খাবারের দোকানে কর্মীর খাবারের মোড়কে ফুঁ দেওয়ার এই ভিডিওটি ভারতের নয়

বুম অনুসন্ধান করে দেখেছে যে ভিডিওটি প্রায় এক বছরের পুরনো এবং আদেও ভারতের নয়।

নতুন করে ছড়িয়ে পড়া একটা পুরানো ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কোনও এক খাবারের দোকানের এক কর্মী খাবার প্যাক করার সময় প্যাকেটের মধ্যে মুখ দিয়ে ফুঁ দিচ্ছেন। এই ভিডিওটি এখন সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়ার উদ্দেশ্যে শেয়ার করা হচ্ছে। বুম অনুসন্ধান করে দেখেছে যে ভিডিওটি প্রায় এক বছরের পুরানো এবং মোটেই ভারতের নয়।

৪৪ সেকেন্ডের এই ভিডিও ক্লিপটিতে কাচের কাউন্টারের পিছনে এক ব্যক্তিকে খাবার প্যাক করতে দেখা যাচ্ছে। ভিডিওটি লুকিয়ে তোলা হয়েছে। খাবার ডেলিভারি দেওয়ার অ্যাপ ফুডপান্ডা-র একটি গোলাপি রঙের স্টিকার কাচের উপর দেখা যাচ্ছে। ক্লিপটি যে ক্যাপশনের সঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে তাতে মানুষকে বাইরের খাবার খাওয়া বন্ধ করতে আবেদন করা হয়েছে এবং মুসলমানদের কটাক্ষ করা হয়েছে।

(खाने पीने की बाजारी चीजो से परहेज करें और टोपी वाली बीमारी की नीचता देखे)

বুম তার হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন নম্বরে (৭৭০০৯০৬১১১) ভিডিওটি পায়। ভিডিওটি সত্যি কি না তা জানতে চাওয়া হয়েছে।
আমরা দেখতে পাই—এই একই ভিডিও এই একই ক্যাপশনের সঙ্গে ইউটিউবে আপলোড করা হয়েছিল। সেখানে এই ঘটনাটিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণের সঙ্গে জোড়া হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

টুইটারে ভাইরাল
টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে
টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

বুম এই ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিকে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্রেমে ভাগ করে নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে। এই সার্চের ফলে দেখা যায় যে ভিডিওটি আসলে ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসের এবং এটি ভারতের ঘটনা নয়।

আমরা দেখতে পাই ২০১৯ সালের ২৬ এপ্রিল এই একই ভিডিও 'উই আর মালয়েশিয়ানস' নামে একটি ফেসবুক গ্রুপ আপলোড করে। সঙ্গে যে ক্যাপশন দেওয়া হয় তার অনুবাদ, "গোপন রেসিপি... পাপড় তাজা রাখার জন্য... দেখে মনে হচ্ছে সব সময় তাজা রাখার গোপন রেসিপি।"


ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে। ভিডিওটি আর্কাইভ করা আছে এখানে
২০১৯ সালের ২৬ এপ্রিল তারিখের আরও অনেকগুলি পোস্ট আমরা দেখতে পাই যেখানে এই একই ভিডিও আপলোড করা হয়েছে।
এ ছাড়া ভিডিওতে ফুডপান্ডা-র যে লোগো দেখা যাচ্ছে, তার রঙ গোলাপি। অথচ ভারতে ফুডপান্ডা-র যে লোগো ব্যবহৃত হত তার রঙ কমলা। এ থেকে বোঝা যায় ভিডিওটি ভারতের নয়, বাইরের কোনও দেশের। ফুডপান্ডা বর্তমানে এশিয়ার অন্যান্য দেশেও তাদের চেন খুলেছে। ২০১৭ সালে ভারতে ক্যাব-পরিষেবা সংস্থা ওলা ফুডপান্ডার ব্যবসা অধিগ্রহণ করে।

বুম ওলার কর্পোরেট কমিউনিকেশনের অধিকর্তা আনন্দ সুব্রমনিয়মের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তিনি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন যে ভিডিওটি ভারতের কোনও দোকানের নয়।

সুব্রমনিয়ম বুমকে জানিয়েছেন, "আমরা এক বছর আগেই ফুডপান্ডা-কে ওলাফুডস হিসেবে নতুন ভাবে ব্র্যান্ডিং করেছি, এবং ভারতের কোথাও এখন ফুডপান্ডা-র লোগো ব্যবহার করা হয় না।"

তিনি আরও জানান, "গোলাপি রঙের লোগো দেখে মনে হয়, এটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার কোনও দেশ। যত দিন ভারতে এই ব্র্যান্ড সক্রিয় ছিল, তত দিন অ্যাপের তালিকাভুক্ত রেস্তোরাঁগুলিতে এই লোগো (কমলা রঙের) ব্যবহার করা হত এবং তার সঙ্গে এই ব্র্যান্ডের সরাসরি কোনও সম্পর্ক ছিল না।"

বুম ফুডপান্ডা-র সঙ্গেও যোগাযোগ করে। তাদের উত্তর পেলেই এই প্রতিবেদন সংস্করণ করা হবে।

ভারতে গোলাপী রঙের ফুজপান্ডা লোগো ছিল না।

আমরা যদিও নিশ্চিত ভাবে বলতে পারছি না এটা কোন দেশের ভিডিও, তবে এই ক্লিপটি মোটেই ভারতের নয়। এবং, সাম্প্রতিক করোনা সংক্রমণের সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই।
এই মাসের গোড়ায় দিল্লিতে তবলিগি জামাতের মারকাজদের একটি ধর্মীয় জমায়েতে অংশগ্রহণকারী অনেকের করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। এই ঘটনার পর থেকেই মুসলিমদের লক্ষ্য করে মিথ্যা তথ্যে ভরা বহু ভিডিও প্রচার করা হয়। এই ভিডিওটি সেই তালিকায় নতুন সংযোজন।

Updated On: 2020-04-06T10:11:44+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় ভারতে খাবারের দেকানে মুসলিম কর্মী উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে খাবারের মোড়কে ফুঁ দিচ্ছেন
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story