না, মুম্বইয়ে কেউ 'পাকিস্তান জিন্দাবাদ' স্লোগান দেয়নি

বুম অন্য কোণ থেকে তোলা একটি ভিডিও হাতে পেয়েছে, যেখানে সমর্থকদের 'সাজিদ ভাই জিন্দাবাদ' ধ্বনি দিতে দেখা যায়—'পাকিস্তান জিন্দাবাদ' বলেনি কেউ।

সমাজবাদী পার্টির সমর্থকরা মুম্বইয়ে দলের স্থানীয় জেলা সভাপতি সাদিক সিদ্দিকির নামে জয়ধ্বনি দিচ্ছে, এমন একটি ভিডিওকে ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করে বলা হচ্ছে যে, সেখানে নাকি পাকিস্তানের নামে জয়ধ্বনি দেওয়া হচ্ছিল। বুম অন্য একটি ভিডিও হাতে পেয়েছে, যা দেখলে প্রমাণ হয়, সমর্থকরা আসলে সাজিদ ভাইয়ের নামে স্লোগান দিচ্ছিল এবং মুম্বই পুলিশ ও দলের মহারাষ্ট্র শাখার সভাপতি আবু আজমির প্রশংসা করে স্লোগান দিচ্ছিল।

১৪ মে-র ওই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, আবু আজমি এবং সমাজবাদী পার্টির অন্য নেতারা মহারাষ্ট্র পুলিশের সঙ্গে একযোগে ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস থেকে একটি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ছাড়ছেন।

ফেসবুক এবং টুইটার, দু জায়গাতেই ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওটির ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, "মুম্বইতে পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান তোলা হয়েছে এবং এই স্লোগান তোলা হয়েছে রাজ্যের মন্ত্রী আবু আজমির উপস্থিতিতেই, যিনি সমাজবাদী পার্টির কোটায় উদ্ধব ঠাকরে সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য হয়েছেন।"

(হিন্দিতে মূল পোস্ট: #मुंबई में लगे #पाकिस्तान #जिंदाबाद के नारे... #ठाकरे सरकार में #सपा पार्टी के कोटे से मंत्री #अब्बू #आज़मी के सामने लगते रहे पाकिस्तान जिंदाबाद के नारे .)

ভাইরাল হওয়া এরকম একটি পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে

গত ২৪ মার্চ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশ জুড়ে লকডাউন ঘোষণা করায় ভিন রাজ্যে কর্মরত পরিযায়ী শ্রমিকরা সবাই আটকে পড়েন। তাঁদের অনেকেই স্রেফ পায়ে হেঁটেই নিজেদের গ্রামের বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। কিন্তু লকডাউন-এর তৃতীয় পর্যায়ে এসে সরকার তাঁদের ঘরে ফেরানোর জন্য কিছু বিশেষ ট্রেনের বন্দোবস্ত করা হয়েছে।

এমনই একটি বিশেষ ট্রেন যখন পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস স্টেশন থেকে উত্তরপ্রদেশের উদ্দেশে ১৪ মে যাত্রা শুরু করে, তখনই আবু আজমি সেখানে যান।

টুইটারে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে অনেকেই অভিযোগ করেছেন যে, আবু আজমির সামনেই যখন মুম্বইয়ের মাটিতে দাঁড়িয়ে পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়া হচ্ছিল, তখনও তিনি নীরব থাকেন।

টুইটটির আর্কাইভ করা আছে এখানে

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করার অনুরোধ নিয়ে বুম-এর কাছেও হেল্পলাইন নম্বরে বার্তা পাঠানো হয়েছে।


তথ্য যাচাই

বুম এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে যে, ছত্রপতি শিবাজি স্টেশনে পাকিস্তানের নামে কোনও জয়ধ্বনি দেওয়া হয়নি। আমরা একটি টিকটক ভিডিও হাতে পাই, যেখানে আসল ঘটনাটি প্রকাশ করা হয়েছে। ভিডিওটি জাবির খান তাঁর টিকটক অ্যাকাউন্ট ১৫ মে আপলোড করেন।

ভিডিওটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ভিডিওটিতে স্পষ্ট শোনা যাচ্ছে, সমর্থকরা আবু আসিম আজমি, মুম্বই পুলিশ এবং সমাজবাদী পার্টির জেলা-সভাপতি সাজিদ সিদ্দিকির নামে জয়ধ্বনি দিচ্ছে। সমাজবাদী পার্টির সমর্থকদের স্লোগান দিতে শোনা যাচ্ছে "আবু আজমি জিন্দাবাদ", "মুম্বই পুলিশ জিন্দাবাদ" এবং "সাজিদ ভাই জিন্দাবাদ", যখন দলের নেতারা প্ল্যাটফর্মের ওপর দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন।

আমরা আরও একটি ভিডিওর খোঁজ পেয়েছি যাতে জনগণ দলীয় নেতৃত্ব এবং মু্ম্বই পুলিশের নামে জয়ধ্বনি দিচ্ছে। এই ভিডিওটিতে একদল লোককে আবু আজমি, মুম্বই পুলিশ এবং অন্য নেতাদের নামে স্লোগান দিতে শোনা যাচ্ছে। খুব মনোযাগ সহকারে আমরা ভিডিওটি দেখেছি এবং শুনেছি, সেখানে 'সাজিদ ভাই জিন্দাবাদ'ই বলা হচ্ছিল, কেউই 'পাকিস্তান জিন্দাবাদ' স্লোগান তোলেনি, যেমনটা নাকি ভাইরাল হওয়া ভুয়ো পোস্টগুলোয় দাবি করা হয়েছে।

স্লোগান দেওয়া লোকেদের ঠোঁটের নড়াচড়া দেখলেও বোঝা যাচ্ছে, তারা "সাজিদ ভাই জিন্দাবাদ" শব্দগুলোই উচ্চারণ করছে।

ভিডিওটি আপনারা নীচে দেখতে পারেন।

যাঁর নামে জয়ধ্বনি দেওয়া হয়েছে, সেই ব্যক্তি সাদিক সিদ্দিকির সঙ্গেও আমরা কথা বলি, তিনি দক্ষিণ-মধ্য মুম্বইয়ের দলীয় সংগঠনের সভাপতি। তিনি 'পাকিস্তান জিন্দাবাদ' স্লোগানের প্রসঙ্গ উড়িয়ে দিয়ে বলেন, জনতা জয়ধ্বনি দিচ্ছিল দলীয় নেতাদের নামে এবং যারা পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেনে ফেরার বন্দোবস্ত নিশ্চিত করেছে, তাদের নামেও।

তিনি বলেন, লকডাউনে আটকে পড়া শ্রমিকদের বাড়ি ফেরার বন্দোবস্ত যাঁরা করেছেন, দলীয় সমর্থকরা তাঁদের নামেই জিন্দাবাদ ধ্বনি দিচ্ছিলেন। ভিডিওটি ১৪ মে তোলা হয় ছত্রপতি শিবাজি স্টেশনের ১৮ নম্বর প্ল্যাটফর্মে। পাকিস্তানের নামে জয়ধ্বনি দেওয়ার অভিযোগটিকে অদ্ভূত এবং বিচিত্র আখ্যা দিয়ে তাঁর মন্তব্য: "মুম্বই পুলিশের অফিসাররা সেখানে আমাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, এবং যদি সত্যিই কেউ পাকিস্তানের নামে জয়ধ্বনি দিত পুলিশ সঙ্গে-সঙ্গেই তো তাদের গ্রেফতার করতো।"

ভাইরাল ভিডিওর ক্যাপশনে স্টেশনটিকেও ভুল ভাবে শনাক্ত করা হয়েছে—লেখা হয়েছে, ওটা নাকি ওয়াদালা স্টেশন। সিদ্দিকির বক্তব্য: "দূর পাল্লার যাত্রীবাহী ট্রেনগুলি কখনও ওয়াদালা স্টেশন থেকে ছাড়ে না, ছাড়ে ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস থেকে।"

আমরা আবু আজমির সঙ্গেও যোগাযোগ করি এবং তিনিও জানান পাকিস্তানের নামে কোনও জয়সূচক স্লোগান সেদিন ওঠেনি। সেই সঙ্গে নেটিজেনদের তিনি একটি টুইট মারফত সতর্কও করে দেন, যাতে তাঁরা এই ধরনের ভুয়ো খবর বিশ্বাস না করেন।

Updated On: 2020-05-19T14:37:33+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় সমাজবাদী দলের সমর্থকরা দলীয় নেতা আবু অসীম আজমির সামনে ওয়াডালা স্টেশনে পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দিচ্ছে
Claimed By :  Facebook Pages & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story