ঘূর্ণিঝড় ফণীর ভিডিওকে আমপানে'র তাণ্ডবের দৃশ্য বলে চালানো হচ্ছে

বুম দেখে ভিডিওটি ২০১৯ সালের মে মাসের, যখন ঘূর্ণিঝড় ফণী উড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়েছিল।

উড়িশার একটি গাড়ি পার্কিং এর ছাউনি ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রবল বাতাসে উড়ে চলে যাওয়ার একটি ভিডিও দৃশ্যকে পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিক আমপান ঘূর্ণিঝড়ের দৃশ্য বলে প্রচার করা হচ্ছে। বুম দেখেছে, ভিডিওটি ২০১৯ সালের মে মাসে তোলা, যখন ওড়িশার উপকূলে ফণী নামের ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়েছিল।

ভিডিওটির ক্যাপশনে বলা হয়েছে, এটি পশ্চিমবঙ্গের আমপানের তাণ্ডবের দৃশ্য। দীঘা পশ্চিমবঙ্গের সমুদ্র উপকূলবর্তী একটি জনপদ, যেখানে ২০২০ সালের ২০ মে আমপান ঘূর্ণিঝড় ডাঙায় হামলে পড়ে। পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলা এই ঝড়ে প্রবলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যেখানে বিদ্যুৎ সংযোগ সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে এবং অন্তত
১০০ জনের মৃত্যুও হয়েছে
ফেসবুকে শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ওড়িশার এই ঘূর্ণিঝড়ের ধবংসলীলাই নাকি আসলে পশ্চিমবঙ্গের উপকূল শহর দীঘায় আমপানের ধ্বংসের ছবি:


তথ্য যাচাই

ভিডিওটির থেকে কয়েকটি মূল ফ্রেম বের করে নিয়ে সেগুলির খোঁজ করে দেখা গেছে, এগুলি উড়িশা উপকূলে ২০১৯ সালে আছড়ে পড়া ঘূর্ণিঝড় ফণীর ধ্বংসের ছবি। ২০১৯ সালের ৫ মে তারিখেও একজন এই ভিডিওটিকে ফণী-র তাণ্ডবের দৃশ্য বলেই টুইট করেছিলেন এবং গণমাধ্যমে সেটি প্রকাশিতও হয়েছিল।

দ্য ইকনমিক টাইমস-ও ফণী নিয়ে তার ভিডিও প্রতিবেদনে এই ক্লিপিংসটি ব্যবহার করে। ৩ মে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে ইকনমিক টাইমস লেখে, "ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় ফণী (যার অর্থ সাপের ফণা) প্রবল গতি নিয়ে উড়িশার পুরীতে সকাল ৮টা নাগাদ আছড়ে পড়ে, যার প্রবল শক্তিতে এই তীর্থনগরীর অনেক কুঁড়েঘর ভেঙে মাটিতে মিশে যায়, গোটা শহর বৃষ্টিতে প্লাবিত হয় এবং অনেক বাড়িও ডুবে যায়।"


ওই বছর মে মাসেই কয়েকটি ইউটিউব চ্যানেলে এই একই ভিডিও আমরা আপলোড হতে দেখতে পাই।

Updated On: 2020-05-24T15:23:48+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় পশ্চিমবঙ্গের দিঘায় ঘূর্ণিঝড় আমপানের ধ্বংসলীলা
Claimed By :  Social Media Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story