট করা হয়নি। কয়েকদিন আগে 'টাইমস নাও'এর একটি অনুষ্ঠানে, ১৯৪৭ সালে ভারতের স্বাধীনতাকে 'ভিক্ষা' বলে বর্ণনা করে কঙ্গনা রানাউত বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে স্ক্রিনশটটি শেয়ার করা হচ্ছে। অভিনেত্রী আরও বলেন যে, আসল স্বাধীনতা আসে ২০১৪'য় যখন নরেন্দ্র মোদী নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতায় আসে। সম্প্রতি নতুন দিল্লিতে, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের হাত থেকে পদ্মশ্রী পুরষ্কার নেন রনাওয়াত।

স্ক্রিনশটের টুইটটি অনুবাদ করলে দাঁড়ায়, "কঙ্গনা রানাউতের মন্তব্য দেশের মনে আঘাত দিয়েছে। তাঁকে পদ্মশ্রী পুরষ্কার দিয়ে আমি লজ্জিত বোধ করছি। আমার সরকার শ্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে অনুরোধ করছে যাতে আমায় ওই পুরষ্কার ফিরিয়ে নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়।"


দেখার জন্য ক্লিক করুন এখানে

(মূল হিন্দিতে লেখা: कंगना रनौत द्वारा की गई टिप्पणी देश की भावनाओं को आहत करने वाली है , मै स्वयं उन्हें पद्म पुरस्कार दिये जाने के लिए शर्मिंदगी महसूस कर रहा हूँ ! मेरी सरकार श्री @narendramodi से विनती है कि मुझे पुरस्कार वापस लेने की अनुमति दी जाए।)


তথ্য যাচাই

বুম দেখে যে, ভাইরাল স্ক্রিনশটটি নেওয়া হয়েছে একটি প্রতারক টুইটার হ্যান্ডেল থেকে যেটি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের বলে পরিচয় দেয়। অ্যাকাউন্টটি সাসপেন্ড করা হয়েছে।

স্ক্রিনশটে টুইটারটির নাম দেওয়া ছিল @rashtrptibhvn। নামটি যাচাই করতে গিয়ে দেখা যায় টুইটার হ্যান্ডেলটিকে ইতিমধ্যেই সাসপেন্ড করে দিয়েছে টুইটার।


তাছাড়া রাষ্ট্রপতি কোবিন্দের একটি অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল আছে (@rashtrapatibhvn)। সেটি টুইটারের যাচাই করা হ্যান্ডেল। কিন্তু টুইটার হ্যান্ডেল @rashtrptibhvn, যেটি থেকে স্ক্রিনশটটি নেওয়া, সেটি কোনও যাচাই করা হ্যান্ডেল নয়।


ক্লিক করুন এখানে

আর্কাইভ ওয়েবসাইট ওয়েব্যাক মেশিনে টুইটটির সন্ধান করলে আমরা ভাইরাল টুইটটির আর্কাইভ দেখতে পাওয়া যায়।

সাসপেন্ড হওয়া টুইটার হ্যান্ডেল, টুইটার আইডি-১৩২৫০৪২৪৫৩৫১০৯৩৪৫৩০ ও রাষ্ট্রপতি কোবিন্দের যাচাই-করা টুইটার হ্যান্ডেল আইডি- ৮৮৫৪৮৭০৪৪২৪৩২৩৮৯১২ মেলালে দেখা যায় যে, ওই দু'টি আলাদা অ্যাকাউন্ট। তা থেকে স্পষ্ট হয় যে, স্ক্রিনশটটি একটি ভুয়ো টুইটার হ্যান্ডল থেকে নেওয়া।


রাষ্ট্রপতির অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলের (@rashtrapatibhvn) জায়গার নাম নতুন দিল্লি ও সেটি তৈরি করা হয় ২০১৭ সালের জুলাই মাসে। কিন্তু ভাইরাল স্ক্রিনশটের টুইটার হ্যান্ডেলটির স্থান হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সেটি তৈরির সময় হল নভেম্বর ২০২০। এর থেকেও প্রমাণ হয় যে সেটি আলাদা।

আর্কাইভ সংস্করণের টুইটারের পরিচিতিতে লেখা আছে 'প্রেসিডেন্ট অফ ইন্ডিয়া ফ্যান অ্যাকাউন্ট'। এবং সেখানে 'প্রেসিডেন্ট' বানানটি ভুল।


(অতিরিক্ত রিপের্টিং: সুজিত এ)

Claim Review :   ছবি দেখায় রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ প্রধানমন্ত্রী মোদীকে কঙ্গনা রানাউতের পদ্মশ্রী পুরস্কার বাতিলের অনুরেধ করেছেন
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story