ডিএমকে নেতার মহিলাকে হেনস্থার পুরনো ভিডিওকে চিকিৎসকের উপর হামলা বলা হল

বুম দেখে যে নির্যাতিতা এই মহিলা চিকিৎসক নন, তিনি তামিলনাডুর একটি বিউটি পার্লারের মালিক।

তামিলনাডুতে একটি সিসিটিভিতে রেকর্ড হওয়া ডিএমকে নেতা কর্তৃক একজন মহিলার শারীরিক হেনস্থার অনান্দনিক ভিডিওকে ভাইরাল পোস্টে ঐ রাজ্যে কর্মরত চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনা বলা হল। বুম দেখে যে, ভাইরাল ক্লিপটি ২০১৮ সালের একটি ঘটনার এবং আক্রান্ত মহিলা পেশায় চিকিৎসক নন। আক্রমণকারী হলেন একজন স্থানীয় ডিএমকে নেতা। এই ঘটনার জন্য তাঁকে পার্টি থেকে বহিষ্কার হয় এবং পরে গ্রেপ্তারও করা হয় তাঁকে।

দুই মিনিটের ওই ভাইরাল ক্লিপে সাদা শার্ট আর 'ভেস্তি' পরা এক ব্যক্তিকে একজন মহিলাকে লাথি আর থাপ্পড় মারতে দেখা যাচ্ছে, আর চারপাশে দাঁড়িয়ে থাকা লোকজন তাঁকে থামানোর চেষ্টা করছেন। এই ঘটনাটি একটি ঘরের মধ্যে ঘটে, যেখানে বেশ কিছু চেয়ার পড়ে থাকতে দেখা যায়। ভাইরাল ক্লিপটির সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে উচ্চ গ্রামের বাজনা।

ক্লিপটির সঙ্গে দেওয়া ক্যাপশনে বলা হয়েছে, "ডিএমকে পার্টির নেতা সেলভা কুমার একজন কর্মরত মহিলা ডাক্তারকে লাথি মারেন। সব গ্রুপের কাছে এটি ফরওয়ার্ড করতে থাকুন যতক্ষণ না ওনার শাস্তি হচ্ছে। মোদীজি, আইন যে সব নাগরিকের জন্য এক, সে কথা প্রমাণ করার সুযোগ এটা।"

আরও পড়ুন: গুগল ম্যাপ কি ভারত-পাক নিয়ন্ত্রণ রেখা তুলে নিল? একটি তথ্য যাচাই

একটি পুরনো ঘটনার ভিডিওতে মিথ্যে ক্যাপশান লাগিয়ে সেটিকে একজন ডাক্তারের ওপর হামলা বলে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে এমন এক সময়ে যখন দেশের অনেক জায়গায় স্বাস্থ্য কর্মীদের ‍ওপর হামলা হচ্ছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে স্বাস্থ্য ও সরকারি কর্মকর্তাদের ওপর আক্রমণ হয়েছে। কখনও হামলা করা হয়েছে দলবদ্ধভাবে আবার কখনও একক ব্যক্তির দ্বারাই আক্রান্ত হয়েছেন তাঁরা।

ভিডিওটি স্পর্শকাতর হওয়ার কারণে বুম এই প্রতিবেদনের সঙ্গে সেটি সংযুক্ত করেনি। ভিডিওটি এখানে দেখা যাবে, আর আর্কাইভ করা আছে এখানে


একই ক্যাপশন সহ ভিডিওটি টুইটারেও শেয়ার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: কোভিড-১৯ আবহে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিবের ২০১৩ সালের ছবি ফিরে এল

তথ্য যাচাই

'ডিএমকে' আর 'সেলভা কুমার' কি-ওয়ার্ড দিয়ে ইন্টারনেটে সার্চ করলে, ২০১৮'র ওই ঘটনা সম্পর্কে কয়েকটি রিপোর্ট সামনে আসে।

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮'য় একটি লেখা বেরয় 'দ্য নিউজ মিনিট'-এ । তাতে অভিযুক্ত ডিএমকে কাউনসিলারকে এস সেলভা কুমার হিসেবে শনাক্ত করা হয়। এবং বলা হয়, উনি তামিলনাডুর পেরামবালুর অঞ্চলের আন্নামঙ্গলম-এর বাসিন্দা।


এই প্রতিবেদনে পুলিশকে উদ্ধৃত করে বলা হয় যে, মে ২০১৮'য় পেরামবালুরের পুরনো বাস স্ট্যান্ডে ময়ুরী বিউটি পার্লারে ঘটনাটি ঘটে। কিন্তু আক্রান্ত ব্যক্তি ওই ঘটনার কয়েক মাস পরে অভিযোগ দায়ের করেন।

রিপোর্টে আরও বলা হয় যে, আর্থিক বিবাদের জেরেই ডিএমকে নেতা ওই মহিলাকে মারধোর করেন।

ওই ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ সমেত সংবাদ সংস্থা এএনআই ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮'য় সিসিটিভি ফুটেজটি টুইট করে।

খবরে প্রকাশ, সাসপেন্ড-হওয়া ওই ডিএমকে নেতাকে পরে আবার পার্টিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

Claim Review :  ভিডিও দেখায় ডিএমকে নেতা সেলভা কুমার একজন কর্মরত চিকিৎসককে লাথি মারছে
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story