রাশিয়া কি ইউক্রেনে আটক ভারতীয়দের গাড়িতে তেরঙা লাগাতে নির্দেশ দিয়েছে?

বুম দেখে ভারত সরকারের আধিকারিকরা ইউক্রেনে আটক পড়ুয়াদের উদ্দেশে এই নির্দেশিকা জারি করেছে। রাশিয়া এই নির্দেশিকা দেয়নি।

সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ছবিতে দাবি করা হয়েছে যে, রাশিয়ার (Russia) প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এবং সেনাবহিনীর জেনারেল সেরগেই কুজুগেটোভিচ শোইগু (Sergey Kuzhugetovich Shoigu) মন্তব্য করেছেন, যে সব ভারতীয় (Ukraine) ইউক্রেনে আটকে পড়েছেন, তাঁরা যদি নিজেদের বাড়িতে এবং গাড়ির উপর ভারতীয় (Indian Flag) পতাকা লাগিয়ে রাখেন তবে তাঁদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। ভাইরাল হওয়া ছবিটির এই দাবিটি বিভ্রান্তিকর।

ওই মন্তব্যে দাবি করা হয়েছে যে, ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়রা যদি তাঁদের বাড়ি বা গাড়ির উপর ভারতের পতাকা লাগিয়ে রাখেন, তবে রুশ সেনাবাহিনী তাঁদের কিছু বলবে না। বরং, রুশ বাহিনীর সার্চ পার্টি তাঁদের নিরাপদ জায়গায় পৌঁছে দেবে।

বুম অনুসন্ধান করে দেখল যে, এই মন্তব্যটি আদৌ শোইগুর করা নয়। ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের গাড়িতে ভারতের পতাকা লাগানোর নির্দেশিকাটি ভারত সরকারের পক্ষ থেকে জারি করা হয়েছে। রাশিয়া এই ধরনের কোনও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বলে কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করলে ডাক্তারি পড়ুয়া বেশ কয়েক হাজার ভারতীয় ছাত্র ইউক্রেনে আটকে পড়েন। এই পরিস্থিতিতে এই ছবিটি ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সেরগেই শোইগুর একটি ছবি রয়েছে, সঙ্গে হিন্দিতে লেখা যে ক্যাপশন রয়েছে, তার অনুবাদ, "ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়রা যদি নিজেদের বাড়ি ও গাড়িতে ভারতের পতাকা লাগিয়ে রাখে, তাহলে রুশ সেনারা তাঁদের কিছু বলবে না। বরং সার্চ পার্টি তাঁদের নিরাপদ জায়গায় পৌঁছে দেবে— আর্মি ডিফেন্স রাশিয়ান ফেডারেশন জেনারেল সেরগেই কুজুগেতোভিচ শোইগু। আমাদের চাওয়ালার কিছু তো ক্ষমতা আছেই।"

চাওয়ালা বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে উল্লেখ করা হয়েছে।

(হিন্দিতে: 'यूक्रेन में जो भारतीय घर और गाड़ी पर तिरंगा लगा लेंगे. उनसे रूसी सैनिक कुछ नहीं कहेंगे. अलबत्ता उन्हें सुरक्षित स्थान पर स्वयं पहुंचाया रूस की सेना का खोजी दस्ता. Sergey Kuzhugetivich Shoigu- General of the Army Defence Russian Federation कुछ तो दम है हमारे चाय वाले में')

ভাইরাল হওয়া পোস্টে একটি ক্যাপশন ববহার করা হয়েছে যার অনুবাদ, "আর লোকে বলে মোদী বিদেশে শুধু বেড়াতে যায়।"

(হিন্দিতে: और लोग कहते है की मोदी केवल विदेश घूमते है)


পোস্টটি দেখা যাবে এখানে

বিভিন্ন ফেসবুক পেজ থেকে এই একই ছবি একই দাবির সঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে।


তথ্য যাচাই

ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের গাড়ি এবং বাড়িতে ভারতের পতাকা লাগানোর নির্দেশিকা বিষয়ে কোনও সংবাদ প্রতিবেদন আছে কি না, বুম তা খুঁজতে শুরু করে। এ রকম কোনও প্রতিবেদন আমরা দেখতে পাইনি। রাশিয়ার সরকার এ রকম কোনও নির্দেশিকা জারি করলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে অবশ্যই তা নিয়ে বড় করে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হত।

তবে ইউক্রেনের কিয়েভে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের জারি করা একটি নির্দেশিকা আমরা দেখতে পাই। ওই নির্দেশিকায় ভারতীয় নাগরিকদের ভারতের জাতীয় পতাকার প্রিন্ট আউট নিয়ে নিজেদের গাড়িতে লাগাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এনডিটিভি এবং অন্যান্য সংবাদ ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, কিয়েভে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাস ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের নিজেদের গাড়িতে ভারতের পতাকা লাগাতে নির্দেশ দিয়েছে।

২৬ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত এএনআই'র একটি প্রতিবেদনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডির একটি মন্তব্য উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে যে, ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয় ছাত্রদের নিরাপত্তার জন্য নিজেদের গাড়িতে ভারতের পতাকা ব্যবহার করতে বলা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এএনআই-কে জানান, "ইউক্রেনের আশেপাশের দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধান এবং মন্ত্রীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কথা বলেছেন। যদি ভারতীয়রা বাস, গাড়ি বা টু-হুইলারে করে অন্য দেশে আশ্রয় নেওয়ার জন্য ইউক্রেনের সীমান্তে পৌঁছাতে পারেন, তবে তাঁদের যাতে বিনা বাধায় সেই দেশে ঢুকতে দেওয়া হয় ভারত সরকার তা নিশ্চিত করেছে। যাঁরা ইউক্রেনের সীমানা দিয়ে রোমানিয়ায় পৌঁছচ্ছেন, ভারত সরকার সেই ছাত্রদের সেখান থেকে নিখরচায় দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করেছে।"


ভারতের পতাকা দেখালে রুশ সেনারা ভারতীয়দের নিরাপদ জায়গায় পৌঁছে দেবে, এ রকম কোনও নির্দেশিকা আছে কি না, তা দেখতে বুম রাশিয়ায় অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে খোঁজ করে। কিন্তু সেখানে এ রকম কোনও নির্দেশিকার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

Claim :   রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সেনাবহিনীর জেনারেল সেরগেই কুজুগেটোভিচ শোইগু বলেছেন যে সব ভারতীয় ইউক্রেনে আটকে পড়েছেন, তাঁরা যদি নিজেদের বাড়িতে এবং গাড়ির উপর ভারতীয় পতাকা লাগিয়ে রাখেন তবে তাঁদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.