কৃষি আইনের বিরুদ্ধে জাস্টিন ট্রুডোর ধর্না বলে ছড়াল পুরনো ছবি

বুম দেখে ছবিটি ২০১৫ সালে তোলা হয়, যখন দেওয়ালি উপলক্ষ্যে তিনি অটোয়া শহরে একটি গুরুদোয়ারাতে গিয়েছিলেন।

২০১৫ সালে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন জাস্টিন ট্রুডোর দেওয়ালি উপলক্ষ্যে অটোয়ার একটি গুরুদোয়ারার অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার ছবি সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে মিথ্যে দাবি করা হচ্ছে ভারতে নতুন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে শিখ সম্প্রদায়ের প্রতিবাদ আন্দোলনে ট্রুডো অংশ নিয়েছেন।

ভারতীয় জনতা পার্টি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার সম্প্রতি যে নতুন কৃষি আইন এনেছেন, সেটির বিরোধিতা করতে পঞ্জাব ও হরিয়ানা থেকে কয়েক হাজার কৃষক এখন দিল্লিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তার মধ্যে অনেকেই, দিল্লির সীমান্তে ক্যাম্প করে অবস্থান করছেন। পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীর কাঁদানে গ্যাস, লাঠি চার্জ আর ব্যারিকেড উপেক্ষা করে কৃষকরা তাঁদের দাবিতে অনড় রয়েছেন।

শিখ সম্প্রদায়ের সঙ্গে জাস্টিন ট্রুডোর ছবিটি সহ পোস্টগুলি অল্প সময়ের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। ক্যাপশনে বলা হয়, উনি প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন এবং ধর্নায় বসেছেন। হিন্দিতে লেখা ক্যাপশনে বলা হয়েছে, "চাষি ভাইদের সমর্থনে কানাডার প্রধানমন্ত্রী ধর্নায় বসেছেন।"

(হিন্দিতে লেখা ক্যাপশন: "किसान" भाईयो के "समर्थन" मे धरने पर बैठे "कनाडा" के प्रधानमंत्री! इसको कहते है विदेश मे डंका बजना!)

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ভারত সরকার যে ভাবে কৃষক বিক্ষোভের মোকাবিলা করছে, তার সমালোচনা করে মন্তব্য করার পরই জাস্টিন ট্রুডোর ছবিটি শেয়ার করা হচ্ছে। ট্রুডোর মন্ত্রিসভায় তিনজন শিখ মন্ত্রী আছেন। এবং ট্রুডো শিখ সম্প্রদায়ের একজন সক্রিয় সমর্থক। গুরু নানক জয়ন্তী উপলক্ষে এক অনলাইন ভাষণে ট্রুডো বলেন, "বিক্ষোভকারীদের পরিবার ও বন্ধুদের সম্পর্কে আমরা সবাই চিন্তিত। আমি মনে করিয়ে দিতে চাই যে, কানাডা শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করার অধিকার সম্পর্কে সব সময় সজাগ থেকেছে। আলোচনার গুরুত্বের ওপর আমরা আস্থা রাখি। এ ব্যাপারে আমরা ভারতীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেছি।"

ট্রুডোর মন্তব্য নতুন দিল্লিতে উষ্মা সৃষ্টি করেছে। ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের এক মুখপাত্র তাঁর ওই মন্তব্যকে 'সঠিক তথ্য না জানার ফল', 'অযাচিত' এবং 'একটি গণতান্ত্রিক দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় সম্পর্কে' বলে বর্ণনা করেন।

আরও পড়ুন: কৃষক বিক্ষোভ: ২০১৮ সালে নিহাঙ্গ শিখ মিছিলের ভিডিও সাম্প্রতিক বলে ছড়াল

তথ্য যাচাই

আমরা ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। দেখা যায়, ২০১৫ সালে, দেওয়ালি উপলক্ষে অটোয়ার এক গুরুদোয়ারায় আয়োজিত অনুষ্ঠান দেখতে ট্রুডো সেখানে গেলে, ছবিটি তোলা হয়।

আমরা দেখি, হিন্দুস্থান টাইমস ২৪ নভেম্বর ২০১৫-তে একটি লেখার সঙ্গে ওই একই ছবি প্রকাশ করে। লেখাটির শিরোনামে বলা হয়, 'দেওয়ালিতে কানাডার পিএম জাস্টিন ট্রুডো মন্দির, গুরুদোয়ারায় যান।' কীভাবে ট্রুডো হিন্দু মন্দির আর গুরুদোয়ারায় গিয়ে ইন্দো-কানাডিয়ান সম্প্রদায়ের সঙ্গে দেওয়ালি উদযাপন করেন, সে কথাই বলা হয় ওই লেখায়।

ওই প্রতিবেদনে, ছবিটির জন্য রয়টার্সকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। রয়টর্স-এর ওয়েবসাইটে সার্চ করলে, ২০১৫-র ওই ছবিটি দেখতে পাওয়া যায়। ক্যাপশনে বলা হয, কানাডার অটোয়া শহরে 'গুরুদোয়ারা সাহেব অটোয়া শিখ সোসাইটি'-তে ছবিটি তোলেন প্যাট্রিক ডয়েল। ক্যাপশনে বলা হয়, উৎসবের দিন, ১১ নভেম্বর ২০১৫ ছবিটি প্রকাশিত হয়।


রয়টর্সের ওয়েবসাইটে ছবিটি দেখা যাবে এখানে

গুরুদোয়ারাটিতে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানের আরও ছবি প্রকাশ করে রয়টার্স। সেগুলিতেও ট্রুডোকে মাথায় লাল বাঁধনা/পার্কা পরে থাকতে দেখা যায়।


Claim Review :   ছবি দেখায় চাষীদের প্রতিবাদের সমর্থনে জাস্টিন ট্রুডো ধর্নায় বসেছেন
Claimed By :  Facebook Pages & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story