প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের পর বিক্ষোভের ভিডিও পশ্চিমবঙ্গের বলে ছড়াল

বুম দেখে ২৮ মার্চ ২০২১ চট্টগ্রামের হাটহাজারী থেকে আপলোড করা আসল ভিডিওটি চার ব্যক্তির মৃত্যুর বিরুদ্ধে বিক্ষোভের দৃশ্য।

বাংলাদেশে (Bangladesh) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সফরের পর বিক্ষোভের সময় একদল লোককে সুরক্ষাবাহিনীর একটি গাড়ি আটকানোর ভিডিও মিথ্যে দাবি সমেত শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) সম্প্রতি ওই ঘটনা ঘটেছে।

ভিডিওটিতে একদল লাঠিধারী বিক্ষোভকারীকে প্রতিরক্ষাবাহিনীর একটি গাড়ি আটকাতে দেখা যাচ্ছে। আর গাড়ির আরোহীরা তাঁদের রাস্তা ছেড়ে দিতে বলছেন, কারণ রোগী সমেত একটি অ্যাম্বুলেন্সকে এসকর্ট করে নিয়ে যাচ্ছেন বলে দাবি করছেন তাঁরা। পরমুহূর্তেই, বিক্ষোভকারীদের একটা অংশ উত্তেজিত হয়ে পড়ে। কারণ, দেখা যায় যে, অ্যাম্বুলেন্সটিতে কোনও রোগী নেই। যাঁকে রোগী বলে দাবি করা হয়েছিল, তাঁকে নাকি খানিক আগেই বসে থাকতে দেখা গিয়েছিল। ফলে, বিক্ষোভ আর স্লোগানের মাত্রা আরও বেড়ে যাওয়ায়, গাড়িগুলি আটকে পড়ে এবং বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়।

বুম দেখে, ভিডিওটি বাংলাদেশের হাটহাজারীতে তোলা। মার্চে নরেন্দ্র মোদীর দু'দিনের বাংলাদেশ সফরের অব্যবহিত পরে, ইসলামি সংগঠনের সমর্থকরা মোদী-বিরোধী বিক্ষোভ দেখালে, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে চার জন মারা যান।

ভিডিওটি হোয়াটসঅ্যাপ ও ফেসবুকে শেয়ার করা হচ্ছে। এবং নেটিজেনরা জায়গাটিকে পশ্চিমবঙ্গ বলে ভুল করছেন। ভিডিওটি যাচাইয়ের জন্য বুমের হেল্পলাইন ও টিপলাইনে আসে। সেটির ক্যাপশনে বলা হয়, "বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রকে ভগবান রক্ষা করুন...পশ্চিমবঙ্গ থেকে আরও একটি দৃশ্য...এটা কি গণতন্ত্র।"

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

বুমের হেল্পলাইনে যে ভিডিওটি আসে, তার একটা স্ক্রিনশট দেওয়া হল নীচে।


তথ্য যাচাই

বুম নিশ্চিত হয় যে, ভিডিওটি বাংলাদেশের। কারণ, সেই দেশের স্থানীয় ভাষায় কথা বলতে শোনা যায় মানুষজনকে। তাছাড়া গাড়ির নম্বরপ্লেটটিও বাংলায় লেখা এবং বাংলাদেশ মেডিক্যাল কোর-এর এক সদস্যকে অ্যাম্বুলেন্সটিতে বসে থাকতে দেখা যায়।


আমরা প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড দিয়ে ফেসবুকে সার্চ করি। তার ফলে, আমরা আসল লাইভ ভিডিওটির সন্ধান পাই। এইচএম আল আমিন নামের একজন সেটি ২৮ মার্চ, বেলা ২.২৭'এ ফেসবুকে আপলোড করেন। ভিডিওটির ক্যাপশন থেকে জানা যায় যে, সেটি হাটহাজারীতে তোলা হয়। বাংলায় লেখা ক্যাপশনে আরও বলা হয়, "হাটহাজারী সড়কে সেনাবাহিনী"।

ফেসবুকে যে লাইভ ফুটেজ রয়েছে, সেটি আট মিনিটের। যিনি ভিডিও তুলছেন, তাঁর উদ্দেশ্যে বিক্ষোভকারীদের বলতে শোনা যাচ্ছে, "লাইভ তুলুন আর শেয়ার করুন"। ভিডিওটিতে বিক্ষোভকারীদের গাড়িটিকে আটকাতে দেখা যাচ্ছে, এবং অন্য পথে যেতে বাধ্য করছে সেটিকে। ৪ মিনিট ৩৩ সেকেন্ডের মাথায়, চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে রাঙ্গামাটি রোডের ওপর অবস্থিত আল হিরা তহফিজুল কোরান ইসলামিক অ্যাকাডেমি দেখতে পাওয়া যায়। বুম বাংলাদেশ আমাদের এই তথ্য সঠিক বলে জানায়।


ওই ফেসবুক ব্যবহারকারী সেদিনের বিক্ষোভের আরও একটি ভিডিও আপলোড করেন। তাতে বিক্ষোভকরীদের কাঠ জ্বালিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দিতে দেখা যায়। ভিডিও রেকর্ডকারীকে বলতে শোনা যায়, "বিক্ষোভ এখন শান্তিপূর্ণ ভাবে চলছে। বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ার জন্য জামাতরা পালা করে জড়ো হচ্ছেন।"

হাটহাজারীতে পথ অবরোধের প্রতিবেদন নীচে দেখা যাবে।

খবরে প্রকাশ, নরেন্দ্র মোদী মার্চ মাসে দু'দিনের সফরে বাংলাদেশ গেলে, চট্টগ্রামে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখা দেয়। চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বিক্ষোভ চলাকালে, হেফাজত-এ-ইসলামের সমর্থক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে চারজন মারা যান। তার প্রতিবাদে, মাদ্রাসার ছাত্ররা চট্টগ্রাম-খাগরাগাছি হাইওয়ের এক জায়গায় ইঁটের দেওয়াল তুলে রাস্তাটি অবরোধ করেন। বুম বাংলাদেশ, হাটহাজারীর উপজেলা আধিকারিক রুহুল আমিনের সঙ্গে যোগাযোগ করে, কিন্তু তিনি এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।।

আরও পড়ুন: সম্পাদিত ছবির ভুয়ো দাবি অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের তৃণমূল যোগদান

Claim Review :   ভিডিওর দাবি মুসলিমরা পশ্চিমবঙ্গে প্রতিবাদ করছে
Claimed By :  Facebook Posts & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story