'গ্লোবাল টাইমস' জানিয়েছে ৩০ জন চিনের সেনা নিহত—এই বার্তাটি ভুয়ো

বুম গ্লোবাল টাইমস-এ এমন কোনও রিপোর্টের সন্ধান পায়নি যেখানে লাদাখে ভারত-চিন সংঘর্ষে নিহত বা আহত চিনা সেনার সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছে।

একটি ভাইরাল বার্তায় দাবি করা হয়েছে যে, সরকার পরিচালিত 'গ্লোবাল টাইমস'-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় ও চিনা সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষে ৩০ চিনা সেনা মারা যান। কিন্তু দাবিটি মিথ্যে।

১৫ জুন ২০২০ তে, লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে ভারত ও চিনের মধ্যে উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করলে, একজন কমান্ডিং অফিসার সহ ২০ ভারতীয় সেনা মারা যান। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শেয়ার করা হচ্ছে ওই বার্তা। খবরে প্রকাশ যে, ওই সংঘর্ষে চিনা সেনারাও মারা গেছেন। কিন্তু সঠিক সংখ্যা এখনও জানা যায়নি। বেজিং এখনও পর্যন্ত নিহতদের কোনও সংখ্যা প্রকাশ করেনি।

আরও পড়ুন: নিহত চিনা সেনা বলে ভাইরাল হল ৫৬ জন প্রাক্তন পিএলএ জেনারেলের নাম

৩০ সেনার ওই তালিকার সঙ্গে আরও দাবি করা হয়েছে যে, "চিনের পশ্চিম রণাঙ্গনের কমান্ড, যাঁরা ভারতের সঙ্গে সীমান্ত সুরক্ষার দায়িত্বে আছেন, তাঁদেরই মুখপাত্র ভারতীয় সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ৩০ চিনা সৈনিদের নাম প্রকাশ করেছেন।


ওই বার্তাটি সম্পর্কে জানতে চেয়ে, সেটি বুমের হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন নম্বরে (৭৭০০৯০৬১১১) আসে।

'টাইমস নাও' মিথ্যে বার্তাটি ফরওয়ার্ড করে

১৭ জুন ২০২০ তে টাইমস নাও ভাইরাল বার্তাটি তুলে নিয়ে রিপোর্ট করে। তাতে বলা হয়, চিন গালওয়ান উপত্যকায় তাদের ৩০ সেনার মৃত্যুর কথা স্বীকার করেছে। সেই সঙ্গে ভাইরাল বার্তাটিতে যে নামের তালিকা দেওয়া হয়েছিল, তা থেকে পড়ে শোনানো হয়। আর খবরটির সূত্র হিসেবে গ্লোবাল টাইমসের নাম উল্লেখ করা হয়।

সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল

অবসরপ্রাপ্ত মেজর-জেনেরাল জি ডি বক্সি, যিনি একজন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ হিসেবে টাইমস নাও ও অন্যান্য চ্যানেলে আলোচনায় অংশ নেন, তিনিও ভুয়ো ফরওার্ডটি ফেসবুকে শেয়ার করেন।

আর্কাইভ সংস্করণ দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আর্কাইভ সংস্করণ দেখতে এখানে ক্লিক করুন।


ভাইরাল ফরওয়ার্ড থেকে কিছু 'কি-ওয়ার্ড' বেছে নিয়ে, বুম সার্চ করে। কিন্তু নিহত চিনা সেনাদের নামের তালিকা গ্লোবাল টাইমসের কোনও লেখায় পাওয়া যায় না। নীচে-দেওয়া বিষয়গুলি থেকে আমরা নিশ্চিত হই যে, হোয়াটসঅ্যাপে ফরওয়ার্ড-করা মেসেজটি ভুয়ো।

  • কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করেও গুগুলে গ্লোবাল টাইমসের ওই তথাকথিত প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি।

  • ওই তথাকথিত প্রতিবেদনের কোনও আর্কাইভ সংস্করনেরও সন্ধান মেলেনি।

  • কোনও মৃত চিনা সেনা সম্পর্কে গ্লোবাল টাইমসে একটিও টুইট নেই।

  • দাবি করা হলেও, চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ)পশ্চিম রণাঙ্গনের কমান্ডের তরফ থেকে কিন্তু সে রকম কোনও বিবৃতি নেই।

আমরা গ্লোবাল টাইস ওয়েবসাইট ও টুইটের আর্কাইভও খুঁটিয়ে দেখি। কিন্তু ৩০ চিনা মারা গেছে এমন কোনও খবর বা তাদের নামের তালিকা দেখতে পাওয়া যায়নি।

১৭ জুন ২০২০ তে ওয়েবসা্ইটটির ১২ টি আর্কাইভ ছবি আর সেটির টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে দুটি টুইটের ছবি ওয়েব্যাক মেশিনে ছিল। কিন্তু কোনওটাতেই ভাইরাল ফরওয়ার্ডে যা দাবি করা হয়েছে, তা দেখা যায়নি।

তাছাড়া, এ ব্যাপারে পিএলএ-র পশ্চিম রণাঙ্গনের কমান্ডের মুখপাত্রর দেওয়া কোনও বিবৃতিও খুঁজে পাওয়া যায় না।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত, চিন হতাহতের সংখ্যা জানায়নি। সরকার পরিচালিত দৈনিক গ্লোবাল টাইমসের প্রধান সম্পাদক হি শিন ১৬ জুন ২০২০ তে টুইট করে কেবল জানান যে, চিনের দিকেও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

ই-মেল মারফৎ বুম গ্লোবাল টাইমসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। তাঁদের প্রতিক্রিয়া জানতে পারলে, আমরা এই প্রতিবেদন আপডেট করব।

Updated On: 2020-06-23T12:38:07+05:30
Claim Review :   হোয়াটসঅ্যাপ বার্তায় দাবি গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে গালওয়ানে ভারত-চিন সংঘর্ষের সময় ৩০ জন চিনা সেনা নিহত হয়েছে
Claimed By :  Social Media, Times Now
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story