দিল্লির রোহিঙ্গা শিবিরে কোরান পোড়ার ছবি ত্রিপুরার হিংসা বলে ভাইরাল

বুম যাচাই করে দেখে ২০২১ সালের জুন মাসে যখন দিল্লির এক রোহিঙ্গা শিবিরে আগুন লাগে, ছবিটি সেই সময়ের।

আংশিক ভাবে পুড়ে যাওয়া অনেকগুলি কোরান হাতে দাঁড়িয়ে রয়েছেন দুই ব্যক্তি, ২০২১ সালের জুন মাসে দিল্লির (Delhi) এক রোহিঙ্গা শিবিরে (Rohingya Camp) আগুন লাগলে এমন একটি ছবি তোলা হয়েছিল। সেই ছবিটিই এখন মিথ্যে দাবি সমেত ভাইরাল হয়েছে। দাবি করা হচ্ছে যে, ছবিটি ত্রিপুরায় সাম্প্রতিক সাম্প্রদায়িক (Tripura Riots) সঙ্ঘাতের সময়ে তোলা।

২৬ অক্টোবর ২০২১ তারিখে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের একটি কর্মসূচি চলাকালীন পানিসাগর সাব ডিভিশনে একটি মসজিদে ভাঙচুর করা হয়, এবং কিছু দোকান ও বাড়িতে হামলা হয়, এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই উত্তর ত্রিপুরার বিভিন্ন অঞ্চলে সাম্প্রদায়িক অশান্তি শুরু হয়। এই পরিপ্রেক্ষিতেই ভুয়ো দাবিসমেত ছবিটি ভাইরাল হয়েছে।

পুলিশের অতিরিক্ত ইনস্পেক্টর জেনারেল (এআইজি) (আইন-শৃঙ্খলা) সুব্রত চক্রবর্তী দ্য ওয়্যারকে জানান যে, চামটিলা ও রোয়া বাজার অঞ্চলে একটি মসজিদে ভাঙচুর করা হয়, এবং কিছু সম্পত্তি আক্রান্ত হয়।

ছবিটি যে ক্যাপশনের সঙ্গে শেয়ার করা হচ্ছে, তাতে সাম্প্রদায়িক মোচড় দেওয়া হয়েছে। "এই ছবিটি ত্রিপুরার... কিছু হিন্দুর সন্ত্রাসবাদী কাজকর্মের ফলে আমাদের পবিত্র কোরান পুড়ে গিয়েছে... #ত্রিপুরায় মুসলমানরা আক্রান্ত"

দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন

আরও পড়ুন: বাংলাদেশে হিংসা বলে আজতক বাংলা ছাপল ত্রিপুরার অগ্নিকাণ্ডের দৃশ্যের ছবি

তথ্য যাচাই

বুম যাচাই করে দেখে ভাইরাল হওয়া ছবিটি আসলে ২০২১ সালের জুন মাসের। দিল্লির একটি রোহিঙ্গা শিবিরে আগুন লাগার সময় ছবিটি তোলা হয়েছিল।

টুইটারে একটি কি-ওয়ার্ড সার্চ করে আমরা সাংবাদিক আসিফ মুজতাবার একটি টুইটের সন্ধান পাই, যেখানে তিনি জানিয়েছেন যে, ২০২১ সালের জুন মাসে দিল্লির কাঞ্চন কুঞ্জ এলাকায় এক রোহিঙ্গা শিবিরে একটি অগ্নিকাণ্ডের সময় ছবিটি তোলা হয়েছিল।

ভাইরাল ছবিটির সঙ্গে আরও দুটি ছবি টুইট করে মুজতাবা লেখেন যে, "এই ছবিগুলি নয়া দিল্লির কাঞ্চন কুঞ্জের রোহিঙ্গা শিবিরে সাম্প্রতিক অগ্নিকাণ্ডের সময় তোলা, এগুলি ত্রিপুরার ছবি নয়। জুন মাসে মাইলসটুস্মাইল যখন ত্রাণকার্য শুরু করে, এই ছবিগুলি তখনকার। দয়া করে ভুয়ো তথ্য ছড়াবেন না।"

১৩ জুন ২০২১ তারিখে মুজতাবা ইনস্টাগ্রামে যে পোস্ট করেছিলেন, আমরা সেটিরও খোঁজ পাই। সেই পোস্টেও এই ভাইরাল ছবিটি দেখা যাচ্ছে। পোস্টটিতে লেখা হয়েছে, "দিল্লির কাঞ্চন কুঞ্জে ভস্মীভূত হয়ে যাওয়া রোহিঙ্গা শিবির থেকে আমরা যখন ফিরলাম, তখন সকাল পাঁচটা বাজে। কোনও সন্দেহই নেই যে, এই ঘটনাটি রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত হিংস্রতারই অংশ। আমি বহু উদ্বাস্তুর সঙ্গে কথা বললাম, সবারই এক অভিজ্ঞতা।"

দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন

বুম মুজতাবার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান যে, ছবিটি দিল্লির ফ্রিল্যান্স চিত্রসাংবাদিক মহম্মদ মেহেরবানের তোলা। তিনি আরও জানান যে, ছবিতে যে দুই ব্যক্তিকে দেখা যাচ্ছে, তাঁরা দিল্লির ক্যাম্পে বসবাসকারী রোহিঙ্গা উদ্বাস্তু।

২০২১ সালের ১৩ জুন ইনস্টাগ্রামে যে ছবি পোস্ট করা হয়েছে, সেটি বর্তমান ভাইরাল হওয়া ছবির সঙ্গে মিলে যাচ্ছে।

দিল্লির মদনপুর খাদার এলাকায় ২০২১ সালের ১২ জুন রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ শিবিরে আগুন লাগে, এবং তা দ্রুত গোটা শিবিরে ছড়িয়ে পড়ে। ১৩ জুন ২০২১ তারিখে প্রকাশিত আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যে, এই আগুনে ৫৫টি ঝুপড়ি ভস্মীভূত হয়ে যায়। প্রতিবেদনটি থেকে আরও জানান যায় যে, এই অগ্নিকাণ্ডে কেউ নিহত বা গুরুতর আহত হননি।

আরও পড়ুন: ত্রিপুরায় হিংসা বলে ছড়াল পুলিশের 'জয় শ্রীরাম' ধ্বনির পুরনো ভিডিও

Updated On: 2021-11-01T18:47:13+05:30
Claim :   ত্রিপুরায় সাম্প্রদায়িক হিংসায় পুড়ে যাওয়া কোরান ধরে দাঁড়িয়ে আছে দুই ব্যাক্তি
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.