ইসলাম নিয়ে সমাজবাদী দলের নেতার মন্তব্যের ভিডিও ভুয়ো দাবি সহ জিইয়ে উঠল

বুম দেখেছে, ভিডিওটি এসপি নেতা মাবিয়া আলির, যিনি মাদ্রাসায় স্বাধীনতা দিবস পালনের প্রমাণ পেশের রাজ্য সরকারি নির্দেশের বিরোধিতা করছিলেন।

সমাজবাদী পার্টির বিধায়ক মাবিয়া আলির একটি বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন যে, তিনি আগে মুসলমান, পরে ভারতীয়। এই নিয়ে তোলা ২০১৭ সালের পুরনো একটি ভিডিওকে বর্তমানের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন-বিরোধী আন্দোলনের অংশ বলে চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। অথচ আলির মন্তব্য ছিল উত্তরপ্রদেশের তদানীন্তন সরকারের একটি নির্দেশনামার প্রেক্ষিতে, যাতে প্রতিটি মাদ্রাসাকে স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের প্রমাণ পেশ করতে বলা হয়েছিল।

আরও মজার ব্যাপার হল, এস-পি নেতা মাবিয়া আলিকে বর্তমানে ভাইরাল হওয়া পোস্টে কংগ্রেস নেতা নাসিমুদ্দিন সিদ্দিকি বলে চালানো হচ্ছে।

২০১৬ সাল পর্যন্ত মাবিয়া আলি কংগ্রেসেই ছিলেন, যখন তিনি দেওবন্দ কেন্দ্রের উপনির্বাচনে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় সদস্য নির্বাচিত হন। কিন্তু ২০১৭-র বিধানসভা নির্বাচনে আলি সমাজবাদী পার্টির (এস-পি) প্রার্থী হিসাবে ভোটে দাঁড়ান এবং বিজেপি প্রার্থীর কাছে পরাস্ত হন।

২৫ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপটিতে আলিকে বলতে শোনা যাচ্ছে: "প্রথমত আমি একজন মুসলমান, দ্বিতীয়ত আমি একজন ভারতীয়l যদি কোনও আইন ইসলামের মতাদর্শের বিরোধী হয়, তাহলে আমি ইসলামের পক্ষেই দাঁড়াবো, তখন আমি সংবিধান কিংবা আইন মেনে চলতে প্রস্তুত নই। আমরা দেশের প্রতি অনুগত নই, কিন্তু আমরাই দেশের নেতা। কেবল কুকুররাই অনুগত হয়।"

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটির মূল হিন্দিতে ক্যাপশন: ‍"कांग्रेस का आला नेता नस्सिमुद्दीन सिद्दीकी कह रहा है "हम पहले मुसलमान है ..बाद में हिंदुस्तानी ..इस्लाम से टकराने वाले संविधान को भी हम नहीं मानेंगे ..हम इस देश के वफ़ादार नहीं है ..कुत्ते वफ़ादार होते है" कहाँ है दोनों भाईं बहन ⁦ @RahulGandhi ⁩ & ⁦ @priyankagandhi."

যাচাই করা টুইটার হ্যান্ডেলগুলোও মাবিয়া আলিকে কংগ্রেস নেতা সিদ্দিকি বলে চালাচ্ছে

বেশ কিছু যাচাই করা টুইটার হ্যান্ডেলও এস-পি নেতা মাবিয়া আলিকে সিদ্দিকি বলে চালিয়ে যাচ্ছে। বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র সম্বিত পাত্র এবং কানাডার প্রভাবশালী টুইট ব্যবহারকারী তারেক ফাতাহও এই একই ভুল করেছেনl দুজনেই অবশ্য পরে স্বীকার করেছেন যে, ভিডিওটি মাবিয়া আলির, সিদ্দিকির নয়।

নীচে তারেক ফতাহের টুইট।


তথ্য যাচাই

অনুসন্ধান চালিয়ে বুম এই ভিডিওটি খুঁজে পেয়েছে, যা ৩ বছর আগে ইন্ডিয়া টুডে-র একটি সংবাদ বুলেটিনে প্রকাশ হয়েছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৭ সালের ১৪ অগস্ট ভারতীয় সংবিধানের চেয়েও ইসলামি আইনকে অধিকতর গুরুত্ব দেওয়া বিষয়ে মাবিয়া আলি বিতর্কিত মন্তব্যটি করেছিলেন, যখন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সরকার রাজ্যের মাদ্রাসাগুলিতে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করার এবং তার প্রমাণ রেকর্ড করার বিষয়ে কঠোর নির্দেশ জারি করে। সে সময় আলি ছিলেন সমাজবাদী পার্টির বিধায়ক।

ওই সংবাদ-চ্যানেলেরই একটি বিতর্কমূলক অনুষ্ঠানেও ভিডিওটি প্রদর্শিত হয়েছিল:

উল্লেখ্য, কংগ্রেস নেতা নাসিমুদ্দিন সিদ্দিকি উত্তরপ্রদেশ বিধানসভার এক নির্বাচিত বিধায়ক, যাঁর সঙ্গে ওই ভিডিওটির কোনও সম্পর্কই নেই।

Updated On: 2020-01-04T20:24:41+05:30
Claim Review :  আমরা আগে মুসলিম তারপর ভারতীয় একথা বলেছেন কংগ্রেস নেতা নাসিমউদ্দিন সিদ্দিকি
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story