না, ভাইরাল ছবিটি এয়ার ইন্ডিয়া ওয়ান বিমানের অন্দরসজ্জা নয়

ছবিতে একটি বেসরকারি কোম্পানির চার্টার্ড বোইং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার বিমানের অন্দরসজ্জা দেখা যাচ্ছে।

একটি বেসরকারি চাটার্ড বিমানের ভেতরের ছবি একটা মিথ্যে দাবি সমেত এই বলে শেয়ার করা হচ্ছে যে, সেটি হল 'এয়ার ইন্ডিয়া ওয়ান'-এর ছবি, যে বিমানটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ব্যবহার করবেন।

বুম আগেও এই ছবিটি যাচাই করে মিথ্যে দাবি খণ্ডন করেছিল। সেই সময় বুম দেখেছিল সেটি একটি বোইং ৭৮৭ ড্রিমলাইনারের ছবি। আর এয়ার ইন্ডিয়া-১ হল একটি বোইং ৭৭৭-৩০০ইআর বিমান।
সেটি ভারতের হাতে আসার এক সপ্তাহের মধ্যে ছবিটি শেয়ার করা শুরু হয়। সেই সঙ্গে মিথ্যে দাবিটিকে বিশ্বাসযোগ্য করে তোলার জন্য টাইমস নাও-এর একটি প্রতিবেদনের স্ক্রিনশটও দেওয়া হয়েছে। স্ক্রিনশটটি হল ৮ জুন ২০২০ তারিখে টাইমস নাও-এর প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে নেওয়া্। সেটির শিরোনামে লেখা ছিল, "আএএফ পাইলটরা চালিয়ে আনবে মিসাইল শিল্ড-লাগানো প্লেন: পিএম মোদীর ভিভিআইপি বি-৭৭৭ বিমান সেপ্টেম্বরে আসছে।"
সম্প্রতি, রাহুল গাঁধী পঞ্জাবে কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ কর্মসূচির অঙ্গ হিসেবে ট্র্যাকটর র‍্যালিতে অংশ নেওয়ার সময় গদি পেতে ট্র্যাক্টারে বসেন। তার জন্য কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী সমালোচনা করেন কংগ্রেস নেতার। প্রতিআক্রমণ করে রাহুল গাঁধী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অতি বিলাসবহুল এয়ার ইন্ডিয়া-১ বিমানের দাম ৮,০০০ কোটি টাকা, যা মেটানো হবে করদাতাদের দেওয়া ট্যাক্স থেকে।
এর পর বেশ কিছু কংগ্রেস অনুগামীর অ্যাকাউন্ট থেকে দাবিটি ভাইরাল হতে থাকে।
পোস্ট আর্কাইভ করা আছে
এখানে
পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে
পোস্ট আর্কাইভ করা আছে
এখানে
পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে
তথ্য যাচাই
বুম আগেও, ১ অগস্ট ২০২০ তারিখে, ওই দাবি খণ্ডন করে। তখনও ওই একই ছবি ব্যবহার করে দাবি করা হয়েছিল যে, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ওই বিমান ব্যবহার করবেন।
সেই সময় ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে আমরা 'প্রাইভেট ফ্লাই' নামের একটি কোম্পানির সন্ধান পাই। তারা বেসরকারি ব্যবহারের জন্য বিমান ভাড়া দেয়। সেই কম্পানির ওয়েবসাইটে বোইং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার বিমানের ভেতরের ওই একই ছবি দেখতে পাই আমরা। বিমানটিকে ওই কম্পানি ভাড়া দিয়ে থাকে।
লেখাটি এখানে দেখুন।
নীচে ছবি দু'টি মিলিয়ে দেখার জন্য দেওয়া হল: (বাঁ দিকে) ভাইরাল পোস্টের ছবি; (ডান দিকে) কোম্পানির লেখার সঙ্গে দেওয়া ছবি।

এর পর আমরা এয়ার ইন্ডিয়া-১ সম্পর্কে সংবাদ প্রতিবেদনের সন্ধান করি। এবং দেখা যায়, ভাইরাল ছবির সঙ্গে ওই প্রতিবেদনের ছবিতে প্রচুর ফারাক আছে। একমাত্র নিউজ-১৮ ও টাইমস নাও এয়ার ইন্ডিয়া-১ বিমানের ভেতরের ছবি পায়।
নিউজ-১৮-এর সংগ্রহ করা এয়ার ইন্ডিয়া-১-এর ভেতরের ছবির একটা কোলাজ দেওয়া হল নীচে।
বসার সিটের ডিজাইন ও ভেতরের সজ্জার মধ্যে বিস্তর অমিল লক্ষণীয়। কাঠের প্যানেল ও টেবিলগুলির রঙও আলাদা। তাছাড়া সিটের সংখ্যা এবং সিটগুলি যে ভাবে রাখা আছে তা ভাইরাল ছবির সঙ্গে মেলে না।


Claim Review :   ছবির দাবি ভারতের প্রধানমন্ত্রীর জন্য নতুন কেনা বোয়িং ৭৭৭ বিমানের ভেতরের দৃশ্য
Claimed By :  Social Media Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story