না, এই ভিডিওটি অধ্যাপক রতন লালের গ্রেফতারির দৃশ্য নয়

বুম দেখে ভিডিওটি চণ্ডীগড় পুলিশের কোভিড-১৯ লকডাউন বিধি ভঙ্গ রুখতে ধাতব লাঠি সহ মহড়া।

২০২০ সালে কোভিড-১৯ নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীদের উপর ব্যবহার্য একটি হাতিয়ারের মহড়া দেখানো চণ্ডীগড় পুলিশের একটি ভিডিওকে দেখিয়ে ভুয়ো প্রচার করা হচ্ছে যে, এটা নাকি জ্ঞানবাপী মসজিদ বিতর্ক নিয়ে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রতন লাল-এর (Ratan Lal) মন্তব্যের দায়ে তাঁকে গ্রেফতার করার দৃশ্য।

রতন লাল দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের হিন্দু কলেজের ইতিহাসের অধ্যাপক, যাঁকে সম্প্রতি সোশাল মিডিয়ায় জ্ঞানবাপী মসজিদের ভিতর 'শিবলিঙ্গ' পাওয়া বিষয়ে তাঁর বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য দিল্লি পুলিশ গ্রেফতার করলেও ২১ মে তারিখে তাঁকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়।

আদালত নির্দেশিত একটি সমীক্ষায় মসজিদ চত্বরের ভিতর একটি 'শিবলিঙ্গ' খুঁজে পাওয়ার পর মামলার হিন্দু আবেদনকারীদের আবেদনক্রমে বারাণসীর এক আদালত ১৬ মে চত্বরটি 'সিল' করার নির্দেশ দেয়l তবে মুসলিমদের তরফে প্রতিনিধিত্বকারী 'আঞ্জুমান ইন্তেজামিয়া মসজিদ কমিটি' দাবি করে, তথাকথিত ওই শিবলিঙ্গটি আসলে হাত-মুখ ধোয়ার জন্য 'ওয়াজু-খানা'য় বসানো একটি ফোয়ারা মাত্র।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে পুলিশকে ফুট পাঁচেক লম্বা একটা ধাতব রড নিয়ে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করতে দেখা যাচ্ছে। ভিডিওটি শেয়ার করে হিন্দি ক্যাপশনে দাবি করা হয়েছে, "শিবলিঙ্গ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করার জন্য দিল্লি পুলিশ দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রতন লালকে গ্রেফতার করছে।"


এই সংক্রান্ত পোস্টটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

ফেসবুকেও এই ভাইরাল ভিডিওটি একই ভুয়ো ক্যাপশন দিয়ে প্রচারিত হচ্ছে।


আরও পড়ুন: বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে তোপ রাহুল গাঁধীর? গ্রাফিকে ভুয়ো মন্তব্য

তথ্য যাচাই

বুম যাচাই করে দেখে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে চণ্ডীগড় পুলিশের এক সাজানো মহড়ার, যাতে কোভিড-১৯ জনিত লকডাউনের বিধিনিষেধঅমান্যকারীদের গ্রেফতার করার পদ্ধতি দেখানো হয়েছে।

ভিডিওটিকে কয়েকটি মূল ফ্রেমে ভেঙে নিয়ে 'গুগল ইমেজেস' মারফত খোঁজখবর করে আমরা দেখেছি, বিষয়টি নিয়ে সে সময় বেশ কয়েকটি সংবাদ-প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছিল। বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের একটি ধাতব রড দিয়ে দূরে রেখে সামাজিক দূরত্বের বিধিও অনুসরণ করা হচ্ছিল।


২০২০ সালের ২৫ এপ্রিল চণ্ডীগড় পুলিশের ডিজি তাঁর সরকারি টুইটার হ্যান্ডেলেও ভিডিওটি টুইট করেন, যাতে দেখানো হয়, কীভাবে পুলিশ ওই ধাতব রড ব্যবহার করবে। টুইটে লেখা ছিল— "ভিআইপিদের নিরাপত্তার ভারপ্রাপ্ত চণ্ডীগড় পুলিশ এই চমৎকার হাতিয়ারটি উদ্ভাবন করেছে, যা দিয়ে অসহযোগী করোনা-আক্রান্ত এবং নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গকারীদের শায়েস্তা করা যায়। দারুণ হাতিয়ার, দুর্দান্ত মহড়া। সাবাস!"

এই টুইটে একটি দীর্ঘতর ভিডিও (১ মিনিট ৭ সেকেন্ড স্থায়ী) অন্তর্ভুক্ত হয়েছে যার মাধ্যমে কী ভাবে এই বিশেষ হাতিয়ারটি ব্যবহার করতে হবে, সে সংক্রান্ত নির্দেশ দেওয়া হয়। এই ভিডিও থেকেই একটা অংশ তুলে নিয়ে ভাইরাল ভিডিওটি সোশাল মিডিয়ায় ছাড়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: নির্ভয়ার আইনজীবী কি বিশ্বের ৬ জন সবচেয়ে প্রতিভাবান নারীর তালিকায় এলেন?

Claim :   ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে দিল্লি পুলিশ শিবলিঙ্গ সংক্রান্ত পোস্টের জন্য দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রতন লালকে গ্রেপ্তার করছে
Claimed By :  Social Media Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.