২০১৯ সালে প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর সহায়কের হাতে সাংবাদিক নিগ্রহ সাম্প্রতিক বলে ছড়াল

২০১৯ সালে প্রিয়ঙ্কা গাঁধী সোনভদ্র যাওয়ার সময় এক সাংবাদিক কংগ্রেস নেত্রীর সহায়কের হাতে নিগৃহীত হন।

২০১৯ সালে একজন সাংবাদিক (journalist) কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গাঁধীকে (Priyanka Gandhi) ৩৭০ ধারা (Article 370) সম্পর্কে প্রশ্ন করলে, তাঁর সহায়ক সেই সাংবাদিকের ওপর চড়াও হন। সেই ভিডিও সাম্প্রতিক বলে এখন সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হচ্ছে।

কংগ্রেসের তরফে প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা এখন উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) দায়িত্বে আছেন। সে রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন হতে চলেছে ২০২২ সালে (Assembly Elections 2022)। সেই জন্য, উনি এখন সেখানে নিয়মিত প্রচার করতে যাচ্ছেন। বুম দেখে, ভাইরাল ভিডিওটিতে যে ঘটনাটি দেখা যাচ্ছে সেটি ২০১৯ সালে ঘটেছিল। সেই সময়, উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্র নামের জেলায়, এক জমি সংক্রান্ত সংঘর্ষে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী।

প্রিয়ঙ্কা গাঁধী কথা বলতে অস্বীকার করা সত্ত্বেও, একজন সাংবাদিককে তাঁর দিকে এগিয়ে যেতে দেখা যায় ভিডিওটিতে। তিনি ৩৭০ ধারা সম্পর্কে প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর প্রতিক্রিয়া জানতে চান। প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর সহায়ক সঙ্গে সঙ্গে ওই সাংবাদিককে আটকান ও তাঁকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেন। আর সাংবাদিকের চিত্রগ্রাহক ওই ঘটনাটি ভিডিও ক্যামেরায় তুলে রাখেন।

ভিডিওটি সম্পাদনা করে তার সঙ্গে একটি লেখা জুড়ে দেওয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, "বিজেপি ৩৭০ ধারার কলঙ্ক মুছে দেয়। আর সে বিষয়ে প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর অবস্থান জানতে চাওয়া হলে, তাঁর পোষ্যরা ধমক দিয়ে ওঠেন।"

(হিন্দিতে লেখা: "धारा 370 का कलंक भाजपा ने मिटाया जब प्रियंका गाँधी का इस पर स्टैंड पूछा गया तो इनके पालतू पिल्ले धमकी पर उतरें")

ভিডিওটি সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হচ্ছে। তাতে দাবি করা হয়েছে, "ধূর্ত কংগ্রেসিরা সব সময়ই ৩৭০ ধারা বাতিল করার বিরোধিতা করে এসেছে। তাই জবাব দেওয়ার বদলে ধমক দেওয়া হচ্ছে। শ্রীমান রাহুল গাঁধীজি, আপনার বোন প্রিয়ঙ্কা গাঁধীকে যখন প্রশ্ন করা হয়, তখন কংগ্রেসের কার্যকর্তারা সাংবাদিককে মারার হুমকি দিতে থাকেন। তখন তাঁদের অধিকার সম্পর্কে আপনি আওয়াজ তুললেন না কেন?"

(হিন্দিতে লেখা: "धूर्त कांग्रेसी हमेशा धारा 370 को हटाने के खिलाफ रहे हैं इसलिए जवाब देने की जगह धमकियां दी गई। श्रीमान RahulGandhi जी, जब आपकी बहन priyankagandhi से सवाल पूछने पर कांग्रेस के कार्यकर्ता पत्रकार को ठोकने और मारने की धमकी दे रहे थे, तब आपने उनके हक़ के लिए आवाज़ क्यूँ नही उठायी?")

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে


অগস্ট ২০১৯ সালে ঘটনা

'প্রিয়াঙ্কা গাঁধী সাংবাদিককে নিগ্রহ করেন', এই কিওয়ার্ড দিয়ে আমরা সার্চ করি। তার ফলে, ওই ঘটনার ওপর বেশ কয়েকটি সংবাদ প্রতিবেদন আমরা দেখতে পাই।

টাইমস অফইন্ডিয়া'র ২০১৯ সালের অগস্ট মাসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই সাংবাদিককে নিগৃহীত করার ঘটনাটি ঘটে উনভা গ্রামে। ৩৭০ ধারা বাতিল করা সম্পর্কে প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা'র মতামত জানতে চাওয়া হলে, তাঁর ঘনিষ্ট সহায়ক কংগ্রেস কর্মী সন্দীপ সিংহ সাংবাদিকদের নিগৃহীত করেন। পরে, ঘোরওয়াল থানায় সিংহের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়।


১৩ অগস্ট, ২০১৯ ওই একই ভিডিও টাইমস অফ ইন্ডিয়ার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা হয়। সেটির শিরোনামে লেখা হয়, "দেখুন: প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরাকে প্রশ্ন করার চেষ্টা করলে, কংগ্রেস কর্মীরা রিপোর্টারদের গালমন্দ করেন।"

১৩ অগস্ট, ২০১৯ এবিপি নিউজ ঘটনাটি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেই সময় একটি জমি সংক্রান্ত সংঘর্ষে উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রতে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলেন বঢরা। এবিপি গঙ্গা'র সাংবাদিক (ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে) নিগৃহীত হন।

সংবাদপ্রতিবেদন অনুযায়ী, ১৭ জুলাই, ২০১৯, গ্রামের মোড়ল ও তাঁর সমর্থকরা, উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্র জেলার উনভা গ্রামের আদিবাসী কৃষকদের ওপর গুলি চালালে, তিন মহিলা সহ ১০ ব্যক্তি নিহত ও আহত হন ২৮ জন।

আরও পড়ুন: বুম বাংলা: ২০২১ সালের সারা বছরের বাছাই ভুয়ো খবর

Claim :   প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরার নিরাপত্তাকর্মী সাংবাদিককে নিগ্রহ করে ৩৭০ ধারা নিয়ে প্রশ্ন করলে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.