সুপ্রিম কোর্টের লোগোতে কখনও 'সত্যমেব জয়তে' কথাটি লেখা ছিল না

বুম অনুসন্ধান করে দেখে সুপ্রিম কোর্টের লোগোতে প্রথম থেকেই 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়' পংক্তি সংস্কৃত ভাষায় খোদাই করা ছিল।

ইদানীং একটি দাবি করা হয়েছে যে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের বাণী আগে 'সত্যমেব জয়তে' (একমাত্র সত্যের জয় হবে) ছিল, কিন্তু এখন তা বদলে হয়ে গেছে 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়' (যেখানে ধর্ম আছে সেখানে জয় নিশ্চিত)। এই দাবি একেবারেই সত্যি নয়। শীর্ষ আদালতের বাণী সব সময়ই ছিল 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়'।

বুম অনুসন্ধান করে দেখেছে শীর্ষ আদালতের জাতীয় প্রতীকের চিহ্নের নীচে প্রথম থেকেই লেখা ছিল 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়', যা কখনও বদলানো হয়নি। কোর্ট এই কথার অর্থ বর্ণনা করেছে 'আমি শুধুমাত্র সত্যের ধারক'।

বর্ষীয়ান সাংবাদিক পুণ্য প্রসুন বাজপেয়ী শীর্ষ আদালতের জাতীয় প্রতীকের ছবি টুইট করেছেন এবং সঙ্গে হিন্দিতে ক্যাপশন দিয়েছেন, "সুপ্রিম কোর্টের চিহ্ন বদলে দেওয়া হয়েছে। 'সত্যমেব জয়তে' থেকে বদলে 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়' করা হয়েছে।"

হিন্দিতে লেখা মূল টুইট: ""सुप्रीम कोर्ट का चिन्ह बदल गया....'सत्यमेव जयते' की जगह।।यतो धर्मस्ततो जय:।।)

যখন বাজপেয়ীকে জানানো হয় যে সুপ্রিম কোর্টের লোগোতে প্রথম থেকেই 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়' পংক্তিটি লেখা ছিল, তখন তিনি টুইটটি মুছে দেন।

তবে, তার পর থেকে এই দাবিটি টুইটারে বহু বার শেয়ার করা হয়েছে।


টুইট দুটি আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে

বুম তার হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইনেও (৭৭০০৯০৬১১১) তথ্য যাচইয়ের জন্য একই দাবি সহ বার্তাটি পায়।


তথ্য যাচাই

সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে যেখানে সুপ্রিম কোর্টের ইতিহাস অংশটি রয়েছে বুম তা খুঁজে বার করে। সেখানে সুপ্রিম কোর্টের ইতিহাসের উপর একটি নিবন্ধ দেখতে পাওয়া যায়। "সুপ্রিম কোর্টের ধর্ম চক্র লোগো" শিরোনামের ওই অংশটিতে শীর্ষ আদালতের লোগো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

ওই লেখাতে বলা হয়েছে যে এই লোগোটি সারনাথে সম্রাট অশোকের সিংহ স্তম্ভ থেকে নেওয়া হয়েছে। লোগোতে দেখা যায় সারনাথের সিংহের উপর অশোক চক্র এবং তার নীচে यतो धर्मस्ततो जय: ('যতো ধর্মস্ততঃ জয়') কথাটি লেখা রয়েছে।


ওয়েবপেজ আর্কাইভ, দ্য ওয়েব্যাক মেশিনের ওয়েবসাইটে বুম সুপ্রিম কোর্টের পুরানো ওয়েবসাইটটি দেখতে পায়।

এর পর বুম সুপ্রিম কোর্টের সংগ্রহশালা অংশের ওয়েবপেজের আর্কাইভ হাতে পায়। এখানে সব চেয়ে পুরানো আর্কাইভ ছিল ২০০৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি মাসের। এই সংগ্রহশালার জন্য ভারতের তৎকালীন মুখ্য বিচারক ভি এন খারে্র লেখা একটি বার্তা দেখতে পাওয়া যায় যা 'মেসেজ ট্যাবে' আপলোড করা হয়। ওই বার্তার লেটার হেডে সুপ্রিম কোর্টের প্রতীক দেখতে পাওয়া যায়, যার তলায় লেখা আছে 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়'।


এ ছাড়া আমরা হিন্দুস্তান টাইমসের এক চিত্র সাংবাদিকের ২০১৯ সালে তোলা সুপ্রিম কোর্টের প্রতীকের একটি ছবি গেটি ইমেজে দেখতে পাই। ছবিটির ধাতব প্রতীকে দেখা যায় সারনাথের সিংহের নীচে খোদাই করে লেখা রয়েছে 'যতো ধর্মস্ততঃ জয়'।


প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর তথ্য যাচাই বিভাগ- পিআইবি ফ্যাক্টচেক এই দাবির সত্যতা আগেই যাচাই করেছে এবং এটিকে মিথ্যা বলে প্রমাণ করেছে।

Updated On: 2020-08-28T15:25:00+05:30
Claim Review :   ভারতের সুপ্রিম কোর্ট তার প্রতীকে সত্যমেব জয়তে বদলে যতো ধর্মস্ততঃ জয় করেছে
Claimed By :  WhatsApp & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story