লাদাখে ভারতীয় সেনার ২০১২ সালের ব্যানারকে চিনের হুমকি বলে চালানো হচ্ছে

বুম দেখে ছবিটি লেহ'র কাছে প্যাংগং লেক যাওয়ার পথে ২০১২ সালে তোলা হয়েছিল।

লাদাখের প্যাংগং লেকে ভারতীয় সেনার একটি পুরনো ব্যানার, যাতে লেখা 'ফাইট টু উইন' (জেতার জন্য লড়াই) এই বলে শেয়ার করা হচ্ছে যে, ১৫-১৬ জুনে গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন সংঘর্ষের পর, চিন ওই ব্যানারটি লাগিয়েছে।

১৫ জুন রাতে, ভারতীয় ও চিনা সেনার মধ্যে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় 'লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল'-এ (এলএসি) বরাবর তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। খবরে প্রকাশ, সেখানকার গিরিখাদ সম্বলিত এলাকায়, দু' দেশের সেনারা প্রচণ্ড মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন। তার ফলে কয়েক জন সেনা গালওয়ান নদীতে পড়ে যান। তাঁরা পরে হিমাঙ্কের নীচের তাপমাত্রা সহ্য করতে না পেরে মারা যান। এই অঞ্চলে ভারত ও চিনের মধ্যে ওই বড় আকারের সংঘর্ষে, ২০ ভারতীয় সেনা প্রাণ হারান। চিনের দিকে হতাহতের সংখ্যা এখনও জানা যায় নি।
ক্যাপশনে এই বলে ছবিটি শেয়ার করা হচ্ছে যে, "#চিন লাদাখে এই ব্যানারটি লাগিয়েছে, মোদীর প্রতি এক স্পষ্ট বার্তা।"
(মূল ইংরেজি ক্যাপশন: "#China installed this banner in Ladakh , Clear message to Modi.")

একই বক্তব্য সমেত ছবিটি ফেসবুকেও ভাইরাল হয়েছে।

তথ্য যাচাই

বুম ওই ছবিটি নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে। দেখা যায়, ১৭ জুন সিএনএন-এর একটি রিপোর্টের সঙ্গে ওই একই ছবি ছাপা হয়েছিল। তার শিরোনামে লেখা, "বিতর্কিত সীমান্তে চিনের সঙ্গে এক সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সেনা নিহত"। ছবিটির ক্যাপশনে বলা হয়, "২০১২ সালে লাদাখের এক রাস্তার পাশে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি ব্যানার। এই জায়গার সঙ্গে চিন ও পাকিস্তানের সীমান্ত লেগে আছে।" ছবিটিতে গেট্টি ইমেজ ও চিত্রসাংবাদিক ড্যানিয়েল বেরেহলাকের নামের জলছাপও রয়েছে।
ছবিটি আছে গেট্টি ইমেজেসের আর্কাইভে। তার ক্যাপশনে বলা আছে, "ভারতের পার্বত্য রাজ্য লাদাখ।" ৫ অক্টোবর ২০১২ তে সেটি তোলা হয়।

ছবিটির বিবরণে বলা হয়, "৫ অক্টোবর ২০১২ তে, ভারতে লাদাখের কাছে প্যাংগং লেক যাওয়ার রাস্তায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি পোস্টার দেখা যাচ্ছে। উত্তরে কুনলুন পর্বতমালার এবং দক্ষিণে মূল হিমালয়ের মাঝখানে অবস্থিত লাদাখ। এক সময় সেখানে প্রাচীন বৌদ্ধ রাজতন্ত্র ছিল। এবং বিগত ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে সেটি ভারতীয় প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার একটি সামরিক ঘাঁটি হিসেবে থেকেছে। লাদাখের সঙ্গে চিন ও পাকিস্তানের সীমান্ত রয়েছে। ইদানীং কালে, সেখানে পর্যটন শিল্প বৃদ্ধি পেয়েছে। কারণ, নেপালে ট্রেক করার বিকল্প হিসেবে লাদাখকে বেছে নিচ্ছেন অনেক পর্যটক।"
ওই অঞ্চলে কাজ করেছেন এমন একজন সেনা অফিসারের সঙ্গে যোগাযোগ করে বুম। উনি বলেন, ওই ধরনের ব্যানার লাগানো হয়েই থাকে সেখানে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই অফিসার বলেন, ব্যানারটির বাঁ দিকে একটি লোগো আছে। তাতে রয়েছে তিনটি বরফে ঢাকা পাহাড়ের চুড়া আর একটি ত্রিশূলের ছবি। সেটি ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৃতীয় ইনফ্যান্ট্রি ডিভিশনের প্রতীক।
ডান দিকে লেখা ২০৯ হল ওই ডিভিশনের নির্দিষ্ট ইউনিটের নিজস্ব নম্বর।

Updated On: 2020-06-21T13:01:19+05:30
Claim Review :  ছবির দাবি লাদাখে চিন জয়ের জন্য লড়াই লেখা হুুমকি ব্যানার লাগিয়েছে
Claimed By :  Facebook & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story