২০১২ চিনের যানজটের ছবি ছড়াল জার্মানিতে তেলের দাম বাড়ায় প্রতিবাদ বলে

বুম যাচাই করে দেখে জার্মানিতে প্রতিবাদ নয়, আসল ছবিটি ২০১২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর চিনের সেনজঝেঁনের রাস্তায় যানজটের সময় তোলা।

চিনের সেনজঝেঁন শহরে ২০১২ সালে যানজটের ছবিকে মিথ্যে দাবি সহ সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হচ্ছে। ছবিটি শেয়ার করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে জার্মানিতে সমবেত ভাবে জনগণ রাস্তায় গাড়ি ফেলে রেখে প্রতিবাদে অংশ নেই আর তার ফলে পিছু হটতে বাধ্য হয় সে দেশের সরকার, কমায় তেলের দাম।

বুম যাচাই করে দেখে জার্মানিতে তেলের দাম বৃদ্ধিতে প্রতিবাদ নয়, মূল ছবিটি ২০১২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর চিনের সেনজঝেঁনের রাস্তায় উৎসবের মরশুমে যানজটের সময় তোলা।

ফেসবুক ভাইরাল হওয়া গ্রাফিক পোস্টটিতে রাস্তাতে সারি সারি গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। আর তা থেকে বেরিয়ে আসছেন গাড়ির সাওয়ারিরা।

পোস্টটিতে বাংলায় লেখা হয়েছে, ''জার্মান সরকার হঠাৎ করে একদিন পেট্রোলের দাম বাড়িয়ে দেওয়ায়, সেখান কার মানুষ জন, এক ঘন্টার মধ্যে রাস্তার মধ্যে তাদের গাড়ি ফেলে রেখে হঁটে বাড়ি ফিরে ঘটনার প্রতিরোধ করে। রাস্তার মধ্যে লক্ষ লক্ষ গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে সরকার বাধ্য হয়ে তোলের দাম কমায়। এই ধরণের প্রতিবাদ যাদি আমরাও করতে পারি তাদলে দৈনন্দিন হওয়া জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি আটকানো সম্ভব হবে।''

পোস্টটি শেয়ার করে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ''বাঙালি আওয়াজ তুলতে ভুলে গেছে।''

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবি।

তথ্য যাচাই

বুম এই ছবিটিকে ২০১৮ সালের মে মাসে তথ্য যাচাই করেছিল। বুম ছবিকে রিভার্স সার্চ করে মূল ছবিটি খুঁজে পেয়েছে। সেই ছবিতে রাস্তার পোস্টারে জার্মান ভাষা লেখা নেই, তার বদলে মান্দারিন ভাষার সাইনবোর্ড নজরে আসে।

সাটারস্টকের একটি ওয়েবসইট রেক্সফিচার্স-এ দেখা মেলে মূল ছবিটির। ছবিটির শিরোনামে লেখা হয়েছে, ''মাঝ-বসন্তের উৎসব ও জাতীয় দিন উদ্‍যাপনে চিনে যানজট- ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১২।''

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা হয়, ''গুয়ানডং প্রদেশের সেনজঝেঁন শহরে যানজটে লোকজন তাঁদের গাড়ির পাশে দাঁড়িয়ে আছে। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১২।''

রেক্সফিটার্সে থাকা ছবি যা তোলা হয়েছিল ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১২।

(ইংরেজিতে মূল ক্যাপশন: People stand next to their cars during a traffic jam in Shenzhen city, Guangdong province 30 Sep 2012)

ব্রিটিশ সংবাদপত্র দ্য টেলিগ্রাফ-এ ১ অক্টোবর ২০১২ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ওই ট্রফিক জ্যামের কারণ হিসেবে উৎসবের মরশুমে মোটরলেনে টোল না নেওয়ার কারণকে উল্লেখ করা হয়।

১ অক্টেবর ২০১২ প্রকাশিত দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদন।

টেলিগ্রাফ ওই প্রতিবেদনে বলে, ''এক দশকের মধ্যে প্রথমবার চিনে মোটর গাড়ির টোল লাঘব করায় বহু পরিবার তাঁর সুফল নিচ্ছেন আটদিন ব্যাপী জাতীয় ছুটিতে বাইরে বেরিয়ে।"

সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবরের শুরুতে মধ্য-বসন্তের এই শস্য তোলার উৎসব পালন করে চিন ও ভিয়েতনামের লোকজন। একই ভুয়ো দাবি সহ ছবিটি ২০১৭ সালে দ্য স্টার অনলাইন তথ্য-যাচাই করেছে।

আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব আইন-বিরোধী প্রতিবাদের ছবি জুড়ল কৃষকদের "দিল্লি চলো' বলে

Claim Review :   ছবির দাবি তেলের দাম বাড়ায় জার্মানিতে রাস্তায় গাড়ি রেখে প্রতিবাদ
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story