২০১৮ সালে মহারাষ্ট্রের কৃষক লং মার্চের ভিডিওকে সাম্প্রতিক বল হল

বুম দেখে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি ২০১৮ সালের মার্চ মাসে মহারাষ্ট্রের কৃষকদের লং মার্চের।

ফেসবুকে ২০১৮ সালে মহারাষ্ট্রে কৃষকদের লংমার্চের ভিডিওকে সাম্প্রতিক কৃষকদের প্রতিবাদ বলে শেয়ার করা হচ্ছে। কৃষি সংস্কার বিল ঘিরে সারা দেশজুড়ে বিশেষত হরিয়ানা, পাঞ্জাব, তামিলনাড়ু ও উত্তরপ্রদেশে প্রতিবাদ অব্যাহত। রাষ্ট্রপতি ওই তিনটি বিলে তাঁর সম্মতি জানিয়েছেন।

৪৮ সেকেন্ডের ওই ভিডিও ফেসবুকে শেয়ার করে সাম্প্রতিক কৃষকদের প্রতিবাদের হ্যাশট্যাগ শেয়ার করা হয়েছে। '#ফার্মবিল২০২০, #কিষানবিরোধীনরেন্দ্রমোদী #ফার্মাসপ্রোটেস্ট চ্যালেঞ্জ' প্রভৃতি হ্যাশট্যাগ শেয়ার করা হয়।

ভিডিওটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে


এই ফার্ম বিল সংস্কার ঘিরে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্যসভা। হৈ-হট্টেগোলের মধ্যে ধ্বনি ভোটে পাশ করানো হয়। এক সপ্তাহের জন্য বরখাস্ত হন তৃণমূল কংগ্রেস, সিপিআইএম ও কংগ্রেস সাংসদরা। কৃষক বিক্ষোভে চাপের জেরে এনডিএ জোট সঙ্গী শিরোমনি আকালি দল জোট ছাড়ে। আগেই মন্ত্রীত্ব ছাড়েন খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ মন্ত্রী হরসিমরত কউর বাদল।

আরও পড়ুন: খুলি সহ কৃষকদের প্রতিবাদের এই ছবিটি পুরনো

তথ্য যাচাই

বুম ভিডিওটির কয়েকটি মূল ফ্রেম নিয়ে রিভার্স সার্চ করে দেখে ভাইরাল হওয়া ৪৮ সেকেন্ডের ভিডিওটি হবহু ৮ মার্চ ২০১৮ টুইট করা হয় বিবিসি নিউজ মারাঠির টুইটার হ্যান্ডেল থেকে। ওই টুইটে ডঃ অজিত নাবালের বক্তব্য জুড়ে ক্যাপশন লেখা হয়।

(মারাঠি ভাষায় মূল টুইট: शेतकरी लाँग मार्चची कसारा घाटातील दृश्य, मार्चचा आजचा तिसरा दिवस आहे. (सौजन्य – डॉ. अजित नवले)

প্রাক্তন আরএসএস কর্মী ও বর্তমানে সিপিএম সমর্থিত অল ইন্ডিয়া কিষান সভার নেতা পেশায় আয়ুর্বেদ ডাক্তার ৪০ বছর বয়সী ডঃ অজিত নাবালের সংগঠনিক নেতৃত্বে কৃষকদের ওই মার্চ সংগঠিত হয়।

৯ মার্চ ২০১৮ এবিপির নিউজের রিপোর্টে এই একই ভিডিওর অংশ দেখা যাবে ৮ সেকেন্ডের পর থেকে।

৬ মার্চ নাসিক থেকে এই পদযাত্রা শুরু হয়ে ১২ মার্চ এসে থামে মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানে। ২৫ হাজারের বেশি কৃষক ও ক্ষেতমজুরদের ওই পদযাত্রা ৫০ হাজারে রূপ নেয়। ঋণমকুব, স্বামীনাথন কমিশনের সুপারিশ কর্যকর করা, বনের অধিকার আইনের ঠিকঠাক প্রয়োগ, পেনশন, উৎপাদিত ফসলের সহায়কমূল্য, কীট আক্রমণে নষ্ট হওয়া ফসলের ক্ষতিপূরণ, জমিঅধিগ্রহণ এবং নাসিক, থানে, পালঘর জেলার নদী সংযুক্তকরণ প্রকল্পের বদল প্রভৃতি একগুচ্ছ দবিতে ওই পদযাত্রায় সামিল হন কৃষকেরা।

মহারাষ্ট্রের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ ১২ মার্চ তিন ঘন্টা দীর্ঘ আলোচনায় বসেন কৃষিসংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে। পরের দিন ১৩ মার্চ বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী অল ইন্ডিয়া কিষান সভার সঙ্গে লিখিত প্রতিশ্রুতি পূরণের আশ্বাস দেয়। বিস্তারিত পড়ুন পিপলস আর্কাইভ অফ রুরাল ইন্ডিয়া(পারি)-এর প্রতিবদনে

আরও পড়ুন: অ্যাভিয়ান সারকোমা সারাতে অমিত শাহ নিউইয়র্কে, ভাইরাল হল মিথ্যে বার্তা

Updated On: 2020-10-08T12:55:00+05:30
Claim Review :   ভিডিওর দাবি কৃষকদের লংমার্চ
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story