লেহ-তে মোদীর হাসপাতাল পরিদর্শন সাজানো? সেনাবাহিনী উড়িয়ে দিয়েছে ওই দাবি

ভারতীয় সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, ওয়ার্ডে পরিণত করা প্রশিক্ষণের হলঘরে প্রধানমন্ত্রী মোদী চিকিৎসাধীন রোগীদের দেখেন।

৩ জুন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গালওয়ানে ভারত-চিন সংঘর্ষে আহত ভারতীয় সেনাদের লেহ-র একটি সামরিক হাসপাতালে দেখতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে সোশাল মিডিয়ায় বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। ভাইরাল পোস্টে দাবি করা হয় যে, ওই পরিদর্শন সাজানো হয়েছিল, কারণ কোনও সেনার শরীরে কোনও আঘাতের চিহ্ন ছিল না, এবং পুরো ঘটনাটাই ছিল মোদীর তৈরি একটি 'ফোটো অপ' বা ছবি প্রদর্শন।

ভারতের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে ওই সব দাবি খারিজ করে দিয়েছে।

লাদাখের লেহ সফর কালে, নরেন্দ্র মোদী সেখানে মোতায়েন সেনাবাহিনী, বায়ুসেনা ও ভারত-তিব্বত সীমান্ত পুলিশের সদস্যদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন। গালওয়ানে ভারতীয় আর চিনা সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সৈনিক মারা যান ও বেশ কিছু আহত হন। ওই ঘটনার কয়েক সপ্তাহের মধ্যে মোদী সেখানে যান।

টুইটারে পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায়, মোদী ওই হাসপাতালে সেনাদের সঙ্গে কথা বলছেন। তার সঙ্গে এও দেখা যায় যে, পেছনে একটা প্রজেক্টর রয়েছে আর কিছু ছবি। তাছাড়াও, কোনও চিকিৎসা-সরঞ্জাম দেখা যায় না সেখানে।

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

যুব কংগ্রেসের জাতীয় প্রচার ব্যবস্থার দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি শ্রীবৎস ওয়াইবি একই ধরনের টুইটে দাবি করেন যে মোদী একটি 'কনফারেন্স রুম' বা আলোচনা কক্ষকে হাসপাতাল ওয়ার্ড বলে চালিয়েছেন।

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরও পড়ুন: রাজনাথ সিংহের সম্পাদিত ছবি বিভ্রান্তিকর দাবি সহ ভাইরাল

তথ্য যাচাই

বুম দেখে লেহ-র সামরিক হাসপাতাল কোনও সাজানো সেট তৈরি করেনি বা কেবল মোদীর সফরের জন্য একটি আলোচনা কক্ষকে ওয়ার্ডে পরিণত করা হয়নি। ভিডিওতে দেখা গেছে যে, ওই ঘরটি সেনাদের চিকিৎসার জন্য একটি ওয়ার্ডে রূপান্তরিত করা হয় এবং ২৩ জুন সেনা প্রধান এমএম নরভানে দু'দিনের সফরে লেহ গেলে, চিকিৎসাধীনদের সঙ্গে সেখানেই দেখা করেন।

লেহ-র সামরিক হাসপাতালে এক সময় কাজ করেছিলেন সেই রকম কিছু প্রাক্তন সামরিক নার্সিং কর্তাব্যক্তির সঙ্গে আমরা কথা বলি। তাঁরা জানান যে, ঘরটি আলোচনা কক্ষ হিসেবেই ব্যবহার করা হয়, কিন্তু সঙ্কটময় বা আপতকালীন পরিস্থিতিতে সেটিকে ওয়ার্ডেও পরিণত করা হয়। ভাইরাল পোস্টগুলিতে যে সব দাবি করা হয়েছে, সেগুলি আমরা নীচে যাচাই করছি।

একটি আলোচনা কক্ষ কি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফরের জন্য ওয়ার্ডে পরিণত করা হয়?

আমরা দেখি যে, নরেন্দ্র মোদী সেখানে যাওয়ার অনেক আগেই, সেনাদের চিকিৎসার জন্য একটি আলোচনা কক্ষকে ওয়ার্ডে পরিণত করা হয়েছিল। সেনাপ্রধান এমএম নরভানে ২৩ জুন ওই একই ঘরে জওয়ানদের সঙ্গে দেখা করেন।

২৩ জুন তারিখে এডিজিপিআই-এর নিজস্ব টুইটার হ্যান্ডেল থেকে করা টুইট নীচে দেওয়া হল। তাতে নরভানেকে আহত সেনাদের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে।

মোদী আর নরভানের পরিদর্শনের ছবি মিলিয়ে দেখলে, একই পর্দা, একই ছবির ফ্রেম আর দেওয়ালে টাঙ্গানো একই আসবাব দেখা যায়। তা থেকে প্রমাণ হয় যে, মোদী সেখানে যাওয়ার অনেক আগেই ওই ঘরটিকে একটি ওয়ার্ডে পরিণত করা হয়েছিল।

