Dinesh Trivedi প্রয়াত বলে ভুয়ো ABP Ananda গ্রাফিক শেয়ার ঘাঘু নেটিজেনের

বুম দেখে 'সাদ্দাম সেখ' নামে একটি ফেসবুক প্রোফাইল গত কয়েকমাস ধরে বিজেপি নেতাদের নিশানা করে নানা রকমের গুজব ছড়াচ্ছে।

ফেসবুকে বাংলা সংবাদমাধ্যম এবিপি আনন্দের (ABP Ananda) ভুয়ো গ্রাফিক (Fake Graphics) শেয়ার করে সদ্য রাজ্যসভা থেকে ইস্তফা দেওয়া তৃণমূল কংগ্রেস মননীত সদস্য দিনেশ ত্রিবেদীর (Dinesh Trivedi) মৃত্যুর ভুয়ো (death hoax) খবর ছড়ানো হচ্ছে। ভাইরাল হওয়া গ্রাফিক উইন্ডোটিতে লেখা হয়েছে, ''শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছিলেন না! হঠাৎ করেই সকলকে ছেড়ে চলে গেলেন দীনেশ ত্রিবেদী!''

বুম দেখে ভাইরাল হওয়া এই মৃত্যু গুজব তৈরি করে ছড়ানো হচ্ছে একটি নির্দিষ্ট ফেসবুক প্রোফাইল থেকে। ওই ফেসবুক ব্যবহারকারী আগেও একাধিকবার গণমাধ্যম এবিপি আনন্দের ভুয়ো গ্রাফিক শেয়ার করে ভুয়ো খবর ছড়িয়েছে।

শুক্রবার ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ অধিবেশন চলাকালীন রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ নারায়ণ সিংহের সামনে বক্তব্য পেশ করার সময় আচমকা সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার ঘোষণা করেন। ''দলে এখন দম বন্ধ হয়ে আসছে। আমি আমার মনের কথাশুনছি। আর চুপ করে থাকতে পারছি না,'' একথা বলেন সংসদ কক্ষে। তাঁর ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসা করেন। রাজ্য সরকারের মন্ত্রীত্ব থেকে ইস্তফা দিয়ে ডিসেম্বরের বিজেপিতে যোগ দেয় শুভেন্দু অধিকারী। পরে বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও একই পথে হাঁটেন। মন্ত্রীত্ব থেকে ইস্তফা দিয়ে যোগ দেন বিজেপিতে।

বাংলা গণমাধ্যম এবিপি আনন্দের গ্রাফিকে লেখা হয়েছে, "শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছিলেন না! হটাৎ করেই সকলকে ছেড়ে চলে গেলেন দীনেশ ত্রিবেদী!" ক্যাপশন লেখা হয়েছে, "RIP দীনেশ দাদু"

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

বুম দেখে সদ্য রাজ্যসভার সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দেওয়া দিনেশ ত্রিবেদীর প্রয়াণের খবরটি ভুয়ো। বুম এই নিয়ে গণমাধ্যমে কোনও প্রতিবেদন খুঁজে পায়নি।

বুম আরও দেখে এবিপি আনন্দের এই গ্রাফিকটি ভুয়ো। এবিপি আনন্দ এই ধরণের কোনও ফন্ট ব্যবহার করে না তাদের সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে। ওই গ্রাফিকটিতে ইংরেজিতে "সাদ্দাম সেখ" লেখা জলছাপ দেওয়া রয়েছে। তারিখ দেওয়া রয়েছে ১২ ফেব্রুয়ারি।

বুম দেখে ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ইউটিউবে আপলোড করা এবিপি আনন্দে সম্প্রচারিত দিনেশ ত্রিবেদীর ইস্তফা সংক্রান্ত খবরের ৫৬ সেকেন্ড সময় পর্বে উইন্ডো বিকৃত করে এই ভুয়ো গ্রাফিক তৈরি করা হয়েছে।

নিচে ওই দুটি গ্রাফিকের তুলনা দেওয়া হল।

বুম আগে একাধিকবার ওই ব্যক্তির তৈরি করা এবিপি আনন্দের উইন্ডো বলে চালানো গ্রাফিক খণ্ডন করেছে। সেই গ্রাফিকগুলিতেও বিজেপির একাধিক শীর্ষ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃত্বদের।

ওই ভুয়ো গ্রাফিকগুলিতে বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়, লকেট চট্টোপাধ্যায়দিলীপ ঘোষকে নিশানা করে ভুয়ো খবর ছড়ানো হয়। বুম সেই ভুয়ো খবরগুলি খণ্ডন করে।

আরও পড়ুন: দেবী দুর্গার পূর্বপুরুষ নিয়ে বিতর্কসভায় ঠিক কী বলেছেন দিলীপ ঘোষ

Updated On: 2021-02-15T16:29:47+05:30
Claim Review :   সকলকে ছেড়ে চলে গেলেন দিনেশ ত্রিবেদী
Claimed By :  Saddam Sk's Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story