জেএনইউ-এর ঐশী ঘোষের কপালের চোট সাজানো? ভাইরাল হল মিথ্যে দাবি

বুম যাচাই করে দেখেছে যে অন্যান্য ছবিতে ঐশী ঘোষের কপালে আঘাতের দাগ স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে।

জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিষদের সভাপতি ঐশী ঘোষের একটি ছবি মিথ্যে দাবির সঙ্গে ভাইরাল হল সোশাল মিডিয়ায়। ছবিটিতে ঐশীর কপালে আঘাতের চিহ্ন দেখা যাচ্ছে না। ভাইরাল পোস্টে দাবি করা হয়েছে, ৫ জানুয়ারি জেএনইউ-তে হামলার ঘটনায় কপালে গুরুতর আঘাত লেগেছিল বলে ঐশী যে দাবি করেছিলেন, সেটি মিথ্যে, কারণ এই ছবিতে তাঁর কপালে কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই।

জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে সশস্ত্র দুষ্কৃতীরা হামলা করে, ছাত্র ও শিক্ষকদের ওপর চড়াও হয়। ঐশী ঘোষও সে ঘটনায় গুরুতর আহত হন। আহত ঐশীর কপাল থেকে প্রবল রক্তপাত হচ্ছে, এমন একটি ছবি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি) বিরুদ্ধে আন্দোলনে নতুন গতি আনে।

২০২০ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ব্যাঙ্গাত্মক টুইটার হ্যান্ডেল লাইমস অফ ইন্ডিয়া ঐশী ঘোষের দুটি ছবির একটি সেট শেয়ার করে লেখে, 'আসল বিদ্রহিনী: ঐশী ঘোষকে দেখুন, তিনি যে কোনও স্বাভাবিক মানুষের চেয়ে দ্রুত আরোগ্য লাভ করেছেন।'

আরও পড়ুন: জেএনইউ ছাত্রী ঐশী ঘোষের হাতের চোট কি সাজানো? একটি তথ্য যাচাই

এই টুইটটিতে দুটি ছবির একটিতে আহত ঘোষকে দেখা যাচ্ছে অন্যটিতে সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর এক জন সাংবাদিকের সঙ্গে তাঁকে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে। দ্বিতীয় ছবিটিতে ঘোষের কপালে কোনও আঘাতের চিহ্ন দেখা যাচ্ছে না।

লাইমস অফ ইন্ডিয়ার টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টকার্ড নিউজের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মহেশ বিক্রম হেগড়ে দুটি ছবির একই রকম একটি সেট টুইট করেছেন যার একটিতে ঐশী ঘোষের মাথা থেকে প্রচুর রক্তপাত হতে দেখা যাচ্ছে, আর অন্যটিতে তাঁকে এক জন সাংবাদিকের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে। এই ছবিদুটির সঙ্গে লেখা রয়েছে, "ইনি হলেন জেএনইউ-এর ঐশী ঘোষ... ছবি ১: কয়েক সপ্তাহ আগে তিনি বলেছিলেন তাঁর মাথায় ১৬টি সেলাই পড়েছে... ছবি ২: এখন তাঁর মাথায় একটাও সেলাই-এর দাগ দেখা যাচ্ছে না... আমার মনে হয় স্বয়ং ভগবান তাঁর চিকিৎসক।'

হেগড়ের টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

একই দাবির সঙ্গে একই ছবির সেট ফেসবুকেও শেয়ার করা হয়েছে।

দ্য স্কিন ডক্টরের করা একটি ফেসবুক পোস্টেও ঘোষের একই ছবির সেট শেয়ার করা হয়েছে।



তথ্য যাচাই

বুম ঐশী ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান যে ওই ছবিটি সম্প্রতি তোলা হয়েছে এবং তাতে তাঁর কপালে এমন ভাবে আলো পড়েছে যে সেলাইয়ের দাগ দেখা যাচ্ছে না।

তিনি আমাদের অন্য একটি ছবিও পাঠান যাতে সেলাইয়ের দাগ পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে।


জেএনইউএসইউ-এর সভাপতি আমাদের অন্য একটি ছবি পাঠিয়েছেন, যেটিতে সূর্যের আলোর জন্য সেলাইয়ের দাগ প্রায় দেখাই যাচ্ছে না। যেহেতু এটি মোবাইলের ফ্রন্ট ক্যামেরা ব্যবহার করে তোলা সেলফি, তাই এটি আসল ছবির প্রতিবিম্বের মতো দেখাচ্ছে।

যদিও অন্য ছবিটি যাতে ঘোষকে আঘাতের চিহ্ন ছাড়া দেখা যাচ্ছে সেটি আমরা শনাক্ত করতে পারিনি। তবে বুম অন্য ছবি খুঁজে পেয়েছে যাতে ঐশীকে একই পোষাক পরে দেখা যাচ্ছে। ২০২০ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে সিএএ এবং এনএরসি বিরোধী প্রতিবাদে অংশ নিতে ঐশী কলকাতায় এসেছিলেন। এই বিষয়ে আরও পড়ুন এখানে









Updated On: 2020-02-28T09:57:41+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি ঐশী ঘোষের মাথার চোট সাজানো ও মাথায় কোনও সেলাইয়ের দাগ নেই
Claimed By :  Mahesh Vikram Hegde
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story