"শিবসেনাকে ভোট দিতে বাধ্য হয়েছিলাম": কঙ্গনা রানাউতের এই দাবি মিথ্যে

বুম যাচাই করে দেখে ২০১৪ সালের লোকসভা এবং ২০১৯ সালের বিধানসভা ভোটে রানাউতের ভোট কেন্দ্রতে বিজেপি প্রার্থী দিয়েছিল।

টাইমস নাউ নিউজ চ্যানেলে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা রানাউত দাবি করেন যে নির্বাচনের সময় তিনি শিবসেনাকে ভোট দিতে বাধ্য হয়েছিলেন, কারণ ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সঙ্গে তখন শিবসেনার জোট হয়েছিল। এই দাবিটি মিথ্যে, কারণ বিগত দুটি লোকসভা এবং বিধানসভা নির্বাচনে রানাউতের নির্বাচনী কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী দিয়েছিল।

টাইমস নাউ-এর রাজনৈতিক সম্পাদক নভিকা কুমারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রানাউত বলেন যে, তিনি বিজেপিকে বাদ দিয়ে শিবসেনাকে ভোট দিতে বাধ্য হয়েছিলেন কারণ এই দুই দলের মধ্যে তখন জোট হয়েছিল এবং তাঁর নির্বাচনী ক্ষেত্রটি শিবসেনাকে দেওয়া হয়েছিল।

কঙ্গনাকে যখন তাঁর দাবির অন্তঃসারশূন্যতার কথা জানানো হয়, তিনি সেই কথা মানতে রাজি হননি। তিনি বলেন, তাঁর স্পষ্ট মনে আছে, তাঁর পরিবারের সদস্য ও কর্মীরা শিবসেনাকে ভোট দিয়েছিলেন।




ইন্ডিয়া টুডের সাংবাদিক কমলেশ সুতার যখন জানান যে রানাউত ভোট দেন খারের বিপিএম স্কুলের বুথে এবং এটি বান্দ্রা ওয়েস্ট বিধানসভা কেন্দ্র এবং মুম্বই নর্থ সেন্ট্রাল লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে এবং দুই ক্ষেত্রেই বিজেপির প্রার্থী ছিল, কঙ্গনা তখন তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের হুমকি দেন।

রানাউত বলেন যে তিনি বিধানসভা নয়, লোকসভা নির্বাচন প্রসঙ্গে কথা বলছিলেন। সুতার জানান যে রানাউতের এলাকা মুম্বই নর্থ সেন্ট্রাল নির্বাচনী কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে যেখানে ২০১৪ ও ২০১৯ দুটি ভোটেই বিজেপি প্রার্থী দিয়েছিল।

রানাউত এর পর তাঁর টুইট মুছে দেন।

টুইটটির আর্কাইভ এখানে দেখতে পাবেন।


তাঁর সাক্ষাৎকারের ক্লিপ টাইমস নাউ টুইটারে শেয়ার করে। ওই টুইটের আর্কাইভ এখানে দেখতে পাবেন।

ক্লিপটিতে রানাউত বলেন, "আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। আমি যখন বান্দ্রায় ভোট দিতে যাই এবং ভোটিং মেশিনের সামনে দাঁড়িয়ে আমি বিজেপির বোতাম কোথায় তা জানতে চাইছিলাম, কারণ আমি বিজেপি সমর্থক। ওরা আমাকে বলছিল শিবসেনার বোতাম টিপুন। আমি বলি, 'আমি কেন শিবসেনার বোতাম টিপব? আমি তো বিজেপিকে ভোট দিতে চাই?' আমি রাজনীতি বুঝি না। আমি অজ্ঞ। আমি জানি না এই সব দলবাজি কেন করা হয়, তবে আমি বাধ্য হয়েছিলাম শিবসেনার বোতাম টিপতে কারণ ওখানে বিজেপির কোনও অপশন ছিল না। ওই সব অঞ্চলে জোট হয়েছিল এবং শুধু শিবসেনা ছিল। সুতরাং আমি তাদের ভোট দিই।"

ইউটিউবে এই সাক্ষাৎকারের ৩১ মিনিট ৩৩ সেকেন্ডের পর থেকে ভিডিওটি দেখা যাবে।

আরও পড়ুন: ইসলাম নিয়ে আমির খানের ভুয়ো সাক্ষাৎকার শেয়ার করলেন কঙ্গনা রানাউত

তথ্য যাচাই

বুম কঙ্গনা রানাউতের ভোটের তথ্য জানার জন্য নির্বাচন কমিশনের ভোটার ইনফর্মেশন পোর্টালে যায়। সেখানে আমরা দেখি রানাউতের এলাকা বান্দ্রা ওয়েস্ট বিধানসভা কেন্দ্র এবং মুম্বই নর্থ সেন্ট্রাল লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে। রানাউতের ভোট কেন্দ্র বিপিএম হাই স্কুল বলে নির্বাচন কমিশন উল্লেখ করেছে।

বুম ভারতের নির্বাচন কমিশনের ২০০৯ সালের লোকসভা এবং মহারাষ্ট্র বিধানসভা ভোট, ২০১৪ সালের লোকসভা এবং মহারাষ্ট্র বিধানসভা ভোট এবং ২০১৯ সালের লোকসভা এবং মহারাষ্ট্র বিধানসভা ভোটের রিপোর্ট হাতে পায়।

২০০৯ সালে মুম্বই নর্থ সেন্ট্রাল কেন্দ্রে কংগ্রেসের প্রিয়া দত্ত বিজেপির মহেশ জেঠমালানিকে হারিয়ে দেন। তখন শিবসেনার কোনও প্রার্থী ছিল না ওই কেন্দ্রে।

২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনে রানাউতের মুম্বই নর্থ সেন্ট্রাল কেন্দ্রে বিজেপি পুনম মহাজনকে দাঁড় করায় এবং তিনি জিতে যান। পরের বার ২০১৯ সালে তিনি আবার একই কেন্দ্র থেকে জিতে যান।


২০০৯ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বান্দ্রা ওয়েস্ট কেন্দ্রে বিজেপির আশিস শেলার কংগ্রেসের বাবা সিদ্দিকির কাছে পরাজিত হন। শিবসেনা কোনও প্রার্থী দেয়নি।

২০১৪ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির আশিস শেলার কংগ্রেসের বাবা সিদ্দিকি এবং শিবসেনার বিলাস চাউরিকে হারিয়ে বান্দ্রা ওয়েস্ট কেন্দ্রে জিতে যান। শেলার একই কেন্দ্র থেকে ২০১৯ সালে ভোটে দাঁড়ান এবং শিবসেনা সেখনে কোনও প্রার্থী দেয়নি।


আরও পড়ুন: ঊর্মিলা-কঙ্গনা তরজা: আমূলের পুরনো বিজ্ঞাপন জড়াল সাম্প্রতিক বিতর্কে

Updated On: 2020-09-21T10:43:16+05:30
Claim Review :   বিজেপি কঙ্গনা রানাউতের নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থী দিতে পারেনি কারণ আসনটি জোট শরিক শিবসেনাকে বরাদ্দ করা হয়
Claimed By :  Social Media Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story