কানহাইয়া কুমার কি অরবিন্দ কেজরিওয়ালের প্রতি কটাক্ষ করেছেন?

বুম দেখে যে, ভাইরাল ভিডিওতে কানহাইয়া কুমার নরেন্দ্র মোদী সম্পর্কে বলছিলেন।

জওহরলাল নেহরু ইউনিভারসিটি ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সভাপতি কানহাইয়া কুমার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রতি কটাক্ষের একটি ভিডিওটি মিথ্যে দাবি সহ আবার ফিরে এসেছে। ভিডিওটিতে শেয়ার করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে যে, কুমার নাকি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সমালোচনা করেছেন তাতে।

২৮ সেকেন্ডের ক্লিপটিতে, কানহাইয়া কুমারকে এক সভায় কথা বলতে দেখা যাচ্ছ। তিনি বারবার একজন নেতার কথা উল্লেখ করেন যিনি 'জনগণের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করতে তাঁর পরিবারকে ব্যবহার করেন'। কুমারের ভাষণ চলাকালে, ক্লিপটির ডান দিকে অন্য একটি ফুটেজ চলতে থাকে, যেখানে কেজরিওয়ালকে তাঁর মায়ের আশীর্বাদ নিতে দেখা যায়। ভিডিওটির ওপরে একটি লেখা দেখা যায়। তাতে বলা হয়, "কানহাইয়া কুমার কেজরিওয়ালের আসল রূপ প্রকাশ করছেন"।

বুম দেখে ভিডিওটি ২ অক্টোবর ২০১৮'য় হায়দরাবাদে তোলা হয়েছিল। সেখানে মায়ের সঙ্গে নিজের ছবি বারবার প্রকাশ করার জন্য নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করেছিলেন কুমার।

টুইটের ক্যাপশনে বলা হয়, "কানহাইয়া কুমার কেজরিওয়ালের মুখোশ খুলে দিচ্ছেন।" টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

কুমারকে ভিডিওতে বলতে শোনা যাচ্ছে, "যখন কাজ হয় না, তখন দৃষ্টি ঘোরাতে উনি ওনার মা আর স্ত্রীর কাছে যান। বলুন তো, এ কি ধরনের ছেলে…মায়ের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করার সময় নিজের ছবি তোলান। একদল চিত্র সাংবাদিকদের নিয়ে উনি মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যান। কোন ধরনের ছেলে এমনটা করে। আমি এরকম ষড়যন্ত্রের বিরোধী। একটা লোক যখন নিজের পরিস্থিতি কে মার্কেটিং করে আসল প্রশ্নগুলিকে আড়াল কারার চেষ্টা করে, তখন সেটা বুঝতে হবে। এবং এ ব্যাপারে আমি সম্পূর্ণ একমত…"

(মূল হিন্দি বয়ান: जो वो काम नहीं किये है, इसी बात को डाइवर्ट करने के लिए वो माता और पत्नी के पास पहुंच जाते हैं| कौन ऐसा बीटा होता है मुझे बताइये तो, माता का पैर छूते हुए फ़ोटो खिचवाता है| कैमरा लेकर माँ से मिलने के लिए जाता है, कौन ऐसा बेटा होता है? इस बात को समझिये मैं उस साज़िश के ख़िलाफ हूँ, के जब कोई इंसान अपनी जो हक़ीक़त है उसका [उसकी] मार्केटिंग करके सवाल को गुमराह करने लगे तो इस साज़िश को हमें समझना चाहिए और इस बात से में पूर्णतह सहमत हूँ...)


ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি নীচে দেওয়া হল।

তথ্য যাচাই

বুম কয়েকটি কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করে। দেখা যায়, হায়দরাবাদে মন্থন ফাউন্ডেশন নামের এক সংগঠন একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করেছিল ২০১৮ সালে। সেখানেই ভিডিওটি রেকর্ড করা হয়। 'মন্থন সংবাদ' নামে পরিচিত ওই বাৎসরিক অনুষ্ঠানে কুমার এক ঠাসা দর্শকবৃন্দের সামনে বক্তৃতা করছিলেন। প্রতিবছর ওই সভায় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের ভাষণ দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ করা হয়।

ওই ভিডিওর ৪৯:৫৪ মিনিট সময় থেকে নরেন্দ্র মোদী সম্পর্কে কুমারকে কথা বলতে শোনা যায়। কোনও এক ব্যক্তির (এখানে, প্রধানমন্ত্রীর) ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে মন্তব্য করা নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন শ্রোতাদের মধ্যে এক মহিলা। উনি গৌতম বুদ্ধ ও তাঁর জাগতিক বন্ধন ত্যাগের কথা উল্লেখ করে, কুমারকে একটি প্রশ্ন করেন। উনি জানতে চান যে, যে ব্যক্তি তাঁর স্ত্রীকে পরিত্যাগ করেছেন, সেই ব্যক্তি সম্পর্কে মন্তব্য করে কি লাভ?

এরপর কুমার একাধিক দৃষ্টান্ত দিয়ে দেখান কিভাবে মোদী নিজেকে বাস্তবের চেয়েও বড় করে দেখান। উনি বলেন: "সকলেরই নিজস্ব জীবনসংগ্রাম আছে। কিন্তু কেউ যদি সেটা বাজারে মার্কেট করেন…আপনার হারার সম্ভাবনা থাকে। কিন্তু আপনার ৯০ বছরের মাকে আপনি নোটবন্দীর সময় লাইনে দাঁড় করাতে পারেন না। কেউ যদি তা করে, তখন সেটা আর ব্যক্তিগত থাকে না, পাবলিক হয়ে যায়। আর যা পাবলিক হয়ে যায়, তার সমালোচনাও হতে পারে। আমি তাঁর মাকে শ্রদ্ধা করি। কিন্তু আমদের উচিৎ, ওই 'হেরে যাওয়া' ছেলের কাজ সম্পর্কে প্রশ্ন তোলা।"

কুমার নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করে বলেন যে, অসমাপ্ত কাজ থেকে দৃষ্টি ঘোরাতেই উনি বারবার পরিবারের কাছে যান। "যেসব কাজ উনি করেননি, সেগুলি আড়াল করতেই উনি তাঁর মা আর স্ত্রীর কাছে যান। এ কি ধরনের ছেলে যে মায়ের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করার সময় নিজের ছবি তোলান। একদল চিত্র সাংবাদিকদের নিয়ে মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যান?"

ওই ভাষণে কুমার কেজরিওয়ালের কোনও উল্লেখ করেননি।

অরবিন্দ কেজরিওয়ালের মায়ের আশীর্বাদ নেওয়ার সাম্প্রতিক ভিডিও

ইতিমধ্যে, ২০ জানুয়ারি একটি ভিডিও তোলা হয়। তাতে নিজের মনোনয়নপত্র জমা করতে যাওয়ার আগে কেজরিওয়ালকে তাঁর মায়ের আশীর্বাদ নিতে দেখা যাচ্ছে। সেটি 'আম আদমি পার্টি ইন নিউজ (@এএপিইননিউজ) টুইটার হ্যাণ্ডেলে আপলোড করা হয়েছে।

Updated On: 2020-01-26T13:47:00+05:30
Claim Review :  কানহাইয়া কুমার অরবিন্দ কেজরিওয়ালের প্রতি কটাক্ষ করেছেন
Claimed By :  Twitter User
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story