না, সাঁওতালি মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিকে অনিমা মুর্মু ২০২১ সালে প্রথম হননি

বুমকে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানান, "সাঁওতালি মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিকে ২০১৯ সালে অনিমা মুর্মু ও আরেক ছাত্রী প্রথম হয়।"

২০১৯ সালে উচ্চমাধ্যমিকে (Higher Secondary) সাঁওতালি (Santali Medium) মাধ্যমে প্রথম হওয়া অনিমা মুর্মুর (Anima Murmu) ছবি বিভ্রান্তিকর দাবিতে সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হচ্ছে। নেটিজেনদের পাশাপাশি রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বও সেই ভুয়ো দাবির বার্তাটি ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।

অনিমা মুর্মু যে স্কুল থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করেছে বুম বাঁকুড়ার রাইপুরের সেই স্কুল পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আবাসিক উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কৌশিক চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেছে। তিনি বুমকে নিশ্চিত করেন, "সাঁওতালি মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিকে ২০১৯ সালে অনিমা মুর্মু ও আরেক ছাত্রী সনকা হেমব্রম প্রথম হয়।"

২২ জুলাই পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ রাজ্যের দ্বাদশ পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করে। অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে প্রতিকূল পরিস্থিতিতে ছাত্রছাত্রীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হওয়ায় বিশেষ পদ্ধতি অনুসরণ করে মার্কশিটে নম্বর বসায় পর্ষদ। ৪৯৯ নম্বর পেয়ে উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে মুর্শিদাবাদের পড়ুয়া রুমানা সুলতানা। ফল ঘোষণার সময় উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস পরীক্ষার্থীর ধর্ম পরিচয় উল্লেখ করলে বাঁধে বিতর্ক। পরে "আবেগের বসে" বলে ফেলেছেন বলে সাফাই দেন মহুয়া দাস। সোশাল মিডিয়ায় ছবিটিকে ঘিরে জাতিগত পরিচয় উল্লেখ করে বিভ্রান্তিকর দাবি সহ শেয়ার করা হচ্ছে।

ভাইরাল হওয়া গ্রাফিক পোস্টটিতে এক তরুণীকে অভিভাবকদের সঙ্গে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। সঙ্গে লেখা হয়েছে,"উচ্চমাধ্যমিকের সাঁওতালি মাধ্যমে প্রথম হয়েছে অনিমা মুরমু। কেউ কি ওকে অভিনন্দন জানাবে না?"।

ছবিটি নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইল থেকে পোস্ট করেছেন ভাঙরের বিধায়ক ও ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (ISF) চেয়ারম্যান নওসাদ সিদ্দিকি। তিনি ক্যাপশন লেখেন, "অভিনন্দন ও ভালোবাসা #বোন"

ফেসবুক পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফেসবুক পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

বুম দেখে ছবিটি ওই একই দাবিসহ ফেসবুকে ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছে।

আরও পড়ুন: জিও ছাপ ছাতা মাথায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী? ভাইরাল ছবিটি সম্পাদিত

তথ্য যাচাই

বুম যাচাই করে দেখে ভাইরাল তরুণীর ছবিটি ২০১৯ সালে সাঁওতালি মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম হওয়া পরীক্ষার্থী অনিতা মুর্মুর। ২০২১ সালে সাঁওতালি মাধ্যমে প্রথম হওয়া ছাত্র-ছাত্রীর নাম প্রকাশিত হয়নি গণমাধ্যমে।

বুম কিওয়ার্ড সার্চ করে ২৮ মে ২০১৯ বর্তমান পত্রিকায় প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পায়। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী বাঁকুড়ার জঙ্গল মহল ব্লকের রাইপুরের পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আবাসিক উচ্চবিদ্যালয় থেকে যুগ্মভাবে ২০১৯ সালে প্রথম হয়েছিলেন অনিমা মুর্মু ও সনকা হেমব্রম। এই দুই ছাত্রীরই প্রাপ্ত নম্বর ৪৪৫।

হাজার প্রতিকূলতাকে দূরে সরিয়ে বাজিমাত করে জঙ্গলমহলের দুই দিনমজুর পরিবারের কন্যা অনিমা ও সনকা। বিষয়টি নিয়ে এই সময় গণমাধ্যমের প্রতিবেদন পড়া যাবে এখানে

২০২১ সালে সাঁওতালি মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম হওয়া পড়ুয়ার নাম এখনও জানা যায়নি বুমকে জানান রাইপুরের পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আবাসিক উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কৌশিক চট্টোপাধ্যায়। বুমও এবিষয়ে গণমাধ্যমে কোনও প্রতিবেদন খুঁজে পায়নি।

আরও পড়ুন: কুস্তিতে প্রিয়া মালিকের সোনা জয় ভুল করে ছড়াল টোকিও অলিম্পিক বলে

Updated On: 2021-07-30T19:12:30+05:30
Claim Review :   সাঁওতালি মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিকে এবছর প্রথম হয়েছে অনিমা মুর্মু
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story