বাংলাদেশে নর্দমা থেকে খাবার তুলে খাওয়া এক ব্যক্তির ছবি ভাইরাল হয়েছে ইউপির বলে

বুম দেখে ছবিটি বাংলাদেশের এবং সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকেই সেটি অনলাইনে রয়েছে।

বাংলাদেশে নর্দমা থেকে খাবার তুলে খাচ্ছে এক লোক, এমনই একটি অস্বস্তিকর ছবি উত্তরপ্রদেশের বলে ভাইরাল হয়েছে সোশাল মিডিয়ায়।

লোকটিকে নর্দমা থেকে ফেলে দেওয়া খাবার কুড়িয়ে খেতে দেখা যাচ্ছে। আর সেই ছবিকে ব্যবহার করে ভারতে যেন চরম দরিদ্রতা, জাতিবৈষাম্য ও শোষণ রয়েছে—এমনই এক ধারণা তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে।

একটি ভাইরাল টুইটে বলা হয়েছে, "উত্তরপ্রদেশের কাশীতে পেরিয়ারকে বাধ্য হয়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়া খাবার কুড়িয়ে খেতে হয়েছিল (১৯৪০)। কারণ উনি ছিলেন শূদ্র। উত্তরপ্রদেশে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানের ফেলে দেওয়া খাবার তুলে খাচ্ছে একজন শ্রমিক (২০১৯) স্বাধীনতার ৭৫ বছর পর!!" কাশী এখন বারাণসী বলে পরিচিত এবং সেটি একটি গুরত্বপূর্ণ হিন্দু ধর্মস্থান।

একই বয়ান সমেত ছবিটি ফেসবুকেও ভাইরাল হয়েছে। সেরকমই একটি ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

বুম দেখে যে, ছবিটি উত্তরপ্রদেশের নয়। ওই ছবিতে ফুটপাথের পাশে রাখা একটি গাড়িতে বাংলাদেশ পুলিশের লোগো এবং বাংলায় 'পুলিশ' শব্দ লেখা আছে। গাড়িতে লাগানো লোগোটির সঙ্গে বাংলাদেশ পুলিশের লোগোটিও মিলিয়ে দেখে বুম। দেখা যায় ওই লোগো দুটি এক।


একটি ভিডিওরও সন্ধান পায় বুম। সেখানে লোকটিকে পরে খাবে বলে খাবার সরিয়ে রাখতে দেখা যাচ্ছে।

ছবিটি ২০১৮ সাল থেকে ইন্টারনেটে আছে। ২০১৯'এ একটি ব্লগপোস্টেও ব্যবহার করা হয়েছিল ছবিটি।

Claim Review :  উত্তরপ্রদেশের কাশীতে আস্তাকুড় থেকে খাবার খাওয়া ব্যক্তির ছবি
Claimed By :  Twitter post and Facebook Pages
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story