ভারতের বলে বাংলাদেশের এক মহিলাকে হেনস্থা করার ভিডিও শেয়ার করা হল

বুম দেখে ভিডিওটি ২০১৮ সালের। বাংলাদেশে এক মহিলাকে তাঁর পুরুষ সঙ্গীর সঙ্গে ঘোরার জন্য উত্যক্ত করা হয়।

ভারতে মহিলাদের নিরপত্তার প্রসঙ্গ তুলে লোকগুলির গ্রেপ্তারি দাবি করে শেয়ার করা হচ্ছে ভিডিওটি। ক্লিপটি এক নির্জন রাস্তায় তোলা। দেখা যাচ্ছে, তাঁর পুরুষ বন্ধুর সঙ্গে ঘোরার জন্য এক দল নীতি-পুলিশ মহিলাকে হেনস্তা করছে।

ভাইরাল ক্লিপটি নীচে দেওয়া হল। এই লেখাটি লেখার সময়, ভাইরাল ক্লিপটি ১.৬ লক্ষ বার দেখা হয়েছিল। টুইটটির আর্কাইভ সংস্করণ দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

একই ক্যাপশন সহ ওই ফুটেজ ফেসবুকেও শেয়ার করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: বিশ্বের গহন কালো সৌন্দর্য কি গিনেস বুকে নাম তুললো? ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল

তথ্য যাচাই

বুম নিশ্চিত হতে পেরেছে যে, ভাইরাল ফুটেজটি বাংলাদেশে তোলা। কারণ, লোকগুলির কথার উচ্চারণে বাংলাদেশের স্থানীয় উচ্চারণের টান স্পষ্ট। ফুটেজের ৪২ সেকেন্ডের মাথায় শোনা যাচ্ছে একটি লোক মহিলার ঠিকানা জানতে চাইছে। সে বলছে, "বাসা কোথায়, আমার কাছে বল? আরও একটু পরে লোকটি আবার ওই মহিলার নাম ও ঠিকানা জানতে চায়।

১.৪৫ সেকেন্ডের মাথায়, লোকটি আবার জিজ্ঞেস করে, "তোমার নাম কি? বাসা কোথায়? তোমার বাসা কি টেকেরহাটে? তাঁর বাড়ি টেকেরহাটে, মহিলা এ কথা বললে, ওই উত্যক্তকারী জানতে চায়, "কোন জায়গায় টেকেরহাট?" এর পর একজনকে বলতে শোনা যায়, "যে জায়গায় হোউক, টেকেরহাট তো।"

টেকেরহাট সার্চ করলে দেখা যায় সেটি বাংলাদেশের ঢাকা ডিভিশনের মাদারিপুর জেলার রাজয়ের উপজেলার একটি জায়গা। বুম বাংলাদেশ টিমের সদস্যরা এ ব্যাপারে নিশ্চিত করে।
তাছাড়া, ফুটেজটি থেকে আমরা কয়েকটি প্রধান ফ্রেম বেছে নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। তার ফলে ওই একই ঘটনার একটি বড় ফুটেজের সন্ধান পাওয়া যায়
। সেটি আরিয়ন আপন বাহার নামের ফেসবুক পেজে গত বছর জুলাইয়ে আপলোড করা হয়।
ওই বড় ফুটেজটির কথোপকথন থেকে বোঝা যায় যে, মহিলা তাঁর এক পুরুষ সঙ্গীর সঙ্গে যখন ছিলেন, তখন এক দল লোক জানতে চায় কেন তারা ওই এলাকায় একা একা ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তাঁদের কথাবার্তা থেকে বোঝা যায় যে, মহিলার পুরুষ সঙ্গীটি তাঁকে ফেলে চলে গেছে। এবং প্রকাশ্যে একজন পুরুষের সঙ্গে ঘুরে বেড়ানর জন্য মহিলাটিকে তারা তিরস্কার করে। তারা তাঁর বাবার ফোন নম্বর চায় এবং তাঁর নিজস্ব ব্যবহারের জিনিসগুলি হাতড়ে তাঁর চেনাশোনাদের সম্পর্কে তথ্য বার করার চেষ্টা করে। যাতে তাঁরা এই "অনৈতিক কাজ' সম্পর্কে তাঁর বাড়িতে খবর দেওয়া যায়।

ভিডিওটি নভেম্বর ২০১৮-য় ইউটিউবে আপলোড করা হয়। ক্যাপশনে বলা হয়, "হিজাব পরা মেয়ে দেখে কি করল''।

ভিডিওটি কবে তোলা হয়েছিল, সে ব্যাপারে বুম নিশ্চিত হতে পারেনি। কিন্তু সেটি যে পুরনো এবং বাংলাদেশে তোলা, তা নিয়ে কোনও সংশয় নেই।

অতিরিক্ত রিপোর্টিং: কদরুদ্দীন শিশির, বুম বাংলাদেশ

আরও পড়ুন: ২০১৩ সালে বাংলাদেশের হিংসাত্মক বিক্ষোভকে কেরলের ঘটনা বলে ছড়ানো হচ্ছে

Claim Review :  ভিডিওতে দেখায় যে সংঘের সদস্যরা ভারতের এক মুসলিম মহিলাকে হেনস্থা করছে
Claimed By :  Twitter users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story