ছবি দু'টি তুলনা করা হল নীচে।


সেনাদের সঙ্গে মোদীর কথোপকথনের ভিডিও নিচে দেখুন।

প্রতিরক্ষা বাহিনীতে কাজ করতেন এমন এক উচ্চপদস্থ মহিলার সঙ্গে বুম কথা বলে। সামরিক নার্সিং পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন উনি এবং লেহ জেনারেল হসপিটালেও কাজ করেছেন। তিনি বলেন, সঙ্কটের সময় হাসপাতালে যে কোনও খালি জায়গা ওয়ার্ডে পরিণত করা যেতে পারে। "ছবিতে যে ঘরটি দেখা যাচ্ছে, সেটি একটি আলোচনা বা ট্রেনিং কক্ষ যেখানে ছবি দেখানোর সরঞ্জাম রয়েছে। কিন্তু ঘরটিকে রোগীদের চিকিৎসার ওয়ার্ডে পরিণত করা হয়েছে। এটা একটা প্রচলিত ব্যবস্থা। এমন নয় যে, কেবল গণ্যমান্যরা এলেই তা করা হয়," বলেন ওই মহিলা। উনি জানান ওই জায়গাটি সাধারণ হাসপাতাল চত্বরেরই একটা অংশ। তাছাড়া, চিকিৎসার কোনও যস্ত্রপাতি দেখা যাচ্ছে না কেন, তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে উনি বলেন, "ওয়ার্ডে কোনও চিকিৎসা-সরঞ্জাম দেখা যাচ্ছে না কারণ একটা আলাদা নার্সিং স্টেশন তৈরি করা হয়ে থাকতে পারে, যেখানে সেগুলি রাখা ছিল।"

সেনারা কি আহত হওয়ার ভান করছিলেন?

প্রাক্তন রিজারভিস্ট বা অতিরিক্ত বাহিনীর সদস্য ও আইনজীবী নভদিপ সিং বলেন, যে সেনাদের দেখা যাচ্ছে, তাঁরা সুস্থ্য হয়ে ওঠার মুখে এবং কোনও ঘোরতর আঘাতের জন্য চিকিৎসাধীন নন তাঁরা।

বিদ্বেষপূর্ণ ভিত্তিহীন অভিযোগ: ভারতীয় সেনা

পোস্টগুলি ভাইরাল হওয়ার পর, ভারতীয় সেনাবাহিনী একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। তাতে বলা হয় যে, ঠিকই ওই ঘরটি একটি অডিও-ভিসুয়াল ট্রেনিং রুম। কিন্তু হাসপাতালটিকে একটি কোভিড চিকিৎসা কেন্দ্র হিসেবে ঘোষণা করা হলে, ওই ঘরটিকে একটি ওয়ার্ডে পরিণত করা হয়।

পোস্টগুলিকে 'বিদ্বেষপূর্ণ' ও 'ভিত্তিহীন' বলে বর্ণনা করা হয় ওই বিবৃতিতে। সেটির পুরো বয়ানটি এই রকম: "এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে আমাদের সাহসী প্রতিরক্ষা বাহিনী যে ধরনের চিকিৎসা দিয়ে থাকে, সে সম্পর্কে কুৎসা ছড়ানো হচ্ছে। প্রতিরক্ষা বাহিনী তার সদস্যদের উৎকৃষ্টতম চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়ার চেষ্টা করে থাকে। এটা স্পষ্ট করা হচ্ছে যে, ১০০ বেডের উক্ত ব্যবস্থাটি সঙ্কটের সময় ক্যাপাসিটি বাড়ানোর প্রক্রিয়ার অঙ্গ এবং সেটি জেনারেল হসপিটাল চত্বরেরই অংশ। কোভিড-১৯-এর প্রোটকল মেনে, জেনারেল হসপিটালের কয়েকটি ওয়ার্ডকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে পরিণত করতে হয়। তাই, যে দিন থেকে হাসপাতালটিকে কোভিড চিকিৎসার কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়, সে দিন থেকেই অডিও-ভিসুয়াল ট্রেনিংয়ের একটি ওয়ার্ডে পরিণত করা হয় হলটিকে। কোভিড অংশ থেকে আলাদা করার জন্য, গালওয়ানের ওই আহত বীরদের ওখানে রাখা হয়।" ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, "সেনাপ্রধান জেনারেল এমএম নারভানে ও সেনা কমান্ডারও ওই একই জায়গায় আহত বীরদের সঙ্গে দেখা করেন।"

আরও পড়ুন: না, সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী মোদী সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেননি

Show Full Article
Next Story