মিথ্যা: ভিডিও দেখায় করোনাভাইরাস ছড়াতে মুসলিমরা বাসনকোসন চাটছে

বুম দেখে ভিডিওটিতে আসলে বোহরা সম্প্রদায়ের একটি প্রতীকী আচার রয়েছে, যা এক কণা খাবার অপচয় হতে দেয় না। ভিডিওটি পুরনো এবং সাম্প্রতিক করোনাভাইরাস সংক্রমণের সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই।

দাউদি বোহরা সম্প্রদায়ের তরুণরা খাওয়ার পর বাসন চেটে রাখছে, এমন একটি পুরনো ভিডিও ফুটেজকে ভাইরাল করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে, আরও বেশি লোকের মধ্যে করোনাভাইরাসের জীবাণু ছড়িয়ে দিতে মসজিদের ভিতর এই কাণ্ড করা হচ্ছে।

বুম দেখে এটি দাউদি বোহরা সম্প্রদায়ের একটা পুরনো প্রতীকী প্রথা, যার মানে এক কণা খাবার যেন নষ্ট করা না হয়। বর্তমান করোনাভাইরাস সংক্রমণের সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই।

যে হিন্দি ক্যাপশন সহ ফুটেজটি ভাইরাল করা হচ্ছে, তা হলো: "মোল্লারা মসজিদের ভিতরে বসে খালি বাসনকোসন চেটে রাখছে, যাতে করোনাভাইরাসকে আরও ছড়িয়ে দেওয়া যায়। এই মোল্লারা নিজেরা ইতিমধ্যেই করোনায় সংক্রমিত, সরকার এদের ধরপাকড় করছে, চিকিত্সাও করছে> কিন্তু কেন? ভারতে করোনা মহামারি ছড়াচ্ছে না, তা ছড়ানো হচ্ছে। এই ভিডিওতে সেটা দেখুন।"

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের পুরনো ছবি শেয়ার করে মেটিয়াবুরুজে লকডাউন নীতি ভঙ্গ বলা হল


পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

(হিন্দিতে মূল পোস্ট: मस्जिदों में छुपे मुल्ला खाली बर्तनों को झूठा करते हुए ताकि ज्यादा से ज्यादा ये महामारी फ़ैल सके.......... ये मुल्ला पहले से ही KORONA ग्रसित है ये लोग जानते है और सरकार इन्हें पकड़ के इलाज करा रहे है, आखिर क्यों......... भारत में कोरोना फैल नहीं रहा है बल्कि फैलाए जा रहा हैं। देखें वीडियो में)

ফেসবুকেও ভাইরাল

ফেসবুকেও এই ভিডিও ফুটেজটি একই ক্যাপশন সহ ভাইরাল হয়েছে।


গত মাসের শুরুতে পশ্চিম দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিগি জামাতের মরকজে ধর্মীয় সম্মলনে যোগ দিতে আসা অনেকের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার পরই এই ভিডিওটি ভাইরাল করা হয়। ২৪ মার্চ দেশব্যাপী লকডাউন শুরু হওয়ার আগেই কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা এই জমায়েতটি সম্পন্ন হয়। এতে ভারতের বাইরে থেকেও অনেক প্রতিনিধি যোগ দিতে এসেছিলেন এবং দেশের অনেক স্থানেই বড় সমাবেশ বা একসঙ্গে অনেকের ঘোরাফেরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার পরেও এটি আয়োজিত হয়। এখন সরকার এবং মূল ধারার গণমাধ্যমগুলি এই সম্মেলনের আয়োজকদের উপর খড়্গহস্ত। এ বিষয়ে আরও জানতে এখানে পড়ুন।

তথ্য যাচাই

আমরা ভিডিওটিকে মূল কয়েকটি ফ্রেমে ভেঙে নিয়ে অনুসন্ধান করে দেখি, এটি অন্তত ২০১৮ সালের জুলাইয়ের। ওই বছরেরই ৩১ জুলাই ভিমিওতে এটি আপলোড হয়েছিল, যেখানে বলা হয়েছিল, এতে বোহরা সম্প্রদায়ের লোকেদের দেখা যাচ্ছে। তা ছাড়া এই ফুটেজে যে তরুণদের দেখা যাচ্ছে, তাদের মাথার টুপিগুলিও বোহরা সম্প্রদায়েরই মানুষজন পরেন।


ভিডিওটি দেখা যাবে এখানে। ভিডিওটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

বুম দাউদি বোহরা সম্প্রদায়ের 'দানা কমিটি'র সঞ্চালক জোহের আলির সঙ্গে যোগাযোগ করে, যিনি ফুটেজে দেখানো তরুণদের চেনেন। তিনি জানান, "এটি মুম্বইয়ের মারোলে তোলা তিন বছর আগের একটি ভিডিও, যেখানে দেখানো হয়েছে খাবার নষ্ট হওয়া রোধ করতে উচ্ছিষ্ট খাবারও চেটেপুটে সাফ করে ফেলা হচ্ছে। তিনি জানান, এটি দাউদি বোহরা সম্প্রদায়ের অনুশীলন করা একটা প্রতীকী প্রথা, যা প্রতিবার খাওয়া শেষ হবার পর এবং বাসন ধুয়ে ফেলার আগে পালিত হয়ে থাকে। এই প্রথাটি পালন করার উদ্দেশ্য হলো, যেন এক কণা খাবারও অপচয় না হয়, সেটা নিশ্চিত করা। মানুষকে খাদ্যের গুরুত্ব সম্পর্কে, তা সে যত অল্প পরিমাণই হোক—সচেতন করাই এর লক্ষ্য।"

বুম দানা কমিটির একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টও খুঁজে পেয়েছে, যেখানের সব পোস্টেই কণামাত্র খাবারের অপচয়ের প্রতিও চরম অসহিষ্ণুতা দেখানো হয়েছে।

এই ভিডিওটা ২০১৮ সাল থেকেই সোশাল মিডিয়ায় ঘুরছে এবং এটি কোনও সাম্প্রতিক ফুটেজও নয়।( দেখুন এখানে) লালানটপ সে সময় এই ভিডিওটির অপব্যাখ্যার পর্দাফাঁস করেছিল।

Updated On: 2020-04-03T14:12:35+05:30
Claim :   ভিডিও দেখায় মুসলিমরা করোনাভাইরাস ছড়াতে একটি মসজিদে বাসনকোসন চাটছে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.