নরেন্দ্র মোদীর যোগ চর্চা বলে ছড়াল বিকেএস আয়েঙ্গারের ১৯৩৮ সালের ভিডিও

বুম যাচাই করে দেখে ১৯৩৮ সালের ভাইরাল ভিডিওটি প্রবীণ যোগ প্রশিক্ষক বিকেএস আয়েঙ্গারের যোগাভ্যাসের দৃশ্য।

প্রয়াত যোগগুরু বিকেএস আয়েঙ্গারের যোগাভ্যাসের পুরনো ভিডিও যুবক নরেন্দ্র মোদীর ভিডিও বলে মিথ্যে দাবি করে ভাইরাল হয়েছে।

ক্লিপটিতে আয়েঙ্গারকে বিভিন্ন যোগমুদ্রা অভ্যাস করতে দেখা যাচ্ছে। ক্লিপটির ক্যাপশনে মিথ্যে দাবি করা হয়েছে যে ভিডিওতে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে দেখা যাচ্ছে।

ফেসবুকে বাংলা ক্যাপশন দিয়ে এই ভিডিওটি পোস্ট এবং শেয়ার করা হয়েছে। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা আছে, "যোগী রূপে মোদি জী, যোগী রূপে মোদি জী, একটি দুর্লভ ভিডিও" (বানান অপরিবর্তিত)

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে এবং আর্কাইভ করা আছে এখানে


টুইটারে হিন্দি ক্যাপশনেও ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে, "আপনি নিশ্চয় মোদীজিকে এই যোগ আগে করতে দেখেননি"।

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে এবং আর্কাইভ করা আছে এখানে
হিন্দিতে লেখা ক্যাপশন "मोदी जी का यह योगी रूप आपने कभी नही देखा होगा। खुद मोदी जी ने भी नही"।
পোস্টটি দেখা যাবে এখানে এবং আর্কাইভ করা আছে এখানে
আমরা ভাইরাল হওয়া ক্লিপটি আমাদের হোয়্যাটসঅ্যাপ হেল্পলাইন নাম্বার (৭৭০০৯০৬১১১) পাই এবং সেখানে জানতে চাওয়া হয়েছে যে ভাইরাল হওয়া ক্লিপটিতে যাঁকে দেখা যাচ্ছে, তিনি সত্যিই নরেন্দ্র মোদী কি না।

ফেসবুকে ভাইরাল
ফেসবুকে ক্যাপশন সার্চ করে দেখা যায় একই ভুয়ো দাবি সহ ভিডিও ক্লিপটি ভাইরাল হয়েছে।

তথ্য যাচাই

ভিডিওতে যাঁকে দেখা যাচ্ছে তাঁকে আমরা যোগ গুরু বেলুর কৃষ্ণামাচারিয়া সুন্দররাজা (বি কে এস)
আয়েঙ্গার
বলে চিনতে পারি। তিনি বিখ্যাত আয়াঙ্গার ঘরানার যোগ ব্যায়ামের প্রবক্তা।
আয়াঙ্গার ২০১৪ সালে মারা যান। তিনি 'আয়েঙ্গার যোগ' নামক যোগ ব্যায়ামের প্রবক্তা। আয়েঙ্গারকে বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ যোগ শিক্ষকদের একজন বলে মনে করা হয়।
সার্চ করে আমরা দেখতে পাই ওই একই ক্লিপ ২০০৯ সালের ১২ জুন টম মার্টিন নামের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা হয়েছে এবং সঙ্গে ক্যাপশন দেওয় হয়েছে, "কৃষ্ণামাচারিয়া ও বি কে এস আয়েঙ্গার ১৯৩৮ সালের যোগ সুত্র সহ, ৬টি পর্যায়ের প্রথম পর্যায়"। ভাইরাল হওয়া ক্লিপটিতে যা শোনা গেছে সেই একই কথা এখানেও শোনা গেছে।

আমরা দেখতে পাই ওই একই ক্লিপ ২০০৬ সালের ১২ মে ইউটিউবে আপলোড করা হয়েছে সঙ্গে শিরোনাম দেওয়া হয়েছে "বি কে এস আয়াঙ্গার ১৯৩৮ সালের নিউজরিল, প্রথম পর্যায় (শব্দহীন)"। সঙ্গে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে যে, এটি ১৯৩৮ সালে আয়েঙ্গারের যোগ অভ্যাসের সময় তোলা হয়েছে।
ক্লিপে যেসব দৃশ্য দেখা যাচ্ছে সেই একই ছবি এবং একই যোগ মুদ্রা ভাইরাল হওয়া ভিডিওতেও দেখা যাচ্ছে।

দ্য আটলান্টিকের করা একটি সংবাদ প্রতিবেদনও আমরা দেখতে পাই যাতে ১৯৩৮ সালের আয়েঙ্গার ও তাঁর শিক্ষক টি কৃষ্ণমাচারিয়ার একটি ক্লিপের উল্লেখ করা হয়। বুম আয়েঙ্গারের নাতনি অভিজাতা আয়েঙ্গারের সঙ্গে যোগাযোগ করে এবং তিনি নিশ্চিত ভাবে জানান যে ভাইরাল হওয়া ক্লিপে যাঁকে দেখা যাচ্ছে তিনি বিকেএস আয়েঙ্গার। তিনি বলেন, "ভিডিওটি বিকেএস আয়াঙ্গেরের এবং ১৯৩৮ সালে পুনের প্রভাত স্টুডিওয় ভিডিওটি তোলেন ড ভিবি গোখলে নামে একজন শল্যচিকিৎসক। প্রভাত স্টুডিও পরে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিসন ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (এফটিআই আই)হয়।"
তুলনা

Updated On: 2020-11-26T13:46:27+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যোগ চর্চা করছেন
Claimed By :  Facebook & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story