Jamia Millia Islamia-র বন্দুকবাজের ছবিকে জোড়া হল হল শাহিনবাগের সঙ্গে

বুম দেখে ছবিতে থাকা এক ব্যক্তি জামিয়াতে গুলি চালানো রামভক্ত গোপাল শর্মা ও অন্য ব্যক্তি শাহিনবাগের বন্দুকবাজ কপিল গুজ্জর।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (Citizenship Amendment Act 2019) বিরুদ্ধে আন্দোলন চলার সময় দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশে বন্দুক তাক করে গুলি চালানো যুবক রাম ভক্ত গোপাল শর্মার (Rambhakt Gopal Sharma) ছবি বিভ্রান্তিকর দাবি সহ সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হচ্ছে। ছবিটি শেয়ার করে মিথ্যে দাবি করা হচ্ছে, ওই ব্যক্তি হলেন শাহিনবাগে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (Citizenship Amendment Act 2019) বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের দিকে ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে গুলি চালানো ব্যক্তি।

শাহিনবাগে আন্দোলন চলার সময় গুলি চালনো ২৫ বছর বয়সী যুবক কপিল গুজ্জর (Kapil Gurjjar) সম্প্রতি খবরের শিরোনামে উঠে আসে গাজিয়াবাদে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বদের উপস্থিতিতে তাঁর বিজেপিতে যোগদান করাকে কেন্দ্র করে। সমালাচনার ঝড় উঠলে কয়েক ঘন্টার মধ্যেই কপিল গুজ্জরের দলীয় সদস্যপদ বাতিল করা হয়। উত্তরপ্রদেশ বিজেপির সাধারন সম্পাদক জে পি এস রাঠোর সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে জানান রাজ্যের উচ্চস্তরের নেতারা ঘটনাটি জানতে পারলে গুজ্জরের দলীয় সদস্যপদ বাতিল করা হয়।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া পোস্টে দুটি ছবি শেয়ার করা হয়েছে। একটি ছবিতে দেখা যায় কতর্ব্যরত নিরাপত্তাক্ষীদের সামনেই বন্দুক তাক করে রাস্তায় দাঁড়িয়ে রয়েছে এক যুবক। অন্য ছবিতে অরেক ব্যক্তিকে সম্ভবত বিজেপি কার্যালয়ে মালা পরিয়ে ও মিষ্টিমুখ করিয়ে বরণ করছে এক ব্যক্তি।

ছবিটি শেয়ার করে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, "এই বছরের শুরুর দিকে শাহীনবাগে গুলি চালিয়েছিল কপিল গুজ্জর বলে এক যুবক। আজ সে বিজেপিতে আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগ দিল। ওদিকে পাড়ায় পাড়ায় বিজেপির পতাকা লাগানো সারা বাংলা জুড়ে। দিনের বেলা লাগাচ্ছে না কিন্তু, রাতের অন্ধকারে দু- তিন জন মিলে অনেক পতাকা লাগাচ্ছে। যাতে সকালে উঠে আপনার মনে হয়, বাবা চারিদিকে এতো বিজেপি? এটাকে বলে মনস্তাত্বিক প্রভাব বিস্তার করা। দিলীপ ঘোষ ঠিক বলেছেন যে সবাই বিজেপির প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছেন।"(বানান অপরিবর্তিত)

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে, আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

বুম দেখে ভাইরাল হওয়া ছবি দুটি একই ব্যক্তির নয়। বন্দুক তাক করা ব্যক্তি হলেন রাম ভক্ত গোপাল শর্মা। গোপাল শর্মা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (Citizenship Amendment Act 2019) বিরুদ্ধে আন্দোলন চলার সময় নিরাপত্তারক্ষীদের সামনেই জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে বন্দুক তাক কর গুলি ছোড়ে। গুলি ছোঁড়ার কিছু আগে ফেসবুক লাইভ ও করে সে। বিস্তারিত পড়ুন ছবি সহ
পুনে মিররের প্রতিবেদন
। রাম ভক্ত
গোপাল শর্মার কট্টরপন্থী অস্তিত্ব নিয়ে পড়ুন বুমের প্রতিবেদন

রয়টর্সের আর্কাইভে থাকা রাম ভক্ত গোপাল শর্মার ছবিটি দেখা যাবে এখানে। ছবিটিতে ক্যাপশন লেখা হয়, "৩০ জানুয়ারি, ২০২০, ভারতের নয়া দিল্লিতে জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়য়ের (JMIU) বাইরে নয়া নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের সময় অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি বন্দুক উঁচিয়ে। প্রতিবাদ আন্দোলনটিতে গুলি করার আগে ওই বন্দুকধারী ফেসবুকে লাইভে গিয়েছিল সতর্ক করতে যে সে তার "অন্তিম যাত্রা" নিচ্ছে।" ছবিটি তোলেন রয়টর্সের সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি।

(মূল ক্যাপশন: An unidentified man brandishes a gun during a protest against a new citizenship law outside the Jamia Millia Islamia University in New Delhi, India, January 30, 2020. The gunman went live on Facebook to warn he was taking his "final journey" before firing at the প্রোটেস্ট)

শাহিনবাগের বন্দুকবাজ

২০২০ সালের জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবাদী ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে গুলি চালানোর দিন তিনেক পরে শাহিনবাগে অবস্থানরত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের দিকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় ২৫ বছর বয়সী কপিল গুজ্জর। মার্চ মাসে ছাড়া পায় কপিল।

৩০ ডিসেম্বর ২০২০ প্রকাশিত দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদন অনুযায়ী কপিল বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কয়েক ঘন্টা পরেই তাঁর সদস্যপদ বাতিল করে দেওয়া হয় রাজ্য শীর্ষ নেতৃত্বদের নির্দেশে। দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে দেখা যাবে মালা পরিয়ে বরণ করার মুহূর্তের ছবিটি।
নিচে (বাম দিকে) জামিয়া মিলিয়ার বন্দুকবাজ রাম ভক্ত গোপাল শার্মা ও (ডান দিকে) শাহিনবাগের বন্দুকবাজ কপিল গুর্জর।
Updated On: 2021-01-04T12:03:21+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি পিস্তল তাক করা শাহিনবাগের বন্দুকবাজ বিজেপিতে যোগ দিয়েছে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story